• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL ITALY MANAGER ROBERTO MANCINI DELIGHTED WITH PERFORMANCE OF SUBSTITUTES CHIESA AND PESSINA AGAINST AUSTRIA RRC

Euro 2020 : অদম্য মানসিকতার জন্যই জিতেছে ইতালি, বলছেন মানচিনি

দলের হার না মানা মানসিকতায় মুগ্ধ ইতালির মানচিনি

ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে সঠিক খেলোয়াড় বদলি নামাতে পারায় তৃপ্ত প্রাক্তন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ। ' যারা বদলি নেমেছিল তারা সঠিক মানসিকতা ও সমস্যার সমধান করার চিন্তা নিয়ে নেমেছিল বলেই জয় পেয়েছি' বলেন তিনি

  • Share this:

    #লন্ডন: এলাম, দেখলাম এবং জয় করলাম। গ্রুপ পর্বে প্রথম তিনটি ম্যাচে ইতালির প্রদর্শন দেখার পর এটাই ভেবেছিলেন অধিকাংশ ফুটবল পণ্ডিতরা। কিন্তু কঠিন টুর্ণামেন্টে প্রতিটা বাঁকে কত কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে সেটা দেখিয়ে দিয়েছে অস্ট্রিয়া। হেরে গেলেও ইতালির মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়েছে। মানচিনির ইতালি টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত থাকল। এতে ৮২ বছরের পুরোনো রেকর্ড ভেঙেছে ইতালি। নিজেদের ইতিহাসে এত দীর্ঘ সময় কখনও অপরাজিত থাকার রেকর্ড নেই দলটির।

    যদিও কালাইজিচের কারণে অনবদ্য আরেকটি রেকর্ড থেমে গিয়েছে আজুরিদের। ১১৪ মিনিটে করা কালাইজিচের গোলে টানা গোল না খাওয়ার রেকর্ড ১৯ ঘন্টা ২৮ মিনিটে আটকে গেল ইতালির। মানচিনি অবশ্য এ নিয়ে ভাবছেন না। ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে সঠিক খেলোয়াড় বদলি নামাতে পারায় তৃপ্ত প্রাক্তন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ। ' যারা বদলি নেমেছিল তারা সঠিক মানসিকতা ও সমস্যার সমধান করার চিন্তা নিয়ে নেমেছিল বলেই জয় পেয়েছি। আমি জানতাম এটা কঠিন হবে, এমনকি কোয়ার্টার ফাইনালের চেয়েও হয়তো বেশি।'

    কোয়ার্টার ফাইনালের চেয়ে শেষ ষোলোর পরীক্ষাই কঠিন বলছেন মানচিনি। কিন্তু বাস্তবতা হল কোয়ার্টার ফাইনালে ইতালির জন্য অপেক্ষায় থাকবে ফর্মে থাকা বেলজিয়াম বা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পর্তুগাল। গ্রুপ পর্বে রীতিমতো উড়ছিল ইতালি। তিন ম্যাচেই সহজ পেয়েছিল দলটি। দুর্দান্ত গোছানো আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে চমকে দিয়েছে সবাইকে। এমনকি রবার্তো মানচিনির অধীনে ইতালি ইউরো জিতলে কেন ফুটবলের জন্য ভাল হবে-সে আলোচনাও হচ্ছিল।

    প্রথমবারের মত ইউরোপের গ্রুপ পর্ব পেরোনো অস্ট্রিয়ার বিপক্ষেই বড় পরীক্ষা দিয়েছে ইতালি। অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো শেষ ষোলোর ম্যাচে ২-১ ব্যবধানে জয় পেলেও শেষমুহূর্ত পর্যন্ত দুশ্চিন্তায় ছিলেন মানচিনি। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হতে গেলে কঠিন পরীক্ষা তো দিতেই হবে। মানচিনি মনে করেন কঠিন ম্যাচেই দলের মানসিকতা প্রমাণিত হয়। তাঁর ছেলেরা যে ভাবে লড়াকু মানসিকতা বজায় রেখেছিল তার জন্য কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয় জানিয়েছেন অভিজ্ঞ কোচ।

    ইতালির জার্সির ওজন এবং ইতিহাস বহন করে নিয়ে যেতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বরেলা, লকোতেল্লি, ইমমোবাইল, ইনসিগনেরা। তরুণ ফুটবলার পেসিনা যেভাবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন তাঁর ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল মনে করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে ড্রেসিংরুমের টিম স্পিরিট দারুণ জায়গায় আছে। ট্রফি না নিয়ে ফিরব না গোছের মানসিকতা দলের ফুটবলারদের। দলের রিজার্ভ বেঞ্চ শক্তিশালী। সব মিলিয়ে টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলোতে নিজেদের স্বপ্নের দৌড় বজায় রাখতে মরিয়া চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দল।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: