Home /News /business /
Russia Ukraine War: রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের প্রভাব পড়তে চলেছে ভারতে, সরকারের নেওয়া দরকার যে কয়েকটি সিদ্ধান্ত...

Russia Ukraine War: রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের প্রভাব পড়তে চলেছে ভারতে, সরকারের নেওয়া দরকার যে কয়েকটি সিদ্ধান্ত...

ফাইল ছবি ৷

ফাইল ছবি ৷

Russia Ukraine War: রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে জিনিসের দাম বেড়ে যাতে পারে এবং আর্থিক বৃদ্ধি থমকে যেতে পারে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে পুরো বিশ্ব জুড়ে বেড়ে গিয়েছে ক্রুড অয়েলের দাম। এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে ভারতের ওপরে। রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে ভারতের অর্থনীতির ওপরে এর প্রভাব পড়তে পারে। এর ফলে ভারতে হতে পারে মুদ্রাস্ফীতি। এর ফলে ভারতের নাগরিকদের মধ্যে এর প্রভাব পড়তে চলেছে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (RBI) এমপিসি-র (MPC) সদস্য জয়ন্ত আর বর্মা জানিয়েছেন যে, রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে জিনিসের দাম বেড়ে যাতে পারে এবং আর্থিক বৃদ্ধি থমকে যেতে পারে। কিন্তু, এখনও চিন্তা করার মতো কোনও বিষয় আসেনি। ভারত সরকারের কড়া নজর রয়েছে এর ওপরে।

আরও পড়ুন: Income Tax New Slab: ব্যবহার করা যায় দুটোই, তবে কী বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে নয়া ইনকাম ট্যাক্স স্ল্যাব?

অর্থব্যবস্থার ওপরে প্রভাব 

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার এমপিসি-র সদস্য জয়ন্ত আর বর্মা জানিয়েছেন যে, ভারতের অর্থব্যবস্থা ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়ানো শুরু করেছিল। করোনার প্রভাবে প্রায় ৩ বছর ধরে আটকে ছিল ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি। এরপর আবার রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধ থমকে দিতে পারে ভারতের অর্থনীতির চাকা। ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি আটকে গেলে এর প্রভাব পড়বে জিনিসের দামের ওপরে। এর ফলে দেখা দেবে মুদ্রাস্ফীতি। কিন্তু, এখনও ভারতে তেমন কোনও ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হয়নি। কিন্তু যুদ্ধ চলতে থাকলে তা সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে।

আরও পড়ুন:  হোলিতে কতটা দাম বাড়ল কাজু-বাদাম,আখরোট সহ একাধিক জিনিসের, জেনে নিন নতুন দাম.....

আমদানি-রফতানিতে সমস্যা

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার এমপিসি-র সদস্য জয়ন্ত আর বর্মা জানিয়েছেন যে, রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে আমদানি-রফতানি প্রক্রিয়া পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে। এর ফলে ভারত যে সকল দ্রব্য ও প্রয়োজনীয় জিনিস বাইরে থাকে আমদানি করে তা সম্পূর্ণ বন্ধ। এর প্রভাব পড়তে পারে ভারতের বাজারেও। এছাড়া ইউক্রেন থেকেও ভারত অনেক প্রয়োজনীয় জিনিস আমদানি করে থাকে। এর ফলে আমদানি বন্ধ হয়ে পড়ে থাকলে সেই সকল জিনিসের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। এর ফলে বেড়ে যেতে পারে জিনিসের দাম। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া চলতি আর্থিক বর্ষের জন্য মুদ্রাস্ফীতির পরিমাণ নির্ধারণ করেছে ৫.৩ শতাংশ এবং আগামী আর্থিক বর্ষের জন্য তার পরিমাণ নির্ধারণ করেছে প্রায় ৪.৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন:  Gold-Silver rate Today : দেড় বছর পর ৫৫,০০০ টাকা পেরিয়ে গেল সোনার দাম, রুপোর দামেও বড় চমক !

ভারতের নীতি

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার এমপিসি-র সদস্য জয়ন্ত আর বর্মা জানিয়েছেন যে, ভারত বিভিন্ন ধরনের পরিস্থিতির জন্য পুরোপুরি তৈরি। আর্থিক বৃদ্ধি সচল রাখার জন্য বিভিন্ন ধরনের নীতি গ্রহণ করা হতে পারে। তাই এখনই আতঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু নেই। পুরো বিষয়ের ওপরে সরকারের নজর রয়েছে।

Published by:Arjun Neogi
First published:

Tags: Indian Economy, Ukraine crisis

পরবর্তী খবর