• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • OLD WOMAN TRIED TO COMMIT SUICIDE BY ENTERING EKBALPUR POLICE STATION SON ARRESTED SDG

Kolkata News|| অকথ্য গালিগালাজ-মারধর! থানার ভিতরে গায়ে আগুন দেওয়ার চেষ্টা নির্যাতিতা মায়ের! তারপর...

অভুজুক্ত ছেলে এবং ছেলের বউ (বাম দিকে), নির্যাতিতা মা।

Kolkata Crime News: মাকে কারণে-অকারণে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। মারধর করে কোনও কিছু হলেই। ছেলের এমন অমানবিক অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে একবালপুর থানায় (Ekbalpur Police Station) অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন অসহায় বৃদ্ধা মা।

  • Share this:

    #কলকাতা: মাকে কারণে-অকারণে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। মারধর করে কোনও কিছু হলেই। ছেলের এমন অমানবিক অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে একবালপুর থানায় (Ekbalpur Police Station) অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন অসহায় বৃদ্ধা মা। কিন্তু আগেও পুলিশে জানিয়ে সমাধান মেলেনি, আদৌ সমাধান মিলবে কি? এই সব ভেবেই থানা চত্বরে ঢুকে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন লাগানোর চেষ্টা করেন তিনি। তবে পাশেই থাকা এক মহিলা পুলিশকর্মীর তৎপরতায় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা মিলেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার হয়েছে গুণধর ছেলে। খাস কলকাতার বুকে এমন অমানবিক ঘটনায় স্তম্ভিত শহরবাসী।

    পুলিশ সূত্রে খবর, নির্যাতিত মহিলা ৪০/৪ একবালপুর (Ekbalpur) লেনের বাসিন্দা শাকিলা খাতুন (৬০)। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে বারো'টা নাগাদ ছেলের বিরুদ্ধে তিনি অভিযোগ জানাতে এসেছিলেন একবালপুর থানায়। কিন্তু থানার কাছাকাছি পৌঁছে একটি প্লাস্টিকের থলি থাকে কেরোসিন তেল বার করে নিজের শরীরে ঢেলে আগুন লাগানোর চেষ্টা করেন। কোনও সময় নষ্ট না করে সেই সময় তাঁকে ধরে ফেলেন মহিলা পুলিশ কর্মীরা। ঘটনার পর মহিলা অসুস্থ বোধ করলেন প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

    এ দিকে, মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত ছেলে ফারুককে গ্রেফতার (Arrest) করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। নির্যাতিত মহিলার মেয়ের অভিযোগ, প্রায়শই মায়ের উপর অত্যাচার ও মারধর করে তাঁর ভাই এবং ভাইয়ের বউ। মঙ্গলবার দুপুরে আবারও অশান্তি হয়, তখন ফের মাকে মারধর করে। নিত্য এই শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে, এ দিন ছেলের বিরুদ্ধে একবালপুর থানায় অভিযোগ জানাতে যান শাকিলা খাতুন। তারপর চরম হতাশা এবং ছেলের গ্রেফতারির দাবিতে থানা চত্বরে মধ্যেই গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি।

    সৌরজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: