Home /News /coronavirus-latest-news /

Pinarayi Vijayan : মাস্ক-স্যানিটাইজার থেকে PPE-KIT, কালোবাজারি এড়াতে দাম বেঁধে দিল কেরল সরকার!

Pinarayi Vijayan : মাস্ক-স্যানিটাইজার থেকে PPE-KIT, কালোবাজারি এড়াতে দাম বেঁধে দিল কেরল সরকার!

কালোবাজারি রুখতে পদক্ষেপ File Photo

কালোবাজারি রুখতে পদক্ষেপ File Photo

কালোবাজারি রুখতে সক্রিয় হলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (P Vijayan)। এই উদ্দেশ্যে শনিবার সে রাজ্যের ‘অত্যাবশকীয় দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন (১৯৮৬) অনুযায়ী কিছু চিকিৎসা সরঞ্জামের দাম বেঁধে দেওয়ার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

  • Share this:

    #তিরুঅনন্তপুরম : গোটা দেশে শুরু হয়েছে করোনা চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় ওষুধ থেকে মাস্ক-স্যানিটাইজারের মত জরুরি দ্রব্যের কালোবাজারি (Black Marketing)। এবার করোনা আবহে (Coronavirus Second Wave) চিকিৎসা সরঞ্জামের সেই কালোবাজারি রুখতে সক্রিয় হলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (P Vijayan)। এই উদ্দেশ্যে শনিবার সে রাজ্যের ‘অত্যাবশকীয় দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন (১৯৮৬) অনুযায়ী কিছু চিকিৎসা সরঞ্জামের দাম বেঁধে দেওয়ার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

    মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি টুইটার হ্যান্ডলে জানানো হয়েছে, এ বার থেকে ব্যবসায়ীরা ২৭৩ টাকায় পিপিই, ২২ টাকায় এন-৯৫ মাস্ক, ৩ টাকা ৯০ পয়সায় ট্রিপল লেয়ার মাস্ক, ২১ টাকায় ফেস শিল্ড, ১২ টাকায় একবার ব্যবহারযোগ্য অ্যাপ্রন, ৬৫ টাকায় সার্জিক্যাল গাউন এবং ৫ টাকা ৭৫ পয়সায় ইন্সপেকশন গ্লাভস, বিক্রি করতে বাধ্য থাকবেন।

    পাশাপাশি, ৮০ টাকায় এনআরবি মাস্ক, ৫৪ টাকায় অক্সিজেন মাস্ক, ১৫ টাকায় পাওয়া যাবে একজোড়া স্টেরাইল গ্লাভস, ১,৫০০ টাকায় মিলবে পাল্‌স অক্সিমিটার, ১,৫২০ টাকায় হিউমিডিফায়ার-সহ ফ্লো-মিটার এবং স্যানিটাইজারের ক্ষেত্রে ৫৫ টাকায় ১০০ মিলিলিটার (কিংবা ৯৮ টাকায় ২০০ এবং ১৯২ টাকায় ৫০০ মিলিলিটার) দাম বেঁধে দেওয়া হয়েছে নির্দেশিকায়। সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, অতিমারি পরিস্থিতিতে আমজনতার স্বার্থ রক্ষার জন্যই এই পদক্ষেপ।

    প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতিতে বেশ ভয়াবহ আকার নিয়েছে কেরলে। ঊর্ধ্বমুখী অক্সিজেনের চাহিদা দেখে ইতিমধ্যেই তামিলনাড়ু, কর্ণাটককে অক্সিজেন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কেরল। চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সেই কথা জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে বিজয়ন জানান, বর্তমানে কেরলে ২১৯ মেট্রিক টন অক্সিজেন প্রস্তুত করা হচ্ছে। অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় রাজ্যবাসীর জন্য তা কাজে লাগাতে চান তিনি।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Battle coronavirus, Kerala, Pinarayi Vijayan

    পরবর্তী খবর