Home /News /entertainment /
খবর, যতটা রোমাঞ্চকর 'সঞ্জু'র ট্রেলার, তার সিকিভাগ রোমাঞ্চও নেই ছবিতে

খবর, যতটা রোমাঞ্চকর 'সঞ্জু'র ট্রেলার, তার সিকিভাগ রোমাঞ্চও নেই ছবিতে

Film still

Film still

যতটা রোমাঞ্কর 'সঞ্জু'র ট্রেলার, তার শিকিভাগ রোমাঞ্চও নেই ছবিতে! জানালেন, ছবির ইউনিটেরই এক সদস্য

  • Share this:

    #মুম্বই: বলিটাউনে এখন একটাই ঝড়! 'সঞ্জু' ঝড়! টিজার মুক্তির পর কালবৈশাখি উঠেছিল, ট্রেলার রিলিজের পর তা আয়লার আকার নিয়েছে। অমিতাভ বচ্চন থেকে শবানা আজমি, সবাই প্রশংশায় পঞ্চমুখ! আসমুদ্র হিমাচল মুখিয়ে রয়েছে, কবে আসবে ২৯ জুন!

    কিন্তু যত দর্শকের উন্মাদনার রেশ বাড়ছে, ততই 'সঞ্জু' নিয়ে মাথা চাড়া দিচ্ছে একের পর এক সমস্যা, বিতর্ক! প্রথমত, মাধুরী দীক্ষিত রাজকুমার হিরানিকে ফোন করে বলেন, তাঁর অংশ ছবি থেকে ছঁটে ফেলতে। এদিকে, মাধুরী ছাড়া সঞ্জয়ের বায়োপিক অসম্পূর্ণ! তাঁদের অফস্ক্রিন এবং অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রি আজও বলিপাড়ায় আলোচনার 'হট টপিক'! কিন্তু ,মাধুরী নিজে থেকেই যখন সেইদিনের ছবিগুলো প্রকাশ্যে আনতে চান  না, তখন বাধ্য হয়েই মাধুরীর অংশ ছেঁটে ফেলতে হচ্ছে পরিচালককে!

    এখানে তো সবে শুরু! বিস্বস্ত সূত্রের খবর, সঞ্জয় দত্তের জীবনের আরও নানা বিতর্কিত অথচ গুরুত্বপূর্ণ অংশও কাটছাঁট করতে বাধ্য হয়েছেন পরিচালক। ট্রেলার দেখে যতটা আলোড়ন উঠেছে, ঠিক ততটাই এক্সাইটিং নাকি নয় বলিউডের 'ব্যাড বয়' সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক! শোনা যাচ্ছে, তাঁর রোমাঞ্চকর জীবনের শিকিমাত্রই নাকি ধরা পড়ছে ছবিতে। এখানে, সুনীল দত্তের ভূমিকায় দেখা মিলবে পরেশ রাওয়ালের। তিনি জানান, ''রাজকুমার হিরানি সঞ্জয় দত্তর মানবিক দিকগুলো ফুটিয়ে তোলেননি! জীবনের একেকটা পর্ব তিনি যেভাবে পার করেছেন, তাও বাদ পড়েছে চিত্রনাট্য থেকে। এটি শুধুমাত্র একটি বাবা-ছেলের গল্প।''

    ১২ মার্চ, ১৯৯৩। মুম্বই বিস্ফোরণের সঙ্গে জড়াল সঞ্জয় দত্তের নাম। তত্‍কালীন পুলিস কমিশনার রাকেশ মারিয়া তাঁকে সামনে বসিয়ে জেরা করেছিলেন। জেরায় ভেঙে পড়েন সঞ্জয় । কেন তিনি এমনটা করলেন, বারবার এই প্রশ্নে মুখ ফসকে সঞ্জয় বলেছিলেন, তাঁর গায়ে মুসলমানের রক্ত আছে! সঞ্জয়ের এই উক্তি 'সেক্যুলার' সুনীল দত্তকে বিপদে ফেলেছিল। সেইসময় মহেশ ভাট প্রকাশ্যে বলেছিলেন, মা নার্গিসের প্রভাবে সঞ্জয় কোরান শরিফের আয়াত করা লকেট পরতেন! পরবর্তীকালে অবশ্য সঞ্জয়কে কপালে লাল তিলক পরা অবতারেও দেকা গিয়েছে! এই গটনাটা নিঃসন্দেহে সংবেদনশীল, কিন্তু সঞ্জয়ের জীবনের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ! এখানে হিরানি কতটা কাটছাঁট করেছেন, তা নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ!

    ছবি থেকে বাদ গিয়েছে সঞ্জয়ের প্রেমিকারা। বরাবরই 'রঙিন জীবন' সঞ্জুর। বিয়ে করলেন রিচা শর্মাকে। মেয়ে ত্রিশলার তখন চারমাস বয়স। ব্রেন টিউমার ধরা পড়ল রিচার। এরপর নিউ ইয়র্কে নার্গিস যে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, সেখানেই রিচার চিকিত্‍সা শুরু হয়। শুটিংয়ের ফাঁকে বারবার স্ত্রীকে দেখতে গিয়েছেন তিনি, অথচ, মুম্বইয়ে সেই সময়েই তাঁর ও মাধুরী দীক্ষিতের প্রেম রোজ খবরের শিরনামে। এমনকী, মুম্বই বিস্ফোরণের পর যখন মাধুরী সঞ্জয়ের থেকে দূরে সরে যান, তখন সনীল দত্ত প্রকাশ্যে বলেন, সঞ্জয়ের ব্যক্তিগত জীবন বিপর্যস্ত! একদিকে অসুস্থ স্ত্রী! তার সঙ্গে ওর কেবল দায়িত্বের সম্পর্ক! অন্যদিকে সঞ্জয় মন থেকে ভালবাসেন এক বিখ্যাত নায়িকাকে, কিন্তু তিনি ছেড়ে যাচ্ছেন সঞ্জয়কে!মাধুরীর অনুরোধে এই অংশও বাদ পড়েছে ছবি থেকে!

    শোনা যাচ্ছে, টিনা মুনিমের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার 'এপিসোড'-ও 'ডিলিট'! কারণ, টিনার সঙ্গে ব্রেক আপের পরেই নিজের ঘরে বসে নেশার ঘোরে বন্দুক চালাতে শুরু করেন সঞ্জয়। চতুর্দিকে কাঁচ ভাঙতে থাকে আর পাড়াপড়শিরা ভয় পেয়ে পুলিসকে খবর দেন। সেই থেকেই সঞ্জয়ের বন্দুকের লাইসেন্স নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। অবশ্য, মান্যতার সঙ্গে তাঁর প্রেম, বিয়ে, বোনেদের সঙ্গে বিরোধ, সন্তান-এসব থাকছে ছবি জুড়ে।

    আরও পড়ুন-শুভশ্রীকে 'মা' বলে ডাকছে এই শিশু ! টলিপাড়ায় শোরগোল

    First published:

    Tags: Biopic, Rajkumar hirani, Ranvir Kapoor, Sanjay Dutt, Sanju, Scenes deleted

    পরবর্তী খবর