Home /News /sports /
Euro 2020 : জার্মান মেশিনারিতে চার গোল হজম রোনাল্ডোর পর্তুগালের

Euro 2020 : জার্মান মেশিনারিতে চার গোল হজম রোনাল্ডোর পর্তুগালের

পর্তুগালের জালে বল জড়াচ্ছেন কাই হাবেরটজ

পর্তুগালের জালে বল জড়াচ্ছেন কাই হাবেরটজ

দুটো আত্মঘাতী গোল হজম এবং জার্মানির কমপ্লিট ফুটবলে এদিন নিজেদের চেনা ছন্দে একেবারেই দেখা যায়নি পর্তুগালকে

  • Share this:

    পর্তুগাল -২ ( রোনাল্ডো, জোটা)

    জার্মানি -৪ ( ডিয়াস, রাফায়েল- আত্মঘাতী, কাই, গোসেন)

    #মিউনিখ: ম্যাচের শুরু থেকেই চতুর্থ গিয়ারে খেলা শুরু করে জার্মানি। বল দখল রেখে, একাধিক পাস খেলে পর্তুগালের গোল মুখ খুলে ফেলতে চেষ্টা করে তাঁরা। জেতার বাসনা প্রথম থেকেই পরিষ্কার ছিল জার্মানির খেলায়। তিন মিনিটের মাথায় গসেনের গোলে লিড নেয় জার্মানরা। কিন্তু অফসাইড হওয়ায় বাতিল হয়। দুর্দান্ত কাউন্টার অ্যাটাক থেকে ১৫ মিনিটের মাথায় লিড নেয় পর্তুগাল। বার্নার্ড সিলভা বল ধরে বাড়ান জতাকে। জতা জার্মান গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বাড়ান রোনাল্ডোকে। গোল করতে ভুল করেননি পর্তুগিজ স্ট্রাইকার।

    কিন্তু জার্মানির আক্রমণ দমে যায়নি। ৩৫ মিনিটে বাঁদিক থেকে গসেন বল বাড়ালে হাভেরটজ ফ্লিক করতে যান। কিন্তু পর্তুগিজ ডিফেন্ডার রুবেন ডিয়াসের পায়ে লেগে আত্মঘাতী গোল হয়। চার মিনিট পর আবার আত্মঘাতী গোল হজম করে পর্তুগিজরা। মুলার এবং কিমিচ্ কম্বিনেশনে আক্রমণ গড়ে জার্মানি। নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দেন রাফায়েল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই কাই আবার গোল করে এগিয়ে যান জার্মানিকে। ৬০ মিনিটে পর্তুগালের লজ্জা বাড়ান গোসেন।

    এরপর কয়েকটি পরিবর্তন করে জার্মানি। ৬৭ মিনিটে রোনালদোর অ্যাসিস্ট জালে জড়াতে ভুল করেননি জোটা। এরপর বাকি সময়টা বল ধরে খেলার চেষ্টা করে পর্তুগাল। রেনাতো সানচেজ জোরালো শট নেন। পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। কিন্তু ফ্রান্স ম্যাচ হারের পর যেভাবে আজ ঘুরে দাঁড়াল জার্মানি তার প্রশংসা করতেই হয়। পেশাদারি মনোভাব দেখালেন জোয়াকিম লোর ছেলেরা। চাপের ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াল জার্মানরা।

    এই হারে চাপ বাড়ল পর্তুগালের। প্রথম ম্যাচে হাঙ্গেরির বিরুদ্ধে দুর্দান্ত জয়ের পর আজ অন্তত ড্র রাখতে পারলেও সুবিধা হত গত বারের চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু চার গোল হজম করার পরে গোল পার্থক্যে সমস্যা হতে পারে। গ্রুপে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে চাপ নিয়েই নামতে হবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে। বিশেষ করে মাঝমাঠ নিয়ে ভাবতে হবে কোচ ফার্নান্দোকে। দুই হোল্ডিং মিডফিল্ডার ড্যানিলো এবং কারভালো এদিন পুরো ব্যর্থ। জার্মানির হয়ে নজর কাড়লেন কাই, গসেন, নাবরী।

     জার্মানির বিরুদ্ধে পরিসংখ্যানের দিক থেকে পিছিয়ে ছিল পর্তুগাল। এদিনের আগে পর্যন্ত মোট ১৮ বারের সাক্ষাতে জার্মানরা জিতেছিল দশ বার। পর্তুগালের জয় মাত্র তিনটি। ব্রাজিল বিশ্বকাপে জার্মানদের কাছে চার গোলে পরাজিত হয়েছিল পর্তুগিজরা। আবার ২০০০ সালের ইউরো কাপে জার্মানদের ৩-০ গোলে হারিয়েছিল পর্তুগিজরা। এবারের টুর্ণামেন্টে ফ্রান্সের কাছে হেরে যাত্রা শুরু করে জার্মানি। তাই দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেতে নিজেদের উজাড় করে দিতে মরিয়া ছিল টমাস মুলার, লিরয় সানে, কিমিচ, নব্রি, কাই হাভেরটজরা। সেই সুফল পেল জার্মানরা।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: EURO 2020 Copa 2021, Euro Cup 2020

    পরবর্তী খবর