Home /News /technology /
Cryptocurrency: ১০টি অ্যাডভান্সড ক্রিপ্টো টার্ম, যেগুলি আপনার ২০২২ সালে জানা প্রয়োজন

Cryptocurrency: ১০টি অ্যাডভান্সড ক্রিপ্টো টার্ম, যেগুলি আপনার ২০২২ সালে জানা প্রয়োজন

ক্রিপ্টোজগৎ অত্যন্ত দ্রুত গতিতে ক্রমাগত পরিবর্তিত হতে থাকে এবং এখানে নিত্যনতুন টার্মিনোলজি সংযুক্ত হতে থাকে

  • Share this:

    ক্রিপ্টোজগৎ অত্যন্ত দ্রুত গতিতে ক্রমাগত পরিবর্তিত হতে থাকে এবং এখানে নিত্যনতুন টার্মিনোলজি সংযুক্ত হতে থাকে। আপনি মূল বিষয়টি হয়তো জানেন ও বোঝেন। কিন্তু তার বাইরেও বেশি কিছু জিনিস সম্পর্কে, বিশেষ করে অ্যাডভান্সড ক্রিপ্টো টার্মগুলি সম্পর্কে ধারণা থাকা প্রয়োজন। এর ফলে আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে ও তার পাশাপাশি আপনার বিনিয়োগ সম্পর্কিত সিদ্ধান্ত আরও উন্নত গ্রহণের কাজেও সাহায্য করবে।

    সেই কথা মাথায় রেখেই, এখানে এমন ১০টি অ্যাডভান্সড ক্রিপ্টো টার্ম দেওয়া হল যেগুলি আপনার 2022 সালে অবশ্যই জানা প্রয়োজন।

    ১ –স্ক্যাল্পিং

    এটি হল সবচেয়ে বেসিক বিষয়। স্টক মার্কেটের বিনিয়োগকারীরা যাকে ডে ট্রেডিং বলে, তাকেই ক্রিপ্টো জগতে স্ক্যাল্পিং বলা হয়।স্ক্যাল্পিংয়ের মূল ধারণাটি হল, বড় পেআউটের জন্য অপেক্ষা করার পরিবর্তে আপনার ক্রিপ্টো বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রতিদিন ছোটখাট কিন্তু ক্রমাগত লাভ করতে থাকা। এছাড়াও ক্রিপ্টো স্ক্যাল্পাররা মূলত কয়েনের টেকনিকাল অ্যানালিসিস এবং কোম্পানি উপরে ভরসা করেন, ট্রেডারদের মতো ফান্ডামেন্টাল টেকনিক তারা মেনে চলেন না। ফলে আরও বিশদে জানার এবং ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্যাটার্ন, চার্ট কীভাবে পড়তে ও বুঝতে হয় সেগুলি শেখার চেষ্টা করুন। একজন ক্রিপ্টো স্ক্যাল্পার হিসেবে আপনি যদি লাভ করতে চান, তাহলে কীরকম সমর্থন ও সহনশীলতা প্রয়োজন, তা-ও বোঝার চেষ্টা করুন।

    ২- হাই-ফ্রিকোয়েন্সি ট্রেডিং

    হাই-ফ্রিকোয়েন্সি ট্রেডিং বা অনেকে একে HFT বলেন, এটি হল ট্রেডিং-এর অপর একটি রূপ। এখানে অ্যাডভান্সড কম্পিউটার সিস্টেমের ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে বড় বড় অর্ডার ট্রানজ্যাক্ট করা হয়, মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। এই সিস্টেমগুলি কমপ্লেক্স অ্যালগোরিদম-সহ প্রোগ্রাম ব্যবহার করার মাধ্যমে একাধিক মার্কেট বিশ্লেষণ করে এবং মার্কেটের অবস্থার উপরে নির্ভর করে অর্ডার কার্যকর করে। ক্রিপ্টো সম্পর্কে যত গভীরে গিয়ে শিখবেন তত এই ট্রেডিং পদ্ধতি ব্যবহার করার সুবিধা এবং অসুবিধাগুলি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

    ৩ - নন্স

    “নম্বর ওনলি ইউজড ওয়ান্স” অর্থাৎ এমন সংখ্যা যা শুধুমাত্র একবার ব্যবহার করা হয়েছে, তাকে সংক্ষেত্রে নন্স বলে। অতএব, নন্স হল এমন সংখ্যা যা নির্দিষ্ট ক্রিপ্টোগ্রাফিক প্রক্রিয়ার জন্য মাত্র একবার ব্যবহার করা যায়।আরও বিশদে বললে, আপনি হয়তো ‘হেডার হ্যাশ’ এবং ‘গোল্ডেন নন্স’-এর মতো টার্ম শুনেছেন। এগুলির সাথে ব্লক মাইনিং করার এবং তাকে ব্লকচেনের সাথে যোগ করার সংযোগ রয়েছে। আপনি যদি ক্রিপ্টো মাইনার হতে চান, তাহলে আপনাকে সবার প্রথমে নন্স সম্পর্কে জানতে হবে এবং এর কার্যপ্রণালী খুব ভালো ভাবে বুঝতে হবে।

    ৪- হার্ড ফোর্ক এবং সফ্ট ফোর্ক

    প্রোগ্রামিংয়ের ভাষায়, ফোর্ক বলতে ওপেন-সোর্স কোড মডিফিকেশান বোঝায়। ক্রিপ্টো জগতে, হার্ড ফোর্ক কথাটির মাধ্যমে ব্লকচেন সিস্টেমে কোনও রকম ফান্ডামেন্টাল পরিবর্তনের বিষয় বোঝানো হয়। এই পরিবর্তনের ফলে যাতে কোনও রকম গন্ডগোল বা ত্রুটি না হয়, তার জন্য পুরোনো ভার্সানটি অবৈধ হয়ে যায়। সফ্ট ফোর্ক বলতে ব্লকচেনের সেই সমস্ত পরিবর্তনের কথা বোঝায়, যারা পুরোনো ভার্সানের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ভাবে অবস্থান করতে পারে। এগুলির দ্বারা মূলত ব্লকচেনের ছোটখাট ফাংশান বা কস্মেটিক পরিবর্তন করা হয়।

    ৫– DEX

    DEX এর অর্থ হল ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ, যা ইউজারদের কোনও সেন্ট্রালাইজড ইন্টারমিডিয়ারি ছাড়াই স্মার্ট কন্ট্র্যাক্ট কাজে লাগিয়ে কয়েন বা টোকেন এক্সচেঞ্জ করার অনুমতি দেয়।এর ফলে আপনি একজন ক্রিপ্টো অ্যাসেটের মালিক হিসেবে আপনার সম্পদ ও প্রাইভেট কী-র মালিকানা ভোগ করতে পারবেন এবং আপনার বিনিয়োগ লক্ষ্যের পক্ষে কোন নীতি সঠিক তা আপনি নিজেই নির্ধারণ করতে পারবেন।

    ৬ –অ্যাভারেজ ট্রু রেঞ্জ

    অ্যাভারেজ ট্রু রেঞ্জ (ATR) এর লক্ষ্য হল ক্রিপ্টো মালিকদের সবচেয়ে বড় সমস্যার সমাধান করা, অর্থাৎ এই জগতের অস্থির চরিত্র পরিমাপ করার কাজে সহায়তা করা এবং সর্বাধিক লাভ নিশ্চিত করার জন্য সঠিক মার্কেট খুঁজে বের করার কাজে সাহায্য করা। ATR কোনও কিছু কেনার বা বিক্রির সিগন্যাল দেয় না। এটি শুধুমাত্র ক্রিপ্টো ট্রেডিং জগতের অস্থিরতা পরিমাপ করে, ঠিক যেমনটা ফোরেক্স বা স্টক ট্রেডিংয়ের ক্ষেত্রে করা হয়। অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, কোনও নির্দিষ্ট অ্যাসেট নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে কতটা ওঠানামা করতে পারে শুধুমাত্র সেই তথ্য ATR প্রদান করে। এই তথ্য ব্যবহার করে আপনার প্রয়োজনীয় ক্রিপ্টো অ্যাসেট সম্পর্কিত ওপেন পজিশন ম্যানেজ করতে, স্টপ-লস নির্ধারণ করতে পারেন।

    ৭ –স্কেলেবিলিটি ট্রাইলেমা

    স্কেলেবিলিটি ট্রাইলেমা তৈরি করেছিলেন ইথেরিয়াম নির্মাতা ভিতালিক বুতারিন এবং এর মাধ্যমে সেই সমস্ত ট্রেড অফ বোঝানো হয় যেগুলি ডেভেলপাররা তৈরি করে কোনও নির্দিষ্ট ব্লকচেনের ফিচার আরও উন্নত করার জন্য। এই ট্রাইলেমার মাধ্যমে এমন একটি ত্রিভুজের কথা বোঝানো হয়, যেখানে তিনটি প্রধান ব্লকচেন অ্যাট্রিবিউট পরস্পরের সাথে সংযুক্ত হয়- স্কেলেবিলিটি, ডিসেন্ট্রালাইজেশান এবং সিকিওরিটি। যখন ক্রিপ্টো অ্যাসেট অনেক বেশি জটিল পরিবর্তেনের মধ্যে দিয়ে যায় তখন এই ট্রেড অফ প্রতিটি উপাদানকে কার্যকর করে তোলে।

    ৮ – FUD

    FUD হল ‘ফিয়ার (ভয়), আনসার্টেনিটি (অনিশ্চয়তা) এবং ডাউট (দ্বিধা)’ এই তিনের সারসংক্ষেপ। যে কোনও বিনিয়োগকারী বা ট্রেডারের মনের অবচেতনে সর্বদা এই তিনটি ভাবাবেগ কাজ করে। অনেকে মানুষের এই ভাবাবেগগুলি প্রভাবিত করার ক্ষমতা রাখেন এবং তার মাধ্যমে নিজে লাভবান হয়ে ওঠেন। ক্রিপ্টো ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে FUD নিয়ে তখন কথা বলা হয় যখন কোনও ব্যক্তি উদ্দেশ্যপূর্ণ ভাবে জেনুইন বিনিয়োগকারীদের FUD প্রতিক্রিয়া প্রভাবিত করার মাধ্যমে কোনও নির্দিষ্ট ক্রিপ্টোকারেন্সি বা এমনকী সমগ্র ক্রিপ্টো মার্কেটের মূল্য হ্রাস ঘটিয়ে নিজের মুনাফা বৃদ্ধি করে।

    ৯ –মেমপুল

    ব্লকচেন ট্রানজ্যাকশানের একাধিক গ্রুপ, যার প্রতিটি কোনও ব্লকের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য প্রতীক্ষা করছে, তাদের মেমপুল বলে। এই শব্দটি হল মেমোরি পুল টার্মটির সংক্ষিপ্ত রূপ এবং এর মাধ্যমে কোনও ব্লকচেনে সফল ভাবে যোগ করার আগে যে ভ্যালিডেশান ও চেকিং প্রক্রিয়া চলে, তাকেই বোঝানো হয়।

    ১০ –টোকেনোমিক্স

    ইকোনোমিক্স এর পরে এখন এসেছে টোকেনোমিক্স, এটি হল ‘টোকেন’ এবং ‘ইকোনোমিক্স’ এই দুইটি শব্দের মিশ্ররূপ। এর মাধ্যমে ডিজিটাল অ্যাসেট শিক্ষা, বিশেষত ক্রিপ্টোকারেন্সি এবং তাদের মূল্যের কথা বোঝানো হয়। এই বিস্তৃত পরিসরের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে টোকেন নির্মাতাদের সম্পর্কে জানা, অ্যালোকেশান এবং ডিস্ট্রিবিউশন পদ্ধতি, মার্কেট ক্যাপিটালাইজেশান, বিজনেস মডেল, লিগাল স্ট্যাটাস, এবং এছাড়াও জানা যাবে, ক্রিপ্টো যত বেশি গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠবে তখন বৃহত্তর ইকোনোমিক ইকোসিস্টেমে বিভিন্ন ধরনের টোকেন কীভাবে কাজ করবে।

    যদি আপনি নিয়মিত ক্রিপ্টো টোকেন এবং অ্যাসেট নিয়ে চর্চা না করেন, তাহলে এই প্রতিটি টার্ম সম্পর্কে জানা এবং বোঝা কষ্টকর হতে পারে। তাই এই নতুন বিনিয়োগ ক্যাটাগরির বেসিক বিষয়গুলি জেনে নিয়ে এই যাত্রায় সামিল হয়ে যান এবং সেই যাত্রা শুরু করার জন্য বেছে নিন ZebPay-এর মতো একটি নির্ভরযোগ্য এবং নিরাপদ ক্রিপ্টো অ্যাসেট এক্সচেঞ্জ। আমরা ZebPay ব্যবহার করার পরামর্শ দিই, কারণ এখানে রয়েছে ক্রিপ্টো অ্যাসেটের বিশাল তালিকা, ক্রিপ্টো স্পেসের বিশাল ইতিহাস এবং সুরক্ষা প্রদানকারী শক্তিশালী প্রযুক্তি। আপনার অ্যাকাউন্ট খুলুন এখানে

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: CRYPTOCURRENCIES, Zebpay

    পরবর্তী খবর