ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ে হাত পাকাচ্ছেন? বিপুল আয়ের লক্ষ্যে জেনে নিন খুঁটিনাটি

ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ে হাত পাকাচ্ছেন? বিপুল আয়ের লক্ষ্যে জেনে নিন খুঁটিনাটি

একে ডে ট্রেডিং হিসেবেও ডাকা হয়। এই ট্রেডিং স্কিমের অধীনে একই দিনের মধ্যে স্টক কেনা-বেচার কাজ চলে।

একে ডে ট্রেডিং হিসেবেও ডাকা হয়। এই ট্রেডিং স্কিমের অধীনে একই দিনের মধ্যে স্টক কেনা-বেচার কাজ চলে।

  • Share this:

#কলকাতা: দেশের স্টক মার্কেট নিয়ে প্রায়শই মাতামাতি দেখা যায়। কিন্তু স্টক মার্কেটে বিনিয়োগকারীর সংখ্যা খুব একটা বেশি নয়। এক্ষেত্রে বড়সড় ক্ষতিরও সম্ভাবনা থাকে। তাই কেউ খুব একটা বেশি সাহস করে বিনিয়োগ বা লেনদেনের পথে হাঁটতে চায় না। এই পরিস্থিতিতে অনেকেই ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের (Intraday Trading) পথে হাঁটেন। কিন্তু অধিকাংশেরই এই বিষয়টি সম্পর্কে তেমন কোনও স্বচ্ছ ধারণা নেই। আসুন জেনে নেওয়া যাক ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের খুঁটিনাটি!

কী এই ইন্ট্রাডে ট্রেডিং?

একে ডে ট্রেডিং হিসেবেও ডাকা হয়। এই ট্রেডিং স্কিমের অধীনে একই দিনের মধ্যে স্টক কেনা-বেচার কাজ চলে।

ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের ঝুঁকি"

ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের ক্ষেত্রে হাই রিটার্নের কথা বলা হয়। এটি শুনতেও বেশ আকর্ষণীয়। তবে এই হাই রিটার্নের পাশাপাশি ঝুঁকিও রয়েছে। এক্ষেত্রে ট্রেড আওয়ারে সমস্ত মনোযোগ দিয়ে লেগে থাকতে হবে, না হলে বড়সড় ঝুঁকির সম্ভাবনা রয়েছে। এর পাশাপাশি প্রতিটি বিষয়, প্রযুক্তিগত দিক, ডেইলি চার্ট-সহ একাধিক বিষয়ে নজর দিতে হবে। প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে।

ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের জন্য কোন ধরনের স্টক বেছে নিতে হবে?

যে ধরনের স্টকে লিক্যুইডিটির পরিমাণ যথাযথ, সেই স্টককেই বেছে নিতে হবে। এক্ষেত্রে হাই লিক্যুইড স্টক অর্থাৎ লার্জ ক্যাপ স্টক (Large-cap Stock) সেরা হতে পারে।

কখন ইন্ট্রাডে ট্রেড নিয়ে ভাবনা-চিন্তা করা যেতে পারে?

বাজারের সঠিক সময় ও লক্ষণ বুঝতে হবে। কারণ ভুল সময়ে কোনও বিনিয়োগ বা লেনদেন সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নিলেই ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে। তবে ট্রেডিংয়ের প্রথম ঘণ্টায় কোনও রকম সিদ্ধান্ত না নেওয়াই ভাল।

কেন ইন্ট্রাডে ট্রেডিং নির্বাচন করবেন?

এই ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে। এগুলি হল-

সাধারণ বিনিয়োগকারীদের তুলনায় বেশি মার্জিন পাবেন ট্রেডাররা।

হাই রিটার্নের সম্ভাবনা।

তুলনামূলক কম ব্রোকারেজ চার্জ ।

মূলত এই সুবিধাগুলির জন্যই বেছে নেওয়া যেতে পারে ইনট্রাডে ট্রেডিং।

কী ভাবে শুরু করা যাবে?

প্রথমেই একটি ট্রেডিং ও ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়। যদি আগে থেকে কেউ স্টক মার্কেটে বিনিয়োগ করে থাকেন, তাহলে ইন্ট্রাডে ট্রেডিংয়ের জন্য একটি আলাদা অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে। এক্ষেত্রে আয়কর অনুযায়ী নিয়মে কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। অ্যাকাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস টুলেরও দরকার পড়ে। TradeSmart, KEAT ProX-সহ একাধিক সফটওয়্যার থেকে এই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

ভ্যালু এরিয়া

ইন্ট্রাডে ট্রেডার (Intraday Trader) হিসেবে একটি ভ্যালু এরিয়াও (Value Area) চিহ্নিত করতে হয়। আসলে এই ভ্যালু এরিয়াই বিনিয়োগ ও লেনদেন সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে।

বিশেষজ্ঞদের কথায় 'The 80% rule'

ভ্যালু এরিয়া একটি প্রাইস রেঞ্জ, যেখানে আগের দিনের অন্তত ৭০ শতাংশ লেনদেন হয়। একবার এই প্রাইস এরিয়াকে চিনতে পারলে সামগ্রিক বিষয়টি বোঝা যায়। এই নিয়ম অনুযায়ী, যদি ৭০ শতাংশের নিচে প্রাইস রেঞ্জ শুরু হয় এবং প্রথম এক ঘণ্টা একই থাকে, তাহলে পরের দিকে প্রাইস রেঞ্জ বাড়ার ৮০ শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে। আর যদি ৭০ শতাংশের উপরে প্রাইস রেঞ্জ শুরু হয় এবং প্রথম এক ঘণ্টা একই থাকে, তাহলে প্রাইস রেঞ্জ পড়ে যাওয়ার ৮০ শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে। আর এই বিষয়টি মাথায় রেখেই যাবতীয় সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: