Home /News /birbhum /
Birbhum News|| বেতন বৃদ্ধির দাবিতে ICT কর্মীদের বিক্ষোভ, ডেপুটেশন

Birbhum News|| বেতন বৃদ্ধির দাবিতে ICT কর্মীদের বিক্ষোভ, ডেপুটেশন

title=

Latest Birbhum District News: বীরভূমের বিভিন্ন প্রান্তের স্কুলগুলি থেকে আইসিটি কর্মীরা সমবেত হন। তাদের অভিযোগ, দেড় বছর আগে তাদের স্থায়ী কর্মী হিসাবে ঘোষণা করার সময় থেকেই বেতন বৃদ্ধি করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল।

  • Share this:

    #মাধব দাস, বীরভূম: ২০১৩ সালে বিভিন্ন স্কুলে ICT অর্থাৎ ইনফরমেশন কমিউনিকেশন টেকনোলজি কর্মী নিয়োগ করা হয়। এই সকল কর্মীদের প্রথমদিকে অস্থায়ী কর্মী হিসাবে নিয়োগ করা হলেও ২০২০ সালে তাদের স্থায়ী কর্মী হিসাবে স্বীকৃতি দেয় রাজ্য সরকার। তবে স্থায়ী কর্মী হিসেবে স্বীকৃতি দিলেও তাদের বেতন পরিকাঠামো এখনো বৃদ্ধি পায়নি। এই বেতন পরিকাঠামো বৃদ্ধি না পাওয়ার কারণে বর্তমান দুর্মূল্যের বাজারে তাদের সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়েছে। এমনই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এবার বিক্ষোভে নামলেন এই সকল আইসিটি কর্মীরা। সোমবার রাজ্যের বিভিন্ন জেলার পাশাপাশি বীরভূম জেলাতে আইসিটি কর্মীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন বীরভূম জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক দফতরের সামনে। বিক্ষোভ প্রদর্শন করার পাশাপাশি তারা একটি স্মারকলিপি জমা দেন।

    এ দিনের এই বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচিতে বীরভূমের বিভিন্ন প্রান্তের স্কুলগুলি থেকে আইসিটি কর্মীরা জড়ো হন। তাদের অভিযোগ, দেড় বছর আগে তাদের স্থায়ী কর্মী হিসাবে ঘোষণা করার সময় থেকেই বেতন বৃদ্ধি করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দেখতে দেখতে এই সময়সীমা দেড় বছর পার হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি রাজ্য সরকার এবং শিক্ষা দফতর।

    আরও পড়ুন: জমি বিবাদের জের, হাতাহাতিতে আহত ৩, কান্দি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি

    কাজের ক্ষেত্রে তাদের সপ্তাহে সাত দিন পর্যন্ত কাজ করতে হয় বলে তারা দাবি করেছেন। স্কুলে দীর্ঘক্ষণ কাজ করার পাশাপাশি অন্যান্য বিভিন্ন কাজও তাদের করতে হয়। এমনকি করোনাকালে যখন স্কুল পড়ুয়াদের ভ্যাক্সিনেশন করা হয় সেই সময় তারাই প্রতিটি পড়ুয়ার তথ্য নথিভূক্ত করেছিলেন। অভিযোগ, এত কাজ করানোর পরেও সরকারি পরিকাঠামো অনুযায়ী তাদের বেতন দেওয়া হয় না। মাসে মাত্র ৮০০০ টাকা তাদের বেতন দেওয়া হয়।

    পাশাপাশি, তাঁরা জানিয়েছেন, স্কুল সার্ভিস কমিশনের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সমতুল্য বেতন তারা কখনোই চাইছেন না। তবে তাদের বেতন যেন ন্যায্য হয়ে থাকে। সুপ্রিম কোর্ট যে সমবেতন সম্পর্কিত নির্দেশিকা জারি করেছে তা যেন মানে রাজ্য। তাদের উদ্দেশ্য এই স্মারকলিপি প্রদানের মধ্য দিয়ে তাদের দাবি-দাওয়া যেন নবান্নে পৌঁছে যায়।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Birbhum

    পরবর্তী খবর