• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL CHRISTIAN ERIKSEN SUFFER CARDIAC ARREST DUE TO PFIZER VACCINE RUMORS SMJ

Euro 2020: করোনা ভ্যাকসিন নিয়েই কি কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল Christian Eriksen-এর?

ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যই মাঠে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল এরিকসনের!

ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যই মাঠে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল এরিকসনের!

  • Share this:

    #কোপেনহেগেন:

    একটা ঘটনা যেন গোটা বিশ্বকে কয়েক মিনিটের জন্য স্তব্ধ করে দিয়েছিল। গত শনিবার ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ডের ম্যাচে আচমকা মাঠে লুটিয়ে পড়েছিলেন মিডফিল্ডার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসন। ডেনমার্কের এরিকসন চিন্তায় ফেলেছিলেন বিশ্বের প্রতিটি ফুটবলভক্তকে। তাঁর সুস্থতা কামনা করেছিলেন সবাই। ডেনমার্কের ফুটবল সংস্থা জানিয়েছে, এখন আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ এরিকসন। তবে তাঁকে এখনই হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে না। বেশ কিছু টেস্ট হবে তাঁর। এরিকসনের অসুস্থতা অনেকগুলো প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। ইউরোর মতো টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ফুটবলারদের ফিটনেস টেস্ট কি ঠিকমতো হয় না! এরই মধ্যে শোনা যাচ্ছে, ইতালিতে নিজের ক্লাব ইন্টার মিলানের হয়ে আর খেলতে পারবেন না এরিকসন। কারণ, ইতালির আইন অনুযায়ী হৃদযোগে সমস্য়া থাকলে কোনও ফুটবলারকে মাঠে নামতে দেওয়া হয় না।

    এসবের মাঝে এবার আরও একটি দাবি উঠে আসছে। অনেকেই বলতে শুরু করেছেন, করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যই এরিকসনের কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল। গত দুদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই এই দাবি তুলছেন। যদিও এমন দাবির পিছনে কোনও যুক্তি নেই। কোনও তথ্য-প্রমাণও নেই তাঁদের কাছে। তবুও বলা হচ্ছে, Pfizer Corona Vaccine নেওয়ার জন্যই ২৯ বছর বয়সী ফুটবলারের কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল। আসলে এমন জল্পনার কারণ রয়েছে। চেক ফিজিও লুবো মোল দাবি করেছিলেন, ইন্টার মিলানের এক ডাক্তার একটি একটি রেডিও স্টেশনকে সাক্ষাত্কারে জানিয়েছিলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যই মাঠে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছিল এরিকসনের। লুবো মোল টুইট করে এমন দাবি করেছিলেন। তার পর থেকেই আগুনের মতো ছড়াতে থাকে এই তথ্য। অনেকেই ভ্যাকসিনকে দায়ি করতে শুরু করেন।

    ওই রেডিও স্টেশনের তরফে অবশ্য জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ইন্টার মিলানের কোনও ডাক্তার তাঁদের সাক্ষাত্কার দেননি। এমনকী গুগলের মতো সংস্থার তরফেও জানানো হয়েছে, ভ্যাকসিনের সঙ্গে এরিকসনের অসুস্থতা জড়িয়ে কোনও ভুয়া তথ্য ছড়ানো হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসব কাণ্ডের পর চেক ফিজিও লুবো মোল টুইট মুছে ফেলেছেন। লুবো মোল দাবি করেছিলেন, ৩১ মে এরিকসনকে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। ইন্টার মিলানের তরফে জানানো হয়েছে, এরিকসনকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়নি। কেউ বা কারা অকারণে ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে।

    Published by:Suman Majumder
    First published: