টাইম প্রেসারে ইস্টবেঙ্গল ! গণপদত্যাগের হুমকি এগজিকিউটিভ কমিটির সদস্যদের

এগজিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে সই না করার পক্ষে মত। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে সংঘাত বাড়ছে সাবেকি ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের।

এগজিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে সই না করার পক্ষে মত। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে সংঘাত বাড়ছে সাবেকি ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের।

  • Share this:

 #কলকাতা : মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাল-হলুদে এগজিকিউটিভ কমিটির বৈঠক। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে চুক্তি জটে সঙ্ঘাতে জড়িয়ে থাকা অবস্থায় জরুরী ভিত্তিতে ডাকা এই বৈঠকের দিকে তাকিয়ে ছিল  ইস্টবেঙ্গলের লক্ষ লক্ষ সমর্থক। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে চুক্তি সই টানাপোড়েনের মাঝে এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে কি সিদ্ধান্ত হতে চলেছে, সে দিকেই নজর ছিল বটতলার। ফলাফল, পর্বতের মূষিক প্রসব।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত, টার্মশিটের শর্তাদি বিবেচনা করার অনুরোধ জানিয়ে আবারও বিনিয়োগকারী শ্রী সিমেন্টকে চিঠি পাঠাচ্ছেন ইস্টবেঙ্গলের সাবেকি কর্তারা। শ্রী সিমেন্ট কর্ণধার হরিমোহন বাঙ্গুরের চরম হুঁশিয়ারি পরেও চুক্তিপত্রে সইয়ের বিষয় নীরব থাকল লাল-হলুদের সাবেকি ক্লাব কর্তারা।

ক্লাবের ফুটবল সচিব সৈকত গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন,"এরপরেও জোর করে টার্মশিটে সই করানো হলে ক্লাবের কমিটি গণ ইস্তফার পথে হাঁটবে।" ইস্টবেঙ্গলের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার অবশ্য জানিয়েছেন,"চুক্তি জট মিটে যাওয়ার বিষয়ে এখনও আশাবাদী ক্লাব।"তবে পরিস্থিতি যে দিকে মোড় নিচ্ছে তাতে বরফ গলার ইঙ্গিত নেই। ক্লাবের এগজিকিউটিভ কমিটির সদস্যরা মঙ্গলবার ঐক্যমতে পৌঁছোন যে বিনিয়োগকারীদের চুক্তিতে অসম্মানজনক শর্তাদি রয়েছে। সেই সব শর্তাদি বিবেচনা করে পরিবর্তন করা হলে টার্মশিটে সই করতে আপত্তি নেই। অন্যথায় ক্লাব সচিব কল্যাণ মজুমদারের কাছে একযোগে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন কমিটির সদস্যরা।

চাপের মুখে শ্রী সিমেন্টের চুক্তিতে কোনোমতেই সই নয় সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিল ইস্টবেঙ্গলের কার্যকরী কমিটি। সই করতে তৃতীয় পক্ষকে দিয়ে চাপ তৈরি করা হলে পদত্যাগ করবে কার্যকরী সমিতি। সেই সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে মঙ্গল সন্ধ্যার লাল হলুদের বৈঠকে। বাস্তব পরিস্থিতি বলছে, শ্রী সিমেন্ট আর ইস্টবেঙ্গলের চুক্তি জট কাটার কোনো সম্ভাবনাই তৈরি হচ্ছে না। এদিকে শোনা যাচ্ছে জল যে দিকে গড়াচ্ছে তাতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন শ্রী সিমেন্ট কর্ণধার হরিমোহন বাঙ্গুর।

ইস্টবেঙ্গলের স্পোর্টিং রাইটস যেহেতু শ্রী সিমেন্টের কাছে রয়েছে, সেক্ষেত্রে আগামী আইএসএলে তো বটেই, অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন ফুটবল ক্যালেন্ডার ঘোষণা করলে ফেডারেশন অনুমোদিত অন্যান্য টুর্নামেন্টেও লাল-হলুদের  ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত।

PARADIP GHOSH

Published by:Piya Banerjee
First published: