• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • কর্মীদের বেতনে কাটছাঁট রিলায়েন্সের, নিজে বেতন নেবেন না মুকেশ আম্বানি

কর্মীদের বেতনে কাটছাঁট রিলায়েন্সের, নিজে বেতন নেবেন না মুকেশ আম্বানি

সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে সমস্ত কর্মীদের বার্ষিক বেতন ১৫ লক্ষের কম ৷ তাদের বেতনে কোনও কাটছাঁট করা হচ্ছে না ৷

সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে সমস্ত কর্মীদের বার্ষিক বেতন ১৫ লক্ষের কম ৷ তাদের বেতনে কোনও কাটছাঁট করা হচ্ছে না ৷

সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে সমস্ত কর্মীদের বার্ষিক বেতন ১৫ লক্ষের কম ৷ তাদের বেতনে কোনও কাটছাঁট করা হচ্ছে না ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: করোনার জেরে দেশে দীর্ঘদিন ধরে চলছে লকডাউন ৷ তাতে ব্যবসা-বাণিজ্য প্রায় তলানিতে ৷ অধিকাংশ সংস্থারই অবস্থা এখন একইরকম ৷ মুনাফার মুখ দেখছে না প্রায় কেউই ৷ বিশাল অঙ্কের লোকসানের সম্মুখীন হতে হয়েছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজকেও ৷ তাই শেষপর্যন্ত সংস্থার হাইড্রোকার্বন সেক্টরের কর্মীদের বেতন ছাঁটাইয়ের পথেই হাঁটতে বাধ্য হচ্ছে সংস্থা ৷ যদিও এই বেতন ছাঁটাই শুধুমাত্র অনেক বেশি টাকা অঙ্কের বেতনভুক্ত কর্মচারীদের জন্যই ৷ রিলায়েন্সের হাইড্রোকার্বন ব্যবসাতেই এই বেতন ছাঁটাইয়ের বিষয়টি ঘোষণা হয়েছে ৷

    রিলায়েন্সের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি নিজে কোনও বেতন নেবেন না বলেই জানিয়েছেন ৷ সংস্থার বোর্ড অফ ডিরেক্টরদের মধ্যে এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, ইসি সদস্য এবং সিনিয়র সদস্যরাও নিজেদের বেতনের ৩০-৫০ শতাংশ নেবেন না বলেই ঘোষণা করেছেন ৷ তবে রিলায়েন্সের হাইড্রোকার্বন ইউনিটের একটা বড় অংশের কর্মচারীদের জন্য অবশ্যই স্বস্তির খবর ৷ সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে সমস্ত কর্মীদের বার্ষিক বেতন ১৫ লক্ষের কম ৷ তাদের বেতনে কোনও কাটছাঁট করা হচ্ছে না ৷ যে সমস্ত কর্মীদের বার্ষিক বেতন ১৫ লক্ষের বেশি, তাদের ফিক্সড পে থেকে ১০ শতাংশ কেটে নেওয়া হবে ৷ এছাড়া পারফরম্যান্সের উপর ভিত্তি করে বোনাস ইত্যাদি দেওয়া আপাতত স্থগিত রাখা হচ্ছে।

    রিলায়েন্সের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই সঙ্কটের সময় সংস্থার কাছে কর্মীদের এবং তাঁদের পরিবারের সুরক্ষাই সবচেয়ে গুরুত্বপূ্র্ণ ৷ এর জন্য সংস্থার সাপোর্ট সিস্টেম দিন-রাত কাজ করে চলেছে ৷ পাশাপাশি গোটা রিলায়েন্স পরিবারের জন্য ২৪x৭ এমার্জেন্সি ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে ৷ যাতে কেউ বিপদে পড়লেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হয় ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: