হোম /খবর /ক্রাইম /
বউমাকে বেধড়ক ঠ্যাঙাচ্ছিল ছেলে,মা বাঁচাতে যেতেই পড়ল রডের আঘাত,তারপর বউমা যা করল

Crime News: বউমাকে বেধড়ক ঠ্যাঙাচ্ছিল ছেলে, মা বাঁচাতে যেতেই পড়ল রডের আঘাত, তারপর বউমা যা করল ...

Son beats mother with iron rod in Maldah

Son beats mother with iron rod in Maldah

মালদহে 'গুণধর' ছেলের কীর্তি, রড দিয়ে মেরে মায়ের মাথা ফাটাল ছেলে

  • Share this:

#মালদহ: মালদহে ছেলের হাতে আক্রান্ত মা। লোহার রড দিয়ে মেরে মায়ের মাথা ফাটাল ছেলে। অপরাধ ছেলের অত্যাচার থেকে বৌমাকে বাঁচাতে গিয়েছিলেন। একজন মেয়ে হয়ে মেয়ের ওপরে নির্যাতন মুখ বুঝে মেনে নেননি। বাধা দিতে গিয়েছিলেন ছেলেকে। আর এতেই জুটল ছেলের হাতে মার। মালদহের কালিয়াচক থানার গোলাপগঞ্জ ফাঁড়ি এলাকার লালুটোলার ঘটনা।

আক্রান্ত মহিলা সনেকা মণ্ডল ভর্তি মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। অভিযুক্ত ছেলে পবন মণ্ডলের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত ছেলে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, 'গুণধর' ছেলে পবন মণ্ডল প্রায়ই বৌমা রুম্পা মণ্ডলকে অত্যাচার করত। শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চলতো বউমা রুম্পার ওপর। এরআগেও বারবার এনিয়ে ছেলেকে বকাঝকা এমনকি সাবধান করেন মা। কিন্তু, ছেলে তাতে আমল দেয়নি। শুক্রবার সকালে ফের বউমার ওপরে কার্যত চড়াও হয় ছেলে।

আরও পড়ুন -  Cyclone Mandous Update: তাণ্ডব করতে তৈরি! সমুদ্রে ফুঁসছে সাইক্লোন, জারি রেড অ্যালার্ট

সেইসময় প্রতিবাদ করতে এগিয়ে গেলে লোহার রড দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় মা সনেকা মণ্ডলের। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  সেখান থেকে স্থানান্তরিত করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মা। ঘটনায়  ক্ষোভ ছড়ায় এলাকায়। ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। যদিও ঘটনার পরেই গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত ছেলে। গোটা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন -  Healthy Lifestyle: খুব প্রয়োজন! পিরিয়ড পিছোতে হবে, ঘরোয়া উপাচারে সাইড এফেক্ট ছাড়াই মুক্তি

এদিকে, ছেলের হাতে রক্তাক্ত শাশুড়িকে উদ্ধার করেন বউমা। রক্তাক্ত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান হাসপাতালে। বউমা রুম্পা বলেন, ‘‘প্রায়ই আমার উপরে অত্যাচার হত। শাশুড়ি মা প্রতিবাদ করতেন। আজ সকালেও মারধর চলছিল। সেইসময় শাশুড়ি আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন । আমি ভয়ে পালিয়ে যায় । এরপর আমার স্বামী আক্রমণ করে শাশুড়িকে ।’’ পুলিশ জানিয়েছে, গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত করে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Sebak Deb Sharma

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Crime, Malda