• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • আরও উন্নত দেশের রাস্তাঘাট, ঝাড়খণ্ডের সড়ক নির্মাণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার বিনিয়োগ করবে প্রায় ১ লাখ কোটি টাকা!

আরও উন্নত দেশের রাস্তাঘাট, ঝাড়খণ্ডের সড়ক নির্মাণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার বিনিয়োগ করবে প্রায় ১ লাখ কোটি টাকা!

আগামী বছরের মধ্যেই এই ভারতমালা প্রজেক্ট (Bharatmala Pariyojana) শেষ হয়ে যাবে। এর মাধ্যমে ইকোনমিক করিডরের বিকাশ ঘটবে।

আগামী বছরের মধ্যেই এই ভারতমালা প্রজেক্ট (Bharatmala Pariyojana) শেষ হয়ে যাবে। এর মাধ্যমে ইকোনমিক করিডরের বিকাশ ঘটবে।

আগামী বছরের মধ্যেই এই ভারতমালা প্রজেক্ট (Bharatmala Pariyojana) শেষ হয়ে যাবে। এর মাধ্যমে ইকোনমিক করিডরের বিকাশ ঘটবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ঝাড়খণ্ডে বিস্তার করা হবে সড়কের জাল। পুরো ঝাড়খণ্ড জুড়ে নির্মাণ করা হবে অধিক সংখ্যায় সড়ক। কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রী শ্রী নীতিন গড়করির (Nitin Gadkari) থেকে পাওয়া গিয়েছে সবুজ সঙ্কেত। তিনি জানিয়েছেন আগামী ৩ বছরের মধ্যে ঝাড়খণ্ডের সড়ক নির্মাণের জন্য ১ লাখ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে।

শ্রী নীতিন গড়করির এই ঘোষণার পরেই ঝাড়খণ্ডের সড়ক নির্মাণের পর্যালোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই পর্যালোচনার কাজ শেষ করা হবে। ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন (Hemant Soren) জানিয়েছেন এর ফলে প্রত্যন্ত এলাকার সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হবে। এই সড়ক প্রকল্পের সাহায্য উপকৃত হবে ঝাড়খণ্ডের সকল জনগণ।

আরও পড়ুন: পঞ্জিকা ১৭ নভেম্বর: দেখে নিন নক্ষত্রযোগ, শুভ মুহূর্ত, রাহুকাল এবং দিনের অন্য লগ্ন!

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শ্রী নীতিন গড়করি এই বছরের এপ্রিল মাসে ৩,৫০০ কোটি টাকার ৭টি রোড প্রজেক্টের উদ্বোধন করেন।

সেই সময় তিনি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অন্যান্য ১৪টি রোড প্রোজেক্টের উল্লেখ করেন। শ্রী নীতিন গড়করি জানিয়েছেন আগামী ৩ বছরের মধ্যে ঝাড়খণ্ডে ১ লাখ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে সড়ক নির্মাণের জন্য। তিনি জানিয়েছেন আগামী বছরের মধ্যেই এই ভারতমালা প্রজেক্ট (Bharatmala Pariyojana) শেষ হয়ে যাবে। এর মাধ্যমে ইকোনমিক করিডরের বিকাশ ঘটবে। তিনি ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন এই ভারতমালা প্রজেক্ট তাড়াতাড়ি শুরু করার জন্য সাহায্য করতে। তারা যেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই সড়ক নির্মাণের জন্য সঠিক পর্যালোচনা করে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে রিপোর্ট জমা দেয়।

এছাড়াও এই সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণ করে কেন্দ্রের হাতে তুলে দিতে হবে। শ্রী নীতিন গড়করি জানিয়েছেন রাজ্যের সহযোগিতায় যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই সড়ক প্রকল্প শেষ করাই কেন্দ্রীয় সরকারের একমাত্র লক্ষ্য।

আরও পড়ুন: ২০০০ টাকার বদলে অ্যাকাউন্টে আসবে ৪০০০ টাকা! লিস্টে আপনার নাম রয়েছে তো ?

ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন জানিয়েছেন এই সড়ক প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ২০১৭-১৮ আর্থিক বর্ষে ২০৫ কোটি টাকা, ২০১৮-১৯ আর্থিক বর্ষে ১৬৯ কোটি টাকা, ২০১৯-২০ আর্থিক বর্ষে ৫০০ কোটি টাকা এবং ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষে ৬৭৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে।

আরও পড়ুন: বাড়িতে বসে এক ক্লিকেই বানিয়ে ফেলতে পারবেন রেশন কার্ড!

এছাড়াও রাজ্য সরকার ঝাড়খণ্ডকে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে যুক্ত করার জন্য ৭২ কিলোমিটার লম্বা সড়কের নির্মাণ করেছে। এটি করতে খরচ হয়েছে প্রায় ১,১১৬ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় সরকারের সাহায্যে নতুন সড়ক প্রকল্পের মাধ্যমে উন্নত হবে ঝাড়খণ্ডের যোগাযোগ ব্যবস্থা। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত সড়কের মাধ্যমে যুক্ত হওয়ার ফলে উপকৃত হবে ঝাড়খণ্ডের সকল জনগণ।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: