• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর সৌরভ ও সুনীল, রাজ্যে ক্রীড়া প্রতিভা বাছাই শুরু 'ড্রাইভিং গোলস'-এর

ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর সৌরভ ও সুনীল, রাজ্যে ক্রীড়া প্রতিভা বাছাই শুরু 'ড্রাইভিং গোলস'-এর

প্রাক্তন ফুটবলার ও স্থানীয় বিধায়ক দীপেন্দু বলেছিলেন," বসিরহাট থেকে আগামীর ক্রীড়া প্রতিভাকে তুলে আনতেই 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টে অংশগ্রহণ।

প্রাক্তন ফুটবলার ও স্থানীয় বিধায়ক দীপেন্দু বলেছিলেন," বসিরহাট থেকে আগামীর ক্রীড়া প্রতিভাকে তুলে আনতেই 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টে অংশগ্রহণ।

প্রাক্তন ফুটবলার ও স্থানীয় বিধায়ক দীপেন্দু বলেছিলেন," বসিরহাট থেকে আগামীর ক্রীড়া প্রতিভাকে তুলে আনতেই 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টে অংশগ্রহণ।

  • Share this:

#বসিরহাট: ওদের কেউ এসেছিল হিঙ্গলগঞ্জ থেকে। কেউ সন্দেশখালি থেকে। কেউ বা আবার হাসনাবাদ থেকে। আনলক পর্বে বসিরহাটের নিউ বাণী সংঘের মাঠে বসেছিল 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্ট। বসিরহাটের এই বাণী সংঘ ক্লাব থেকেই একটা সময় উঠে এসেছিলেন দিপেন্দু বিশ্বাসের মত তারকা ফুটবলাররা। বসিরহাট থেকে ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান, মহমেডানে দাপিয়ে খেলার পাশে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন ভারতীয় দলে। বসিরহাটের ভূমিপুত্র দীপেন্দুর উদ্যোগেই রবিবার জেএসডব্লু সিমেন্টের 'ড্রাইভিং গোলস'-এর আসর বসেছিল বাণী সংঘের মাঠে।

'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সুনীল ছেত্রী। এদিনের প্রজেক্টে অংশ নিয়েছিলেন ৬০ জন ক্ষুদে ফুটবলার। প্রাক্তন ফুটবলার সুপ্রিয় দাশগুপ্ত ও লাল্টু দাসের তত্ত্বাবধানে ৬০ জন ফুটবলারের মধ্যে এদিন বেছে নেওয়া হয় সেরা পাঁচ জন প্রতিভাকে। নজর কাড়েন বসিরহাটের স্থানীয় প্রতিভা ব্র্যাঙ্কো ঘোষ। অংশগ্রহণকারী ক্ষুদে ফুটবলারদের উদ্দেশ্যে জায়েন্ট স্ক্রিন মোটিভেশনাল বার্তা দেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সুনীল ছেত্রী।

প্রাক্তন ফুটবলার ও স্থানীয় বিধায়ক দীপেন্দু বলেছিলেন," বসিরহাট থেকে আগামীর ক্রীড়া প্রতিভাকে তুলে আনতেই 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টে অংশগ্রহণ। কোভিড আবহের জন্য ৬০ জনের বেশি ফুটবলার রাখা হয়নি। মাঠের মধ্যে স্বাস্থ্য বিধি ও স্যানিটাইজেশন পদ্ধতি মেনেই প্রতিভা বাছাইয়ের কাজ হয়েছে। ভবিষ্যতেও এই ধরনের প্রজেক্টের মাধ্যমে ক্রীড়া প্রতিভা তুলে ধরার কাজে সামিল হবে বাণী সংঘ।"

অন্যদিকে 'ড্রাইভিং গোলস' প্রজেক্টের পক্ষ থেকে শতদ্রু দত্ত জানান, "সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সুনীল ছেত্রী এই প্রজেক্টের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। দেশের ক্রীড়া ক্ষেত্রে দুই আইকনের বার্তা আগামী প্রজন্মের মধ্যে ছড়িয়ে দিয়ে নতুন প্রতিভা তুলে আনাই এই প্রজেক্টের মূল উদ্দেশ্য। আগামী দিনে বারাসত, উত্তরপাড়া, হলদিয়া-সহ রাজ্যের দশটি জায়গায় এই ধরনের প্রতিভা বাছাইয়ের শিবির আয়োজন করা হবে।"

PARADIP GHOSH 

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: