• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • এবার চাইলে আপনার শিশুর জন্ম দিতে পারেন মহাকাশে

এবার চাইলে আপনার শিশুর জন্ম দিতে পারেন মহাকাশে

representative image

representative image

  • Share this:

    #কলকাতা:  আর খুব বেশি হলে ছ'টা বছর! ২০২৪ সাল-এর মধ্যেই স্পেস-এ জন্ম নেবে শিশু! এমনই চমকপ্রদ খবরই জানালেন বিজ্ঞানী মহল!

    বিজ্ঞানীদের মতে, স্পেস স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হবে এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে, এবং পৃথিবী থেকে প্রায় ৪০৩ কিলোমিটার উপরে জন্ম নেবে শিশু। ৩৬ ঘণ্টার এই অভিযানে মহিলার সঙ্গে থাকবেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের দল।

    ‘স্পেসলাইফ অরিজিন’ নামে একটি সংস্থার মাধ্যমে নেদারল্যান্ড-এর এক দল বিজ্ঞানী এমন এক মহিলা খুঁজছেন যিনি মহাকাশে তাঁর সন্তানের জন্ম দিতে ইচ্ছুক। তবে সেই মহিলার পৃথিবীতে দু’জন সুস্থ সন্তানের জন্ম দেওয়ার রেকর্ড থাকতে হবে।

    এই অভিযানের নাম, ‘মিশন ক্রেডল’। বিজ্ঞানীদের মতে, ‘স্মল স্টেপ ফর আ বেবি, জায়ান্ট বেবি স্টেপ ফর ম্যানকাইন্ড’। মহাকাশে মানবজাতির উপনিবেশ গড়ে তোলাই লক্ষ্য এই বিজ্ঞানীদলের।

    জানা গিয়েছে--

    অন্তঃসত্ত্বাকে স্বাভাবিক মহাকর্ষীয় বলয়ের বাইরে রাখা হবে। ২৫ জন অংশগ্রহণকারীকে মহাকাশে নিয়ে যাওয়া হবে, যাতে দু’দিনের অভিযানে কোনও না কোনও শিশু জন্ম নেয়। ভ্রূণের বয়স সাড়ে আট মাস হলে তবেই হবু মা-কে মহাকাশে পাঠানো হবে!

    প্রথমে স্পেস স্টিমুলেটরে অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের মেডিক্যাল স্ক্রিনিং করা হবে। অসুস্থ হয়ে পড়লে কী করা হবে, সেই প্রস্তুতিও নেওয়া থাকবে।

    ২০২২ সালে এই নির্বাচন পর্ব শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে। মূলত আইভিএফ পদ্ধতির সাহায্য নিয়েছেন, এরকম মহিলাদের নিয়ে শূন্যে নিয়ে যাওয়া হবে।

    ২০২১ সালে এই পরীক্ষার প্রথম ধাপ। 'মিশন লোটাস' নামে একটি ইনকিউবেটর নিয়ে যাওয়া হবে মহাকাশে। ইনকিউবেটরে থাকবে শুক্রানূ ও ডিম্বাণু। ইনকিউবেটরের মধ্যেই কৃত্রিমভাবে শুক্রানূ ও ডিম্বাণুর মিলনের ফলে ভ্রুণ গঠন হলে, ইনকিউবেটর পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা হবে।

    First published: