• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL LEGENDARY ENGLISH STRIKER GARY LINEKER HAPPY WITH THE GERMANS ALWAYS WIN PHRASE PUT TO BED RRC

' জার্মানরা সব সময় জেতে'! মিথ ভাঙতে দেখে উচ্ছ্বসিত গ্যারি লিনেকার

জার্মানিকে হারানোর আনন্দ চলছে ইংল্যান্ডে

একটা সময় মনে হত, ফুটবল খুবই সাধারণ খেলা। ৯০ মিনিট ধরে ২২ জন ফুটবলার একটা বল তাড়া করে। কিন্তু দিনের শেষে জার্মানিই জেতে। এবার সেই যুগের পতন হল

  • Share this:

    #লন্ডন: লড়াইটা ছিল সম্মানের, আত্মমর্যাদার এবং শ্রেষ্ঠত্বের মাপকাঠি বুঝে নেওয়ার। পুরনো শত্রু জার্মানির বিরুদ্ধে এর আগে পর্যন্ত নকআউট প্রতিযোগিতায় ইংরেজদের রেকর্ড ছিল অত্যন্ত খারাপ। ১৯৯৬ ইউরো হোক বা ২০১০ ব্লুমফন্টেইন, জার্মান মেশিনারিতে বারবার পিষ্ট হয়েছিল থ্রি লায়ন্স। তাই এই জয় নিয়ে এখনও রেশ কাটেনি ইংরেজদের। কেমন যেন ঘোরে র মধ্যে রয়েছে ইংলিশরা। ইংল্যান্ডের কিংবদন্তি স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকার লিখেছেন, ‘একটা সময় মনে হত, ফুটবল খুবই সাধারণ খেলা। ৯০ মিনিট ধরে ২২ জন ফুটবলার একটা বল তাড়া করে। কিন্তু দিনের শেষে জার্মানিই জেতে। এবার সেই যুগের পতন হল।’

    জার্মানির সর্বকালের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার জুরগেন ক্লিন্সম্যানের ধারণা, ‘এবার ইউরোয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার বড় দাবিদার হ্যারি কেনরা। ফুটবলের আসরে গোলের সুযোগ সদ্ব্যবহার করাই আসল কথা। এখানেই জার্মানিকে টেক্কা দিয়ে ইংল্যান্ড ম্যাচ পকেটে পুরে নেয়।’ ব্রিটিশ মিডিয়া দেশীয় ফুটবলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। বিশ্ব ফুটবলে মর্যাদার লড়াইয়ে জেতার পর জার্মানদের বিদ্রুপ করতেও তারা ছাড়েনি।

    ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম ইংলিশ ফুটবলে মিথ হয়েই থাকবে। এখানেই জার্মানিকে হারিয়ে ১৯৬৬ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন ববি মুররা। মঙ্গলবার আবার সেই একই মাঠে জার্মানদের ‘প্রাচীর’ ভেঙে দিলেন রহিম স্টার্লিংরা। শিরোনামে উঠে এসেছেন ইংল্যান্ড স্ট্রাইকার হ্যারি কেন। এবার ইউরোয় মঙ্গলবারই প্রথম গোলের স্বাদ পেয়েছেন তিনি। ইংলিশ ক্যাপ্টেন বলেন, ‘জার্মানির বিরুদ্ধে গোলের মুহূর্ত কোনওদিন ভোলা যাবে না। দেশের হয়ে ৩৫টি গোল করলাম। গ্রুপ লিগে লক্ষ্যভেদ করতে না পারায় চাপ অবশ্যই বেড়েছিল। অবশেষে যা থেকে মুক্তি পেলাম।’

    গোলের প্রসঙ্গে টটেনহ্যামের ফুটবলারটি বলেন, "নিখুঁত ক্রস রেখেছে জ্যাক গ্রেলিশ। এর জন্য কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়। আমি ঠিক সময়ে বলের কাছে পৌঁছে মাথা ছুঁইয়েছি"। রহিম স্টার্লিংয়ের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হ্যারি কেন। তাঁর বিশ্লেষণ, ‘শুরু থেকেই ও দুরন্ত উইং প্লে’র মাধ্যমে জার্মান রক্ষণ ভাঙার চেষ্টা করেছে। এই প্রচেষ্টার সুফলও পেয়েছি আমরা। লুক শ’র ক্রস থেকে স্টার্লিংয়ের গোল ভোলা যাবে না। এই গোলের মুভে আমারও অবদান রয়েছে ভেবে ভালো লাগছে।’

    ইংল্যান্ড ম্যানেজার সাউথগেট ২৫ বছর আগে এই জার্মানদের বিরুদ্ধে টাইব্রেকার মিস করে সমালোচিত হয়েছিলেন। সেই যন্ত্রণা এতদিন বয়ে বেড়াতে হয়েছে। এবার দেখলেন তাঁর ব্যর্থতার জবাব সুদে-আসলে মিটিয়ে দিলেন তাঁর ফুটবলাররা। কিন্তু পেশাদার কোচ জানেন আসল লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া। তাই আবেগে ভাসতে নারাজ।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: