হোম /খবর /মোবাইল /
এবার Windows ল্যাপটপেই দেখা যাবে iPhone-এর ফটো, জেনে নিন কীভাবে

এবার Windows ল্যাপটপেই দেখা যাবে iPhone-এর ফটো, জেনে নিন কীভাবে

Microsoft-এর Windows 11-এ আইক্লাউড ফটো অ্যাপের মাধ্যমে আইফোনের ফটো দেখা যাবে।

  • Last Updated :
  • Share this:

Apple iPhone ইউজারদের জন্য নিয়ে এসেছে একটি দারুণ সুখবর। কারণ এখন থেকে আইফোন ইউজাররা Windows ল্যাপটপ এবং পিসিতে অ্যাক্সেস করতে পারবেন তাঁদের আইফোনের ছবি। উইন্ডোজের পিসি এবং ল্যাপটপে আইফোনের ছবি অ্যাক্সেস করা যাবে আইক্লাউড ফটো অ্যাপের মাধ্যমে। Microsoft-এর Windows 11-এ আইক্লাউড ফটো অ্যাপের মাধ্যমে আইফোনের ফটো দেখা যাবে। বিগত দিনে আইফোন এবং উইন্ডোজের পিসি একসঙ্গে কখনও কাজ করেনি।

কিন্তু বর্তমানে এই পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে। মাইক্রোসফটের একটি ইভেন্টে ঘোষণা করা হয়েছে যে, অ্যাপলের আইফোন ইউজাররা এখন থেকে তাঁদের আইফোনের ফটো এবং ভিডিও মাইক্রোসফট ফটো অ্যাপের মাধ্যমে উইন্ডোজের পিসি এবং ল্যাপটপে অ্যাক্সেস করতে পারবেন। যা সরাসরি হবে আইক্লাউডের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন - Facebook-এ এই ভুলগুলি কখনও করেননি তো? সাবধান হন, নয় তো হাজত বাস পাক্কা

মাইক্রোসফট এবং অ্যাপল যৌথ ভাবে নিয়ে এসেছে এই অভিনব ফিচার। উইন্ডোজ ১১-এর ইউজাররা এখন থেকে আইফোনে বিভিন্ন ধরনের ফটো এবং ভিডিও উইন্ডোজের ল্যাপটপ এবং পিসিতে অ্যাক্সেস করতে পারবে। উইন্ডোজ ১১ ছাড়াও আইফোনের ফটো অ্যাক্সেস করা যাবে মাইক্রোসফট এক্সবক্স প্ল্যাটফর্মে।

আইফোনের ইউজাররা নিজেদের ফোন থেকে ছবি এবং ভিডিও উইন্ডোজ কমপিউটারে সেন্ড করতে গেলে খুব সহজেই তা করতে পারবেন। আইক্লাউডের মাধ্যমে খুব সহজেই আইফোনের ইউজাররা বিভিন্ন ধরনের ছবি এবং ভিডিও উইন্ডোজ ডেস্কটপ এবং ল্যাপটপে সেন্ড করতে পারবেন।

এর জন্য তাঁদের মাইক্রোসফট স্টোরে গিয়ে উইন্ডোজ আইক্লাউড অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। তা ডাউনলোড করার পর নিজেদের অ্যাকাউন্ট খুলে লগইন করতে হবে এবং সিঙ্ক্রোনাইজ করতে হবে আইক্লাউড ফটোর সঙ্গে। এই কাজটি করার পরেই আইক্লাউড ফটো সরাসরি দেখা যাবে উইন্ডোজ ১১-এ ফটো অ্যাপ হিসাবে। এখানেই আইফোন থেকে সেন্ড করা ফটো এবং ভিডিও দেখতে পাবেন ইউজাররা।

ফটো শেয়ারিং ছাড়াও এক্সবক্সে করা যাবে বিভিন্ন ধরনের কাজ -

এক্সবক্সে এখন অ্যাপল মিউজিক উপলব্ধ অর্থাৎ ইউজাররা এখন থেকে সরাসরি এক্সবক্সের মাধ্যমেই অ্যাপল মিউজিক থেকে বিভিন্ন ধরনের গান শুনতে পারবেন। জানা গিয়েছে যে অ্যাপল খুব তাড়াতাড়ি অ্যাপল মিউজিক এবং অ্যাপল টিভি প্লাস অ্যাপ নিয়ে আসতে চলেছে উইন্ডোজের ক্ষেত্রে। আগামী বছরেই উইন্ডোজে দেখা যাবে অ্যাপলের এই অ্যাপ।

আরও পড়ুন - ইনবক্স মেমোরি ভর্তি হয়ে গিয়েছে? এক ক্লিকেই মুছে ফেলুন Gmail-র সব প্রোমোশনাল মেল, দেখে নিন কীভাবে

উইন্ডোজে এই ধরনের সুবিধা পাওয়া গেলেও এখানে কোনও এয়ারড্রপ তৈরি করা যাবে না। অন্য দিকে, আইফোন সব থেকে ভাল কাজ করে macOS ডিভাইসে। উইন্ডোজ ১১-এ যুক্ত হতে চলেছে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপল সার্ভিস। যা ইতিমধ্যেই স্যামসাং ডিভাইসে উপলব্ধ।

মাইক্রোসফটের তরফে ইতিমধ্যেই ঘোষণা করা হয়েছে Surface Pro 9, Suface Laptop 5। এই সমস্ত ল্যাপটপে সাপোর্ট করবে ৫জি নেটওয়ার্ক এবং ১২ জেনারেশন ইন্টেল প্রসেসর। জানা গিয়েছে যে Surface Pro 9 5g-তে ব্যবহার করা হতে পারে মাইক্রোসফট এসকিউ চিপ বেসড কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৫জি কানেকটিভিটি।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: ICloud, IPhone, Windows 11