Home /News /business /
Gold Price: অক্ষয় তৃতীয়ায় গোটা দেশে বিক্রি হয়েছে ১৫ হাজার কোটি টাকার সোনা, করোনার আগে থেকে ব্যবসা বেড়েছে দেড় গুণ

Gold Price: অক্ষয় তৃতীয়ায় গোটা দেশে বিক্রি হয়েছে ১৫ হাজার কোটি টাকার সোনা, করোনার আগে থেকে ব্যবসা বেড়েছে দেড় গুণ

Gold Price: তিন বছরে ২০ হাজার টাকা দাম বেড়েছে সোনার-

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা মহামারির জেরে গত দু’বছর ধরে চলতে থাকা লকডাউনের কারণে ব্যাপক ভাবে প্রভাবিত হয়েছিল সমস্ত ব্যবসা ৷ তবে এবছর অক্ষয় তৃতীয়ায় গত দু’বছরের তুলনায় দেড় গুণ বেড়ে গিয়েছে ব্যবসা ৷ কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্সের জাতীয় সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ খন্ডেলওয়াল ও অল ইন্ডিয়া জুয়েলার্স অ্যান্ড গোল্ড স্মিথ ফেডারেশনের জাতীয়  অধ্যক্ষ পঙ্কজ অরোরা জানিয়েছেন, চলতি বছর গ্রাহক টানতে জুয়েলার্সরা হাল্কা গয়নার ভাল রেঞ্জ বাজারে নিয়ে এসেছে ৷ মঙ্গলবার অক্ষয় তৃতীয়া উপলক্ষ্যে সোনা-রুপো প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকার ব্যবসা করেছে ৷

    আরও পড়ুন: বাজারে এল ভারতের সবচেয়ে বড় আইপিও, বিড করার আগে জেনে নিন ১০ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়!

    করোনার আগের সময় থেকে দেড় গুণ বেড়েছে ব্যবসা

    পঙ্কজ অরোরা জানিয়েছেন, করোনা মহামারির আগে ২০১৯ সালে দেশজুড়ে অক্ষয় তৃতীয়ায় প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছিল ৷ চলতি বছরে ২০১৯ সালের তুলনায় দেড় গুণ বেশি বেড়েছে ব্যবসা ৷ ২০২০ সালে কোভিডের কারণে চলতে থাকা লকডাউনে অক্ষয় তৃতীয়ায় কেবল ৫ শতাংশ ব্যবসা হয়েছিল অর্থাৎ মাত্র ৫০০ কোটি টাকার বিক্রি হয়েছিল ৷ এরপর মে ২০২১ সালে সংক্রমণের দ্বিতীয় ওয়েভে প্রায় কিছুই ব্যবসা হয়নি ৷

    আরও পড়ুন: ব্রডকাস্টিং এবং ডিজিটাল অপারেশনে যুগান্তকারী সাফল্য, মুনাফা বাড়ল Network 18-এর

    তিন বছরে ২০ হাজার টাকা দাম বেড়েছে সোনার-

    ২০১৯ সালে সোনার দাম প্রতি ১০ গ্রামে ৩২৭০০ টাকা ছিল, রুপোর দাম প্রতি কিলোতে ছিল ৩৮৩৫০ টাকা ৷ চলতি বর্ষে অক্ষয় তৃতীয়ার পাঁচ দিন আগে সোনা প্রতি ১০ গ্রামে ৫৩ হাজার ছিল এবং রুপো প্রতি কিলোতে ৬৬,৬০০ টাকার আসপাশে ছিল ৷ এই হিসেবে মাত্র ৩ বছরের মধ্যে সোনার দাম প্রায় ২০ হাজার টাকা বেড়ে গিয়েছে ৷

    আরও পড়ুন: আগামী কিস্তির টাকা চান ? তাহলে শীঘ্রই এই ৫টি স্টেপ সম্পূর্ণ করুন....

    রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, ভারতীয় গ্রাহকদের মধ্যে সোনার বার ও কয়েন কেনার প্রবণতা বেড়েছে ৷ ২০২১ সালের প্রথম ত্রৈমাসিকে সোনার বার ও কয়েনের মোট আমদানি ৩৯.৩ টন ছিল, যা ২০২২ সালের প্রথম ত্রৈমাসিকে বেড়ে ৪১.৩ টন হয়ে গিয়েছে ৷ সোনার গয়নার ২০২১ সালে আমদানি ১২৬.৫ টন ছিল যা ২০২২ সালে ৯৪.২ টন ৷ এর থেকে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে বিনিয়োগকারীরা এখন গয়নার থেকে বেশি সোনার বার বা গয়নাতে ইনভেস্ট করছেন ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    Tags: Akshay Tritiya, Gold Price

    পরবর্তী খবর