• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • মৃত বাবার গলাতেই কথা বলতেন ললিত, বুরারি কাণ্ডে শুরু সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সি

মৃত বাবার গলাতেই কথা বলতেন ললিত, বুরারি কাণ্ডে শুরু সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সি

Photo: Collected

Photo: Collected

বিশেষ মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হয়েছিলেন পরিবারের সদস্যরা জানতে এবার মৃতদের সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সি শুরু করলেন তদন্তকারীরা ।

  • Share this:
    #দিল্লি: এক সঙ্গে একই পরিবারের ১১ জনের মৃত্যু, নোট নিয়ে বুরারি কাণ্ডে তদন্তে ধোঁয়াশা কাটছে না কোনও ভাবেই । কোনও বিশেষ গডম্যান-এর দ্বারে উদ্বুদ্ধ হয়ে তারা এই কাজ করেছেন, নাকি কোনও বিশেষ মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হয়েছিলেন পরিবারের সদস্যরা জানতে এবার মৃতদের সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সি শুরু করলেন তদন্তকারীরা । কী এই সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সি? মনোবিদরা জানাচ্ছেন, এ ক্ষেত্রে মৃতদের আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে কথা বলে, তাদের মেডিক্যাল রিপোর্ট ও তাদের সম্পর্কে অন্যান্য তথ্য পরীক্ষা করে দেখা হয় মৃতরা কোনও শেয়ারড সাইকোসিস ডিজঅর্ডারের শিকার হয়েছিলেন কিনা । এর আগে সুনন্দা পুষ্কর ও আরুষি তলওয়ার মৃত্যু রহস্যেও সাইকোলজিক্যাল অটোপ্সির সাহায্য নিয়েছিলেন তদন্তকারীরা । শেয়ারড সাইকোসিস ডিজঅর্ডার কী ? সাধারণত নিকট আত্মীয়, কাছের বন্ধু-বান্ধবের মধ্যে এই সমস্যা দেখা যায় । এক্ষেত্রে কেউ কোনও মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হলে, তার আত্মীয়-বন্ধুরা সম্পূর্ণ সুস্থ হলেও তাদের মধ্যেও সেই সমস্যার প্রভাব দেখা দিতে শুরু করে । ভাটিয়া পরিবারের আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পেরেছে, কিছুদিন ধরেই মৃত বাবার কথা বলার ধরন, গলার আওয়াজ নকল করতে শুরু করেছিলেন পরিবারের তৃতীয় ছেলে ললিত ভাটিয়া । বুরারি কাণ্ডের তদন্তে বিদ্যাসাগর ইনস্টিটিউট অফ মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরো সায়েন্সেস-এর সাহায্য নিচ্ছেন তদন্তকারীরা । আরও পড়ুন: এই সেই ভাটিয়া পরিবারের ১১ জন, যাদের অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে তোলপাড় দেশ   চিকিত্সক রজত মিত্র তদন্তকারীদের জানান, এই ধরনের ক্ষেত্রে একজন হন মূল আক্রান্ত । বাকিরাও সেই মানসিক সমস্যা 'শেয়ার' করলে তাকে শেয়ারড সাইকোসিস ডিজঅর্ডার বলা হয় । তারা তখন নিজেদের বিচারবুদ্ধি হারান এবং মূল আক্রান্তকেই তাদের পথপ্রদর্শক মনে করতে থাকেন । তার রিয়ালিটি হয়ে ওঠে বাকিদের রিয়ালিটি । পরিবারের সকলেই ৪৫ বছরের ললিতকেই পরিবারের মাথা মানতে শুরু করেছিলেন । ললিতের কথামতোই চলতেন পরিবারের সদস্যরা । তবে সম্ভবত ললিতের স্ত্রী টিনার মধ্যে প্রথম শেয়ারড সাইকোসিস ডিজঅর্ডারের লক্ষণ দেখা যায় । যার থেকে ধীরে ধীরে এই চরম পরিণতির দিতে এগিয়ে যেতে থাকে ভাটিয়া পরিবার ।
    First published: