টিম হোটেল থেকে সমর্থকদের বাইক র‍্যালি, রবিবার যুবভারতীতে এটিকে-বেঙ্গালুরু ‘মেগা ম্যাচ’

টিম হোটেল থেকে সমর্থকদের বাইক র‍্যালি, রবিবার যুবভারতীতে এটিকে-বেঙ্গালুরু ‘মেগা ম্যাচ’

যুবভারতীতে এটিকে-র সমর্থনে বাগান সমর্থকরা। রয় কৃষ্ণাদের তাতাতে হোটেল থেকে বাইক র‍্যালি। ফাইনালে যেতে জিততেই হবে হাবাসের দলকে।

  • Share this:

#কলকাতা: টিম হোটেল থেকে সমর্থকদের বাইক মিছিল। যুবভারতীতে টিমবাস ঢোকার সময়ে ফ্যান ক্লাবের ফায়ার শো। রসদ সবই মজুত। সম্ভাবনাও রয়েছে প্রবল। তবু না আঁচালে বিশ্বাস নেই। ছয়ের আইএসএলের ফাইনালের ছাড়পত্র পেতে যুবভারতীতে জিততেই হবে টিম এটিকে-কে। কান্তিরাভার প্রথম লেগের ম্যাচে গোল ছাড়া সবটাই করেছেন রয় কৃষ্ণা, এডু গার্সিয়ারা। ডেভিড উইলিয়ামস তো গোলও করে ফেলেছিলেন। হ্যান্ডবলের কারণে বাতিল হওয়াতেই কপাল পুড়েছে দু'বারের চ্যাম্পিয়নদের।

রবিবার যুবভারতীতে দ্বিতীয় সেমিফাইনালের ফিরতি লেগের ম্যাচ। ঘরের মাঠে উপচে পড়া যুবভারতীতে মাইন্ডগেমে এগিয়ে থেকেই শুরু করবেন প্রবীর দাস, প্রীতম কোটালরা। কলকাতার চুঁইয়ে পড়া আত্মবিশ্বাসে কাঁটার মতই বিঁধে রয়েছে কান্তিরাভার হারটা। কার্লোস কুয়াদ্রাতের বিরুদ্ধে হারের দগদগে ঘা শুকোতে রবিবার যে কোন মূল্যে জয় চাইছেন স্প্যানিয়ার্ড। প্রাক-ম্যাচ সাংবাদিক সম্মেলনে এসে অ্যান্তোনিও লোপেজ হাবাস বলে গেলেন,‘কোনরকম ভাবেই গোল খাওয়া যাবে না। গোল করাটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু গোল খেলেই আরও সমস্যা।’ রয় কৃষ্ণা, ডেভিড উইলিয়ামস, এডু গার্সিয়া, সুশাইরাজদের নিয়ে তৈরি এটিকে-র আপফ্রন্ট যথেষ্ট শক্তিশালী। ০-১ স্কোরলাইনের ঘাটতি মেটানোটা তাই খুব একটা কঠিন কিছু নয়।

কলকাতায় পৌঁছনোর পর থেকে তাল ঠোকা শুরু করেছে বেঙ্গালুরুও। অনুশীলনে মেজাজেই ছিলেন সুনীল ছেত্রী, এরিক পার্তালু, ডেশর্ন ব্রাউনরা। যুববভারতীতে ম্যাচ ড্র রাখতে পারলেই ফাইনাল পাকা। এটাই মাথায় ঘুরছে গুরপ্রীত সিং, আশিক কুরিয়ান, রাফায়েল অগস্তুদের। লালকার্ড দেখায় ফিরতি লেগের সেমিফাইনালে ফর্মে থাকা নিশুকুমারকে পাবে না বেঙ্গালুরু। পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছে, আইএসএলে সব থেকে কম ১৩ গোল খেয়েছেন সুনীল ছেত্রীরা। রবিবাসরীয় যুবভারতীতে লড়াইটা তাই এটিকে-র আপফ্রন্টের বিরুদ্ধে বেঙ্গালুরুর ডিফেন্সের। টক্করটা সেয়ানে সেয়ানে। এটিকে কোচ হাবাসের গলাতেও যেন তারই সুর। বলছেন,‘ম্যাচটা জিতে ফাইনালে পৌঁছতে চাই। কোচ হিসেবে আমার কাজ দলটাকে তৈরি করে রাখা। সমর্থকরা পাসে থাকুন। আমরা তৈরি চ্যালেঞ্জটা নেওয়ার জন্য।’ তৈরি রয় কৃষ্ণা, এডু গার্সিয়াও।

মাঠের বাইরে তৈরি যুবভারতীর গ্যালারিও। দলের মনোবল বাড়াতে টিম হোটেল থেকেই রবিবার দুপুরে একশো বাইকের মিছিল করবে এটিকে ফ্যানস ক্লাব। যুবভারতীতে রয় কৃষ্ণাদের স্বাগত জানাতেও সারপ্রাইজ প্যাকেজ তৈরি এটিকে সমর্থকদের। এটিকে-মোহনবাগান গাঁটছড়া হয়ে যাওয়ায় রবিবারের যুবভারতীতে এটিকের হয়ে গলা ফাটাতে হাজির থাকবেন সবুজ-মেরুন ক্লাবকর্তা ও সমর্থকরাও। রবিবার যুবভারতীতে আধুনিকতার লাল-সাদার সঙ্গে মিশবে ঐতিহ্যের সবুজ-মেরুন।

PARADIP GHOSH

First published: March 7, 2020, 7:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर