• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Ananya Panday: এনসিবি-র জেরার মাঝেই বিজয় দেবেরকোন্ডার সঙ্গে কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনন্যা

Ananya Panday: এনসিবি-র জেরার মাঝেই বিজয় দেবেরকোন্ডার সঙ্গে কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনন্যা

এনসিবি-র জেরার মাঝেই বিজয় দেবেরকোন্ডার সঙ্গে কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনন্যা

এনসিবি-র জেরার মাঝেই বিজয় দেবেরকোন্ডার সঙ্গে কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনন্যা

Ananya Panday: নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)-র আতস কাঁচের তলায় উঠতি অভিনেত্রী অনন্যা পাণ্ডে। দফায় দফায় তাঁকে জেরা করা হচ্ছে এনসিবি অফিসে।

  • Share this:

    #মুম্বই: নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)-র আতস কাঁচের তলায় উঠতি অভিনেত্রী অনন্যা পাণ্ডে (Ananya Panday)। দফায় দফায় তাঁকে জেরা করা হচ্ছে এনসিবি অফিসে। তবে এর মধ্যেই দক্ষিণী হার্টথ্রব অভিনেতা বিজয় দেবেরকোন্ডার (Vijay Deverkonda) সঙ্গে একটি গানের শ্যুটিং এর প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আগামী সোমবারও অনন্যাকে জেরা করার জন্য এনসিবি তাদের অফিসে তলব করেছে।

    সূত্রের খবর, খুব শীঘ্রই বিজয়ের সঙ্গে অনন্যার এই শ্যুটিং শুরু করার কথা। জানা যাচ্ছে আগামী ২৫ অক্টোবর এই কাজ শুরু করবেন অনন্যা। এছাড়াও সামনে বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের শ্যুটিং রয়েছে অনন্যার। তবে সামনে এতগুলি কাজ থাকলেও এখন এনসিবির নজরে রয়েছেন অনন্যা। এমনকী বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তাঁর ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোনও। সূত্রের খবর, এই তদন্তে এনসিবিকে সহযোগিতা করছেন অভিনেত্রী।

    আরিয়ানের (Aryan Khan) সঙ্গে একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সামনে আসার পরেই নাম জড়ায় অনন্যার (Ananya Panday)। এক জায়গায় আরিয়ান অনন্যাকে গাঁজা জোগাড় করার কথা বলছেন। উত্তরে অনন্যা বলেছেন যে, তিনি দেখছেন কী করা যায়। তবে এই চ্যাট নাকি মজা করে করা বলে জানিয়েছেন অনন্যা। মাদক সংক্রান্ত তিনি কিছুই জানেন না বলে দাবি করেছেন। যদিও এনসিবিও জানিয়েছে, এই চ্যাট ছাড়া আর কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি, যা প্রমাণ করতে পারে যে অনন্যা (Ananya Panday) মাদকের সঙ্গে জড়িত। সোমবারও তাঁকে এই সংক্রান্ত বেশ কিছু জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দুদিনই বাবা চাঙ্কি পাণ্ডের সঙ্গে এনসিবি অফিসে উপস্থিত হন রাখি।

    আরও পড়ুন- 'বেচারা বাচ্চাগুলোকে দয়া করুন', আরিয়ান-অনন্যার জন্য এনসিবির কাছে দয়াভিক্ষা চাইলেন রাখি

    প্রসঙ্গত, এনসিবির এক আধিকারিক বলেছেন, "এটা তদন্ত প্রক্রিয়ার মধ্যে পড়ে। এমন নয় যাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, তিনিই অপরাধী।" অন্যদিকে চার বার জামিনের আবেদন খারিজ হওয়ায়, এবার বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন আরিয়ান খান (Aryan Khan)। ফের জামিনেরর আবেদনে আরিয়ান দাবি করেছেন, তাঁর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আরিয়ান এও বলেছেন যে, তাঁকে এই মাদককাণ্ডে জড়ানোর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটগুলি ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: