• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • Mutual Funds: মেয়ের উচ্চশিক্ষা-বিয়ে নিয়ে চিন্তায়? মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন যে ভাবে!

Mutual Funds: মেয়ের উচ্চশিক্ষা-বিয়ে নিয়ে চিন্তায়? মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন যে ভাবে!

লার্জ এবং মিড ক্যাপ, ফ্লেক্সি ক্যাপ, মাল্টি ক্যাপ, মিড ক্যাপ এবং ইক্যুইটিতে বিনিয়োগ করে পোর্টফোলিও ঢেলে সাজানো জরুরি।

লার্জ এবং মিড ক্যাপ, ফ্লেক্সি ক্যাপ, মাল্টি ক্যাপ, মিড ক্যাপ এবং ইক্যুইটিতে বিনিয়োগ করে পোর্টফোলিও ঢেলে সাজানো জরুরি।

লার্জ এবং মিড ক্যাপ, ফ্লেক্সি ক্যাপ, মাল্টি ক্যাপ, মিড ক্যাপ এবং ইক্যুইটিতে বিনিয়োগ করে পোর্টফোলিও ঢেলে সাজানো জরুরি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দুই মেয়ে। বড়টির বয়স ১৭ বছর। ছোট মেয়ে সবে ১৩-তে পড়েছে। বেশি রিটার্নের জন্য মিউচুয়াল ফান্ডই (Mutual Fund) ভরসা। সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যানের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্পে মাসিক ৩৭,৫০০ টাকা বিনিয়োগ করা আছে। এখন দু'টো মেয়ের উচ্চশিক্ষা এবং বিয়ের পরিকল্পনা করতে হচ্ছে। আপাতত গ্রাহক একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে কর্মরত। মাসিক বেতন ১ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন: ন্যূনতম বিনিয়োগে ভালো আয় করতে আগ্রহী? শুরু করুন এই ব্যবসাগুলি দিয়ে!

২ হাজার টাকা করে কোটাক মাহিন্দ্রা মাহিন্দ্রা মিউচুয়াল ফান্ড এবং নিপ্পন ইন্ডিয়াতে বিনিয়োগ করা আছে। এছাড়া ডিএসপি স্মল ক্যাপ ফান্ড রেগুলার প্ল্যান, আইডিএফসি ফ্লেক্সি ক্যাপ গ্রোথ ফান্ড রেগুলার প্ল্যান, মিরে অ্যাসেট এমার্জিং সার্ভিস ফান্ড রেগুলার, এসবিআই ব্যাঙ্কিং ফিনিসিয়াল সার্ভিস ফান্ড রেগুলার, এসবিআই ফ্লেক্সি ক্যাপ ফান্ড রেগুলার প্ল্যান গ্রোথ, এসবিআই ম্যাগনাম মিড ক্যাপ ফান্ড রেগুলার, এসবিআই সেভিং ফান্ড রেগুলার, এসবিআই স্মল ক্যাপ, এসবিআই টেকনোলজি অপরচুনিটিজ রেগুলার, টাটা ডিজিটাল ইন্ডিয়া রেগুলার এবং ইউটিআই ভ্যালুর অপারচুনিটিস রেগুলারে ২ হাজার ৫০০ টাকা করে বিনিয়োগ করা ছাড়াও আদিত্য বিড়লা সান লাইফ মিউচুয়াল ফান্ড এবং এলএন্ডটি মিউচুয়াল ফান্ডে ৩ হাজার টাকা করে বিনিয়োগ করা হয়। এছাড়াও এলআইসি-তে বার্ষিক ১ লক্ষ টাকার পলিসি রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি এমনটা জানিয়েছেন। এখন তাঁর চিন্তা দুই মেয়ের উচ্চশিক্ষা ও বিয়ের জন্য কী ভাবে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করা যায়, তাই নিয়ে। এর উত্তরে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন–

আরও পড়ুন:  দিনে ৯৫ টাকা দিয়ে পেয়ে যাবেন ১৪ লাখ! মালামাল স্কিম পোস্ট অফিসের!

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মোটা টাকা রিটার্ন পেতে মাসিক এসআইপি-তে বিভিন্ন ইক্যুইটি এবং ঋণ ভিত্তিক প্রকল্পে মাসে ৩৭,৫০০ টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু গ্রাহকের প্রশ্নটি অসম্পূর্ণ মনে হচ্ছে। কারণ গ্রাহকের পোর্টফোলিওতে বেশ কিছু ভুল নামের স্কিম আছে (প্রকল্পের নামের পরিবর্তে এএমসি-র নাম উল্লেখ করা হয়েছে)। তবে বর্তমানে যে পোর্টফোলিও দেখা যাচ্ছে, তার মধ্যে মিরে অ্যাসেট এমার্জিং ব্লু চিপ ফান্ড এবং ইউটিআই ভ্যালু অপারচুনিটি ফান্ডে এসআইপি চালিয়ে যাওয়া যায়।

আরও পড়ুন: সপ্তাহের প্রথম দিন কলকাতা-সহ দেশের বিভিন্ন শহরে কত হল পেট্রোল ও ডিজেলের দাম...

পোর্টফোলিওতে অনেক ফান্ড রয়েছে যেগুলি এসআইপি-র জন্য যথাযথ নয়। পরিবর্তে লার্জ এবং মিড ক্যাপ, ফ্লেক্সি ক্যাপ, মাল্টি ক্যাপ, মিড ক্যাপ এবং ইক্যুইটিতে বিনিয়োগ করে পোর্টফোলিও ঢেলে সাজানো জরুরি। এইচডিএফসি লার্জ অ্যান্ড মিড ক্যাপ ফান্ড, অ্যাক্সিস গ্রোথ অপরচুনিটি ফান্ড, কানাড়া রোবেকো ফ্লেক্সি ক্যাপ ফান্ড, পরাগ পারিখ ফ্লেক্সি ক্যাপ ফান্ড, নিপ্পন ইন্ডিয়া মাল্টি ক্যাপ ফান্ড, কোটাক ইমার্জিং ইক্যুইটি ফান্ড, পিজিআইএম ইন্ডিয়া মিড ক্যাপ অপরচুনিটি ফান্ড এবং আইডিএফসি স্টার্লিং ভ্যালু ফান্ড, বিনিয়োগের জন্য ভালো। এতে ফান্ডে বৈচিত্র আসবে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: