Home /News /education-career /

Delhi University: দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে রিসার্চ প্রপোজালের আমন্ত্রণ! গ্রান্ট দেওয়া হবে সর্বোচ্চ ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত

Delhi University: দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে রিসার্চ প্রপোজালের আমন্ত্রণ! গ্রান্ট দেওয়া হবে সর্বোচ্চ ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত

Representative Image

Representative Image

Delhi University Invites Research Proposal from Faculty Members: বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত স্থায়ী কর্মীরাই কেবলমাত্র এই গবেষণায় অংশ নিতে পারবেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: সম্প্রতি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় (University of Delhi) এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের থেকে এক বছরের ফ্যাকাল্টি রিসার্চ প্রপোজালের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। সে ক্ষেত্রে ফ্যাকাল্টি মেম্বাররা একক বা কোলাবরেশনে গবেষণাপত্র জমা দিতে পারবেন। শুধু মাত্র বিশ্ববিদ্যালয় নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত কলেজের ফ্যাকাল্টিরাও একই আমন্ত্রণ পেয়েছেন। উল্লিখিত রিসার্চ প্রপোজাল জমা দেওয়ার শেষ দিন ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ এবং প্রপোজাল যথাসময়ে জমা দিতে হবে এই আইডিতে- ioe.du.ac.in

ইন্সটিটিউট অফ এমিনেন্স স্কিমের (Institution of Eminence scheme) আয়ত্তাধীন বিশ্ববিদ্যালয়ে রিসার্চের সম্প্রসারণ এবং গবেষণায় উৎসাহ প্রদান করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের থেকে এই শর্ট-টার্ম প্রপোজাল (এক বছরের সময়সীমা, ২০২১-২২) নেওয়া হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে পর্যবেক্ষক এবং প্রজেক্ট এভ্যালুয়েশন কমিটির (Project Evaluation Committee) সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

রিসার্চ প্রপোজালের ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের বক্তব্য, সুস্পষ্ট সম্ভাব্যতা যুক্ত গবেষণাপত্র, সুস্পষ্ট উদ্দেশ্য এবং আশান্বিত ফলাফল থাকাই কাম্য। সম্পূর্ণ গবেষণাকর্মটি আগামী এক বছরের সময়সীমার মধ্যে সমাপ্ত করতে হবে। গবেষণাকর্মটি এমন ভাবে পরিকল্পনা করতে হবে যাতে PI অথবা Co-PI ল্যাবরেটরির সফটওয়্যার দ্বারা নির্দেশিত ও যাচাই করা সম্ভব হয়।

আরও পড়ুন- Flipkart থেকে টাকা উপার্জন! প্রতি মাসে ৮০ হাজার টাকা ইনকামের সুযোগ কেমন করে হবে? জেনে নিন

বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত স্থায়ী কর্মীরাই কেবলমাত্র এই গবেষণায় অংশ নিতে পারবেন। অন্তত গবেষণাপত্র জমা দেওয়ার সময় ওই সংশ্লিষ্ট কর্মীকে স্থায়ী সদস্য হতে হবে। অবশ্য অ্যাড-হক (ad-hoc) ফ্যাকাল্টি মেম্বাররা সরাসরি অংশ গ্রহণ করতে না পারলেও কো-ইনভেস্টিগেটর হিসেবে যোগ দিতে পারবেন।

ফাইনাল টেকনিক্যাল রিপোর্ট জমা দেওয়ার সময় সুস্পষ্ট অন্বেষণপত্র, ম্যানুস্ক্রিপ্টের একটি কপি, প্রকাশিত গবেষণাপত্র এবং স্বীকৃতিপ্রাপ্ত চিঠি ইত্যাদি-সহ জমা দিতে হবে। একটি সিঙ্গল পিডিএফে করে এই ফাইনাল টেকনিক্যাল রিপোর্ট নিয়ে FRP ২০২১ গ্রান্টের জন্য আবেদন করতে হবে।

গ্রান্টের সর্বাধিক মূল্যের অর্থনৈতিক সহযোগিতা হবে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত (বিজ্ঞান, ইন্টারডিসিপ্লিনারি এবং অ্যাপলাইড সায়েন্সের ক্ষেত্রে), ১.৭৫ লক্ষ টাকা স্যোশ্যাল সায়েন্স, ইন্টারডিসিপ্লিনারি অ্যাপলাইড স্যোশ্যাল সায়েন্সের ক্ষেত্রে। অন্য দিকে হিউম্যানিটিজ, ল' এবং অন্যান্য ডিসিপ্লিনে ১.৫ লক্ষ টাকা করে গ্রান্ট দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন-GPSC Recruitment 2021: প্রচুর শূন্যপদে নিয়োগ! পাবলিক সার্ভিস কমিশনে চাকরির বড় সুযোগ, বিশদে জানুন...

মেম্বাররা যাঁরা একক ভাবে FRP ২০২০ পেয়েছিলেন তাঁরা FRP ২০২১ বছরে অগ্রাধিকার পাবেন, সে ক্ষেত্রে মেম্বারদের যদি গত তিন বছরের গবেষণা প্রকাশ হয় তবেই এই সুবিধা দেওয়া হবে। সায়েন্সের জন্য সর্বনিম্ন পাঁচ বছর, স্যোশাল সায়েন্সের জন্য তিন বছর এবং হিউম্যানিটিজের জন্য দু’বছরের গবেষণাপত্র থাকতে হবে। যদি গবেষণাকর্ম ফিল্ড ওয়ার্ক ভিত্তিক হয় তবে তার বিস্তারিত বিবরণ প্রদান করতে হবে এবং সেটি বরাদ্দ বাজেটের মধ্যে থাকা উচিত বলে জানানো হয়েছে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Delhi University

পরবর্তী খবর