Bhupesh Baghel: লকডাউনে ওষুধ কিনতে যাওয়া ব্যক্তিকে চড় জেলাশাসকের, ক্ষমা চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী!

এক ব্যক্তিকে চড় মারছেন জেলাশাসক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া দৃশ্য।

করোনাভাইরাসের জেরে লকডাউন (Coronavirus Lockdown) চলছে ছত্তিশগড়ে (Chhattisgarh Lockdown)। এক ব্যক্তি প্রয়োজনীয় ওষুধ কিনতে রাস্তায় বেরিয়েছিলেন।

  • Share this:

    #রায়পুর: করোনাভাইরাসের জেরে লকডাউন (Coronavirus Lockdown) চলছে ছত্তিশগড়ে (Chhattisgarh Lockdown)। এক ব্যক্তি প্রয়োজনীয় ওষুধ কিনতে রাস্তায় বেরিয়েছিলেন। অভিযোগ, সেই ব্যক্তিকে রাস্তায় বেরনোর অপরাধে চড় মারেন রাজ্যের সূরজগড়ের জেলাশাসক রণবীর শর্মা। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। আর তার পরেই ওই জেলাশাসককে সাসপেন্ড করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল (Bhupesh Baghel)।

    রবিবার একাধিক ট্যুইট করে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল। তিনি এই ঘটনার জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন ট্যুইটে। তিনি ট্যুইটে লিখেছেন, 'সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এক ব্যক্তির সঙ্গে সূরজপুরের জেলাশাসক রণবীর শর্মার দুর্ব্যবহার আমার নজরে এসেছে। এটা খুবই দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। ছত্তিশগড়ে এই ধরনের ঘটনা কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। রণবীর শর্মাকে দ্রুত সাসপেন্ড করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।'

    মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেলের এই নির্দেশের পরই অভিযুক্ত জেলাশাসককে নব রায়পুরের মন্ত্রালয়ে বদলি করা হয়েছে। রায়পুর জেলা পঞ্চায়েতের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (CEO) গৌরব কুমার সিংকে সূরজপুরের নতুন জেলাশাসকের পদে বসানো হয়েছে। হিন্দিতে আরও একটি ট্যুইটে মুখ্যমন্ত্রী বাঘেল লিখেছেন, 'এক অফিসারের তরফে এমন দুর্ব্যবহার কোনও ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এই ঘটনায় আমি খুবই দুঃখিত। ওই ব্যক্তি ও তাঁর পরিবারের কাছে আমি ক্ষমা চাইছি।'

    পরে রণবীর শর্মা নিজেও ক্ষমা চেয়েছেন। তাঁর বক্তব্য, 'সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে লকডাউনের মধ্যে এক ব্যক্তিকে চড় মারতে দেখা গিয়েছে আমাকে। আমি এই ঘটমায় ক্ষমাপ্রার্থী। এভাবে কাউকে অশ্রদ্ধা করার কোনও অভিপ্রায় আমার ছিল না।' IAS অ্যাসোসিয়েশনের তরফেও রণবীর শর্মার এমন কাজের তীব্র নিন্দা করা হয়েছে। ট্যুইট করে গোটা ঘটনার নিন্দা করেছে সংস্থা।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: