Home /News /west-bardhaman /
Paschim Bardhaman: ভ্রাতৃত্বের বন্ধনের ডাক দিয়ে রাখি বন্ধন উৎসব পালন তৃণমূলের

Paschim Bardhaman: ভ্রাতৃত্বের বন্ধনের ডাক দিয়ে রাখি বন্ধন উৎসব পালন তৃণমূলের

title=

জেলা জুড়ে বঙ্গ জননীর উদ্যোগে পালিত হল রাখি বন্ধন উৎসব। তৃণমূলের মহিলা সদস্যরা শুক্রবার মেতে উঠেছিলেন রাখি বন্ধন উৎসব পালনে।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান : জেলা জুড়ে বঙ্গ জননীর উদ্যোগে পালিত হল রাখি বন্ধন উৎসব। তৃণমূলের মহিলা সদস্যরা শুক্রবার মেতে উঠেছিলেন রাখি বন্ধন উৎসব পালনে। দলের সমর্থক থেকে শুরু করে দলের নেতা, কাউন্সিলর সকলের হাতে রাখি পরিয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের মহিলা সদস্যরা। পাশাপাশি পথ চলতি সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে পুলিশ কর্মী, সবজি বিক্রেতা সকলের হাতে এদিন রাখি পরিয়ে দিয়েছেন তৃণমূলের মহিলা সদস্যরা। অন্যদিকে তৃণমূলের অন্যান্য কর্মী সমর্থকরাও রাখি বন্ধন উৎসব পালনে মেতে উঠেছিলেন। আসানসোল, দুর্গাপুর, পানাগড় সহ জেলার একাধিক জায়গায় রাখি বন্ধন উৎসব পালন করা হয়েছে তৃণমূলের উদ্যোগে। আর সেখান থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে বিভেদ নয়, ভাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে উঠুক সবাই। সমস্ত পুরনো হিংসা ভুলে সবাই যেন এক হয়ে যায়, সেই বার্তা দিয়েছেন তৃণমূলের বঙ্গ জননীর সদস্যরা। মহিলা তৃনমুল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাখী উৎসব পালন করা হয়েছে।

    আসানসোল উত্তর বিধানসভার পুরসভার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল অফিসের সামনে পথ চলতি ভাই এবং দাদাদের হাতে রাখি পড়াতে দেখা গিয়েছে তৃণমূলের মহিলা সদস্যদের। সেখানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় কাউন্সিলর ফাঁনসানি আলী এবং তৃণমূল কর্মীরা। কুলটি ব্লক বঙ্গজননী তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে নিয়ামতপুর নিউ রোডে রাখি বন্ধন উৎসব পালন করা হয়েছে।

    আরও পড়ুনঃ সরকারি প্রকল্পের প্রচারে লোক শিল্পীদের নিয়ে বিশেষ কর্মশালা

    সেখানে এমআইসি ইন্দ্রানী মিশ্র আসানসোল কর্পোরেশনের বিভিন্ন কাউন্সিলরদের হাতে রাখি বেঁধে দিয়েছেন। আবার সকলের হাতে খেলা হবে রাখি বেঁধে শুক্রবার পানাগর বাজারে রাখি উৎসব পালন করেছে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের কর্মী সমর্থকরা। রাখি বন্ধন উৎসব পালন অনুষ্ঠানে যোগ দেন তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের জেলা সহ সভাপতি সমীর বিশ্বাস।

    আরও পড়ুনঃ আদিবাসী দিবস পালন হয়! কিন্তু হাল ফেরেনি আদিবাসী গ্রামের!

    এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কাঁকসা ব্লকের বিভিন্ন প্রান্তের কারখানার শ্রমিক সংগঠনের নেতা কর্মীরা। এই বিষয়ে সমীর বিশ্বাস জানিয়েছেন, গত দুবছর করোনার জন্য তেমনভাবে রাখি উৎসব পালন করা সম্ভব হয়নি। তবে এ বছর তারা মহা ধুমধামে রাখি উৎসব পালন করেন। অন্যান্য বছর সাধারণ রাখি পড়ানো হলেও, এ বছর তারা খেলা হবে রাখি পড়ানোর ব্যবস্থা করেছেন। ফলে সকল কর্মী সমর্থকদের মধ্যে চরম উৎসাহ দেখা দিয়েছে রাখি উৎসবকে সফল করার জন্য।

    Nayan Ghosh
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Asansol, Durgapur, Paschim bardhaman

    পরবর্তী খবর