Home /News /technology /
২০০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা! আরও কী জানা যাচ্ছে Samsung Galaxy S23 Ultra নিয়ে ?

২০০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা! আরও কী জানা যাচ্ছে Samsung Galaxy S23 Ultra নিয়ে ?

Samsung Galaxy S22 Ultra: জানা গিয়েছে যে Samsung ২০০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা নিয়ে ইতিমধ্যেই পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করে দিয়েছে।

  • Share this:

    Samsung Galaxy S23 Ultra: Samsung কাজ শুরু করে দিয়েছে নিজেদের ফোনে উন্নত মানের ক্যামেরা বসানোর জন্য। আগের বছর Samsung প্রায় ২০০ মেগাপিক্সেলের আইএসওসিইএলএল এইচপি১ (ISOCELL HP1) ক্যামেরা নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী Samsung তাদের নতুন ফোন Samsung Galaxy S23 Ultra-তে ব্যবহার করতে পারে এই ক্যামেরা। রিপোর্ট অনুযায়ী Samsung Galaxy Ultra ডিভাইসের সকল ফোনে ব্যবহার করা হতে পারে ক্যামেরা সেন্সর। এই সকল উন্নত ক্যামেরার প্রায় ৭০ শতাংশ কাজ করছে স্যামসাং ইলেকট্রো মেকানিকস (Samsung Electro Mechanics) এবং বাকিটা ম্যানুফ্যাকচার করছে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স (Samsung Electronics)।

    Samsung তাদের ফোনে ব্যবহার করতে চলেছে ২০০ মেগাপিক্সেলের সেন্সর। রিপোর্ট অনুযায়ী এর জন্য কাজ করা শুরু হয়ে গিয়েছে। কিন্তু সবসময় বেশি মেগাপিক্সেল ব্যবহার করলেই বেটার কোয়ালিটি পাওয়া যায় না। এর ফলে Samsung কোম্পানির এই বিষয়টির দিকেও নজর দেওয়া প্রয়োজন। রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে Samsung ২০০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা নিয়ে ইতিমধ্যেই পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করে দিয়েছে। কিন্তু Samsung এর সঙ্গে কীভাবে অন্যান্য ফিচার এবং সেন্সরকে যুক্ত করে সেটাই দেখার। Samsung Galaxy S23 Ultra ফোন হল Samsung Galaxy S23 সিরিজেরই পার্ট। মনে করা হচ্ছে ২০২৩ সালে এই ফোন লঞ্চ করা হতে পারে। রিপোর্ট অনুযায়ী ক্রেতাদের কাছে Samsung Galaxy S23 Ultra ফোন সবথেকে প্রিমিয়াম স্মার্টফোন হতে চলেছে।

    আরও পড়ুন - অপেক্ষার অবসান, Whatsapp আপডেটে এ বার বড় ফাইল শেয়ারিংয়ের সুযোগ

    আরও পড়ুন - Google বন্ধ করে দিচ্ছে কল রেকর্ডিং অ্যাপ! জানুন এবার কী করবেন

    Samsung Galaxy S22 Ultra ফোন হল প্রথম S সিরিজের ফোন যেখানে ব্যবহার করা হয়েছে জনপ্রিয় এস পেন। এবার Samsung তাদের এস সিরিজের ফোনের সঙ্গে চালু করতে চলেছে অন্য একটি সিরিজের ফোন। Samsung চালু করতে চলেছে আলট্রা সিরিজের ফোন। এছাড়াও বাজারে রয়েছে Samsung-এর ফোল্ডিং ফোন Samsung Galaxy Z এবং Samsung Galaxy Z Flip। Samsung তাদের প্রিমিয়াম ফোনে ফাস্ট চার্জ প্রযুক্তি আরও উন্নত করতে পারে। কারণ চাইনিজ ব্র্যান্ডের ফোনের সঙ্গে এটি নিয়েই একটা লড়াই রয়েছে Samsung-এর ফোনের। Samsung যদি তাদের ফোনে ৪৫ ডবলু ফাস্ট চার্জ ফিচার ব্যবহার করে তাহলে সেই ফোনের দাম লাখ টাকার কাছাকাছি হতে পারে।

    Samsung কোম্পানির ফোনের সঙ্গে ফাস্ট চার্জ নিয়ে লড়াই রয়েছে অন্যান্য সংস্থার। এর মধ্যে রয়েছে Xiaomi, যাদের ফোনে রয়েছে ১২০ ডব্লু ফাস্ট চার্জ। Realme-এর ফোনে রয়েছে ১৫০ ডব্লু ফাস্ট চার্জ। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত এই বিষয়ে সংস্থা প্রতিযোগীদের চেয়ে এগিয়ে থাকতে পারে কি না

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: SamSung

    পরবর্তী খবর