corona virus btn
corona virus btn
Loading

দেশ বিপর্যয়ের মুখে, এই সময় Reliance Foundation'-এর 'Mission Anna Seva' এক মহৎ উদ্যোগ: নীতা আম্বানি

দেশ বিপর্যয়ের মুখে, এই সময় Reliance Foundation'-এর 'Mission Anna Seva' এক মহৎ উদ্যোগ: নীতা আম্বানি

মিশন অন্ন সেবার মাধ্যমে দেশের ৩ কোটি মানুষের কাছে খাবার পৌঁছে দেবে রিলায়েন্স ৷

  • Share this:

#মুম্বই: দেশজুড়ে আতঙ্কের এখন একটাই নাম ৷ সেটা হল করোনা ভাইরাস ৷ এই মারণ ভাইরাসের জেরে গোটা বিশ্বজুড়েই প্রবল সঙ্কটে পড়েছে মানবজাতি ৷ তীব্র অর্থনৈতিক সঙ্কটের মুখেও দাঁড়িয়ে গোটা দেশ ৷ এই কঠিন সময় সংস্থার কর্মীদের পাশে দাঁড়াল Reliance ৷ রিলায়েন্স ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান নীতা আম্বানি সংস্থার কর্মীদের উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন,

আমার প্রিয় রিলায়েন্স পরিবার ৷ আশা করি আপনারা এবং আপনাদের পরিবারের সবাই ভাল আছেন ৷

কোভিড-১৯ অতিমারি গোটা বিশ্বের কাছেই এখন যথেষ্ট আতঙ্কের বিষয় ৷ ভারতের কাছেও তাই ৷ এটা অত্যন্ত কঠিন সময় ৷ আপনারাও নিশ্চয় দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছেন ৷ কিন্তু মনে রাখবেন আপনারা কেউ একলা নেই ৷ মুকেশ আর আমার কাছে আপনারাই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৷ আপনার এবং আপনার পরিবারের প্রত্যেকে যাতে এই কঠিন সময় ভাল থাকেন, সুস্থ থাকেন ৷ সেটা দেখা আমাদের দায়িত্ব ৷

ভারতে এখন লকডাউনের সীমা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ৷ গোটা দেশের নাগরিকরা কী কঠিন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন, তা দেখেও খুব খারাপ লাগছে ৷ কারণ প্রত্যেকেই আমাদের ‘ভারত পরিবার’-এর অংশ ৷

মিশন অন্ন সেবার মাধ্যমে দেশের ৩ কোটি মানুষের কাছে খাবার পৌঁছে দেব আমরা, যারা করোনা যুদ্ধে সবার সামনে রয়েছেন ৷ মিশন অন্ন সেবা হল গোটা বিশ্বেই কোনও কর্পোরেট ফাউন্ডেশন মারফত সবচেয়ে বড় ডিস্ট্রিবিউশন প্রোগ্রাম ৷ এই প্রোগ্রামের মধ্যে রয়েছেন বস্তিবাসী থেকে শুরু করে, কারখানার শ্রমিক, আর্বান সার্ভিস প্রোভাইডার, বৃদ্ধাশ্রম এবং অনাথ আশ্রমের সঙ্গে যুক্ত মানুষরা ৷ BMC-র সঙ্গে এই পার্টনারশিপে মুম্বইয়ে ভারতের প্রথম ১০০ বেডের এক্সক্লুসিভ কোভিড-১৯ হাসপাতাল গড়ে তুলতে সফল হয়েছে রিলায়েন্স ৷ আমরা আরও একলক্ষ মাস্ক এবং এক লক্ষ পিপিই তৈরি করব দেশের স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ৷ এমার্জেন্সি গাড়ির জন্য রিলায়েন্সের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে জ্বালানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে ৷ যাতে কোভিড-১৯-এর রোগীরা ঠিকসময় এবং দ্রুত চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পৌঁছতে পারেন ৷ রিলায়েন্স রিটেলের কর্মীরা গোটা দেশে কাজ করছেন ৷ এবং জরুরী সামগ্রী ২০০টি শহরে সরবরাহ করছেন ৷ পাশাপাশি জিও-র কর্মীরাও দিনরাত কাজ করছেন, যাতে নিখুঁত ডিজিটাল পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হয় ৪০ কোটি বেশি গ্রাহক এবং হাজারের বেশি সংস্থার জন্য ৷ ওয়ার্ক ফ্রম হোম, স্টাডি ফ্রম হোমের সময় যা অত্যন্ত প্রয়োজন ৷

এর পাশাপাশি করোনা মোকাবিলায় পিএম কেয়ার্স ফান্ডে ৫৩৫ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই দান করেছে রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন ৷ মুকেশ এবং আমি রিলায়েন্স পরিবারের প্রত্যেকে যারা এই কঠিন সময়ও দারুণ কাজ করছেন, তাঁদের জানাই স্যাল্যুট ৷ আপনারাই রিলায়েন্সের শক্তি ৷ প্রত্যেকের জন্যই আমরা গর্বিত ৷ আপনারাই কোভিড-১৯-র বিরুদ্ধে বীর নায়কের মতো লড়াই করছেন ৷ ‘করোনা হারেগা, ইন্ডিয়া জিতেগা’ ৷

Stay safe, stay happy. God bless. Jai Hind! Nita M Ambani
Published by: Siddhartha Sarkar
First published: April 20, 2020, 2:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर