কেরিয়ারে দুটি আক্ষেপ মেটেনি সচিনের ! জানেন কী ?

সানি এবং ভিভের সঙ্গে না খেলার আক্ষেপ সচিনের

প্রথমত, আমি কোনওদিন সুনীল গাভাসকরের সঙ্গে খেলিনি। আমি বেড়ে ওঠার সময় উনিই আমার আদর্শ ছিলেন। কিন্তু কোনও দলে থেকে ওঁর সঙ্গে না খেলার আক্ষেপ সারাজীবন থাকবে। আমার অভিষেকের বছর দুয়েক আগে গাভাসকার অবসর নেন

  • Share this:

    #মুম্বই: ছোটবেলা থেকে যে দুজনকে আদর্শ করে বড় হয়েছিলেন সেই দু'জন ক্রিকেটারের কথা হঠাৎ করেই মনে পড়েছে সচিন তেন্ডুলকরের। সুনীল গাভাসকার এবং স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস। মাস্টার ব্লাস্টার মনে করেন এই দুজন ক্রিকেটার স্বপ্নের মত। ছোটবেলায় মিস করতেন না এঁদের খেলা। তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করতেন। মোটিভেশন পেতেন এই দুজনকে দেখে।

    দীর্ঘ ২৪ বছরের ক্রিকেটজীবনে কোনও কিছুই অর্জন করতে বাকি নেই তাঁর। একদিনের ক্রিকেট বা টেস্টে সর্বাধিক রানই হোক বা একশোটি শতরান, সবই রয়েছে তাঁর কাছে। বিশ্বকাপটাও ক্রিকেটজীবনের শেষাংশে এসে পেয়ে গিয়েছেন। এহেন সচিন তেন্ডুলকরের জীবনে তবু দুটি আক্ষেপ রয়েছে। প্রায় ৬০০-র উপর আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা সচিন এক সাক্ষাৎকারে নিজের দুটি আক্ষেপের কথা জানিয়েছেন।

    বলেছেন, “প্রথমত, আমি কোনওদিন সুনীল গাভাসকরের সঙ্গে খেলিনি। আমি বেড়ে ওঠার সময় উনিই আমার আদর্শ ছিলেন। কিন্তু কোনও দলে থেকে ওঁর সঙ্গে না খেলার আক্ষেপ সারাজীবন থাকবে। আমার অভিষেকের বছর দুয়েক আগে গাভাসকার অবসর নেন।” সচিনের দ্বিতীয় আক্ষেপ হল স্যর ভিভ রিচার্ডসের বিরুদ্ধে না খেলা।

    মাস্টার ব্লাস্টার বলেছেন, “ছোটবেলায় আমার আদর্শ ছিলেন স্যর ভিভিয়ান রিচার্ডস। কাউন্টি ক্রিকেটে ওঁর বিরুদ্ধে খেলতে পেরে আমি ভাগ্যবান। কিন্তু আন্তর্জাতিক ম্যাচে ওঁর বিরুদ্ধে খেলার সৌভাগ্য কোনও দিন হয়নি। যদিও স্যর রিচার্ডস ১৯৯১ সালে যখন অবসর নেন তখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমি বছর দুয়েক কাটিয়ে ফেলেছি। কিন্তু তাও ওঁর বিরুদ্ধে খেলার সুযোগ কখনও আসেনি।” তবে আক্ষেপ থাকতেই পারে। তবে ভারতের হয়ে দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার সুবাদে তিনি সারা দেশের মানুষের থেকে যে পরিমান ভালোবাসা এবং সম্মান পেয়েছেন তা কোনও কিছু দিয়েই মাপা সম্ভব নয় জানিয়েছেন সচিন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: