• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL ROBERTO MANCINI TURNED ITALY INTO TITLE CONTENDERS FOR EURO 2020 FROM WORLD CUP FLOPS RRC

Euro 2020 : নতুন ফর্মুলায় ফুটবল ক্রুসেডের অপেক্ষায় মানচিনির ইতালি

মানচিনির নতুন সিস্টেম এবং স্টাইলে বদলে গিয়েছে ইতালি

রোমান সাম্রাজ্য একদিনে গড়ে ওঠেনি। শুধু রোমান সাম্রাজ্য নয়, যে কোনও সাম্রাজ্য বিস্তারের জন্য সময় লাগে। ফুটবলের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা এক। অনেক অগ্নিপরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়

  • Share this:

    #রোম: রোমান সাম্রাজ্য একদিনে গড়ে ওঠেনি। শুধু রোমান সাম্রাজ্য নয়, যে কোনও সাম্রাজ্য বিস্তারের জন্য সময় লাগে। ফুটবলের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা এক। অনেক অগ্নিপরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। কিন্তু একবার সিস্টেম ধরে ফেলতে পারলে সেই দলকে আটকানো মুশকিল। ইউরো কাপে খুব অল্প শব্দের মধ্যে এভাবেই ব্যাখ্যা করা যায় ইতালি দলটাকে। কোচ রবার্তো মানচিনির অধীনে গত দু’বছর দারুণ ছন্দে রয়েছে ইতালি। ইউরো কাপের উদ্বোধনী ম্যাচেও তা বজায় থাকল। ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে নয়, দলগত সংহতিতেই তুরস্ককে ৩-০ গোলে হারাল চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

    গতানুগতিক রক্ষণাত্মক স্ট্র্যাটেজি থেকে বেরিয়ে শুক্রবার এক অন্য ইতালিকে দেখল ফুটবল বিশ্ব। ধারে ও ভারে অনেকটাই পিছিয়ে থাকা তুরস্কের বিরুদ্ধে অবশ্য প্রথমার্ধে আজ্জুরিদের খেলা দেখে কেউ ভাবতে পারেনি, ম্যাচের ফল এরকম হতে পারে। তবে বিরতির পর কার্যত প্রতিপক্ষকে দুরমুশ করলেন বারেল্লা, বোনুচ্চিরা। ইতালির হয়ে স্কোরশিটে নাম তুলেছেন যথাক্রমে সিরো ইম্মোবাইল ও লরেঞ্জো ইনসিগনে। অপর গোলটি ডেমিরালের আত্মঘাতী। রাশিয়া বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন করতে না পারার ব্যর্থতা এখন অতীত ইতালির কাছে।

    ফের একবার বিশ্ব ফুটবল আঙিনায় শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লক্ষ্যে অবিচল তাঁরা। উল্লেখ্য, টানা ২৭টি ম্যাচ অপরাজিত থেকে শুক্রবার মাঠে নেমেছিল ইতালি। প্রথম ম্যাচেই বড় জয় দিয়ে ইউরো অভিযান শুরু করার পর স্বাভাবিকভাবেই খুশি কোচ মানচিনি। ম্যাচ শেষে তিনি জানান, ‘রক্ষণ, মাঝমাঠ এবং আপফ্রন্ট-প্রতিটি বিভাগেই পরিকল্পিত ফুটবল উপহার দিয়েছে ছেলেরা। প্রথম ম্যাচে জয় পেলে স্বাভাবিকভাবেই আত্মবিশ্বাস বাড়ে। এই ছন্দ আগামী ম্যাচগুলিতে ধরে রাখতে হবে।’ ক্লাব ফুটবলে গত মরশুমটা দারুণ কেটেছে ইম্মোবাইলের। এবার দেশের জার্সিতেও সেই ধারা অক্ষুণ্ণ রাখলেন ইতালিয়ান স্ট্রাইকারটি।

     আসলে মানচিনি  বরাবর কম কথা বলতে পছন্দ করেন। ব্রাজিলের পর জার্মানি ছাড়া চারটা বিশ্বকাপ জেতার নজির ইতালি ছাড়া আর কারও নেই। সেই দল শেষ বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি। এই জ্বালাটাই কাজে লাগাতে চাইছেন বর্তমান কোচ। ইতিহাস, রেকর্ড এবং ফুটবল ঐতিহ্যের ব্যাপারে ইতালির জুড়ি মেলা ভার। মুখে নয়, মাঠেই ফুটবল ক্রুসেড করে দেখাতে চায় আজুরি ব্রিগেড।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: