Home /News /business /
Credit Card|| বিদেশ ভ্রমণে নগদ বিপত্তি! জেনে নিন কী ভাবে ব্যবহার করা যাবে ক্রেডিট কার্ড

Credit Card|| বিদেশ ভ্রমণে নগদ বিপত্তি! জেনে নিন কী ভাবে ব্যবহার করা যাবে ক্রেডিট কার্ড

Credit Card|| ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (RBI)-এর নীতি অনুসারে, ‘নিষিদ্ধ’ বস্তু কেনার জন্য আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ডগুলি ব্যবহার করা যায় না।

  • Share this:

দুই বছর পর কমেছে করোনার দাপট। একই সঙ্গে বাড়ছে বিদেশ ভ্রমণ। তারই ফলে অনেক দেশে পুনরুজ্জীবিত হচ্ছে পর্যটন। বহু দেশই আবার নিজের নীতি বদলে মন দিয়েছে পর্যটক আকর্ষণের দিকে। সারা বিশ্বের ভ্রমণ পিপাসুদের মধ্যে অন্যতম ভারতীয়রা। তারা তাদের ভ্রমণ পরিকল্পনায় মত্ত সেটা বোঝা যায় সোশ্যাল মিডিয়ার দিকে তাকালেই। কিন্তু অনেকেই অন্য দেশে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা যাবে কিনা তা নিয়ে উদ্বিগ্ন।

আরও পড়ুন: গাইয়েছিলেন রূপঙ্করকে দিয়ে, সেই 'এ তুমি কেমন তুমি' কেকে-র জন্য পাল্টে দিলেন সুমন!

আসলে সম্প্রতি স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান অমিত ট্যান্ডন টুইট করে বলেছেন যে বিদেশে ভারতীয় ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করার অভিজ্ঞতা অত্যন্ত বেদনাদায়ক। অধিকাংশ ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ ভারতীয় ক্রেডিট কার্ড গ্রহণ করে না। কিন্তু এ থেকে রেহাই পাওয়ার উপায় কী?

নিও-র (Niyo) হেড অফ স্ট্র্যাটেজি স্বপ্নিল ভাস্কর (Swapnil Bhaskar) বলেছেন, আন্তর্জাতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে কয়েকটি প্রিমিয়াম কার্ড বাদ দিয়ে অন্য সব ক্রেডিট কার্ডই বিদেশে সমস্যার কারণ হতে পারে। আসলে এই ক্রেডিট কার্ডগুলি ৩-৫ শতাংশ কারেন্সি মার্ক-আপ (Currency Markup fee) ফি নেয়৷ ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলি আন্তর্জাতিক লেনদেনের জন্য এই ফি নিয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে জিরো ফরেক্স মার্কআপ ডেবিট কার্ড (zero forex markup debit cards) ব্যবহার করাই সব থেকে ভাল বলে মনে করেন স্বপ্নিল।

ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (RBI)-এর নীতি অনুসারে, ‘নিষিদ্ধ’ বস্তু কেনার জন্য আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ডগুলি ব্যবহার করা যায় না। RBI-এর লিবারলাইজড রেমিট্যান্স স্কিম (LRS) অনুযায়ী, যে কোনও অনুমোদিত কারেন্ট বা ক্যাপিটাল অ্যাকাউন্টে অথবা একত্রে দুই ধরনের অ্যাকাউন্টে লেনদেনের জন্য সমস্ত নাগরিককে প্রতি আর্থিক বছরে ২,৫০,০০০ ডলার পর্যন্ত খরচ করার অনুমতি দেওয়া হয়। আর্থিক বছরে একবার ২,৫০,০০০ ডলার খরচ করে ফেলার পর, কোনও নাগরিক ওই স্কিমের আওতায় আর কোনও টাকা খরচ করতে পারবেন না।

ট্রানজাকশন ফি

ইন্ডিয়ালেন্ডস (IndiaLends)-এর সিইও এবং প্রতিষ্ঠাতা গৌরব চোপড়া বলেন, যদি ব্যাঙ্ক ক্রেডিট কার্ডটিকে INR-বহির্ভূত অর্থপ্রদান করার জন্য ব্যবহার করার অনুমতি দেয় তাহলে ব্যবহারকারী ভ্রমণ করার আগে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন সক্ষম করার জন্য ব্যাঙ্ক অ্যাপ বা ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে পারেন। বেশিরভাগ ক্রেডিট কার্ডের জন্য লেনদেনের ফি ২.৫ শতাংশ – ৩.৫ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে। বিদেশ ভ্রমণে যাওয়ার আগে, ভ্রমণকারীকে অবশ্যই তাদের কার্ড প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলে জানতে হবে যে কার্ডটি বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনের জন্য সক্ষম কিনা।

ক্রেডিট কার্ডের বিকল্প ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী কী বিষয় জেনে রাখা উচিত?

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশ অনুযায়ী, প্রত্যেক ভারতীয় নাগরিকের ২,৫০,০০০ ডলার পর্যন্ত খরচ করার স্বাধীনতা রয়েছে। এই ক্ষেত্রে ট্রান্সেকশন ফি হিসেবে ২.৫ শতাংশ – ৩.৫ শতাংশ কাটা হতে পারে। যারা বিদেশে ভ্রমণে যান তারা প্রত্যেক ট্রিপে ৩০০০ ডলার মূল্যের মুদ্রা বা নোট কিনতে পারবেন।

Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: Credit Card

পরবর্তী খবর