corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা মোকাবিলায় হাতিয়ার বাংলার লোক উৎসব, সোশ্যাল মিডিয়ায় হিট 'করোনাসুর বধ' পালা

করোনা মোকাবিলায় হাতিয়ার বাংলার লোক উৎসব, সোশ্যাল মিডিয়ায় হিট  'করোনাসুর বধ' পালা

ছৌ নাচের মাধ্যমে সচেতনতার প্রচার চলে আসছে বহুদিন ধরে। সামাজিক মাধ্যমে এই সমস্ত সচেতনতা মূলক প্রচার চালানোয় সাধারণ মানুষের কাছে সহজেই তার সুফল পৌছয়।

  • Share this:

#পুরুলিয়াঃ করোনা অসুরকে হারাতে এবার ছৌ নাচের মাধ্যমে শুরু হল সচেতনতা মূলক  প্রচার। পুরুলিয়ার বিখ্যাত 'জোহার মানভূম' ইউটিউবে করোনা'র মত সংক্রামক রোগ কীভাবে হারানো যাবে তা নিয়ে প্রচার শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই তাদের 'করোনাসুর বধ' পালা ইউটিউবে লক্ষ লক্ষ মানুষ দেখেছেন।

ছৌ নাচের মাধ্যমে সচেতনতার প্রচার চলে আসছে বহুদিন ধরে। সামাজিক মাধ্যমে এই সমস্ত সচেতনতা মূলক প্রচার চালানোয় সাধারণ মানুষের কাছে সহজেই তার  সুফল পৌছয়। করোনা'র মত সংক্রামক রোগ ঠেকাতে শুধু মাত্র চিকিৎসা নয়, ভীষণ জরুরি হচ্ছে মানুষকে সচেতন করা। বিশেষ করে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা, হাত ধোয়া, মাস্ক পড়া, লক ডাউনের সময় বাড়িতে থাকার মত বিষয়গুলি। সেই সব নিয়ম এক বন্ধনীতে তুলে এনে চলছে এই প্রচার ইউটিউবে করোনার বিরোধিতা করে। পালার মধ্যে নানা ধরণের ডায়লগ, তা অভিনয়ের কৌশল যেভাবে তুলে ধরা হয়েছে তাতে এই পালা প্রশংসা কুড়িয়েছে সমস্ত মহলে।

পালায় 'ভারতমাতা' ত্রিশূল হাতে অবিচল দৃষ্টি নিয়ে মোকাবিলা করছেন করোনার। মুখোশের আড়ালে লুকিয়ে থাকা করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দেশ কিভাবে লড়াই করবে তা তুলে ধরা হয়েছে ছত্রে ছত্রে। পুরুলিয়ার বলরামপুরের ঘাটবেড়া এলাকার এই ছৌ নাচের দল সামাজিক দুরত্ব মেনে ঢোল, বাদক, অভিনেতা নিয়ে সচেতনতামুলক এই পালা প্রচার করছে সামাজিক মাধ্যমে। করোনা কীভাবে বুঝবেন তা বোঝাতে গিয়ে, পালায় বলা হয়েছে, "যেখানে দেখিব ভিড়, করিব আমি প্রবেশ/প্রথমে হবে সদি, কাশি আর জ্বর, তারপরেই হবে শেষ।" পাশাপাশি ভারতমাতার গলায় উল্লেখ আছে, "এই মহামারীর দিনে/জড়ো হোস না একই ঠিনে/তরা লক ডাউনকে মান/নাইতো যাবেক সবার প্রাণ"।

মানভূমের বিখ্যাত কবি কৃত্তিবাস কমকারের যে সব বিখ্যাত ঝুমুর গান আছে তার অণুকরণেই এই গোটা পালার গান-নাটক-সংলাপ বাঁধা হয়েছে। লক ডাউনের সময় বন্ধ সামাজিক অনুষ্ঠান। বিভিন্ন এলাকায় যে সমস্ত ছৌ নাচের পালা হওয়ার কথা ছিল আপাতত তাও হচ্ছে না। কিন্তু করোনা'র বিরোধিতা করে সেই পালাকেই এবার তুলে ধরা হল সামাজিক মাধ্যমে। একাধিক ব্যক্তি ইতিমধ্যেই প্রশংসা করেছেন এই পালার। তেমনই অনেকেই জানতে চেয়েছেন কিভাবে এই পালা মঞ্চস্থ হবে। তবে অভিনব উদ্যোগের এই প্রশংসা করেছেন সকলে।

ABIR GHOSAL

Published by: Shubhagata Dey
First published: April 24, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर