• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL ATK MOHUN BAGAN COACH HABAS RETURNS TO SPAIN AFTER QUALIFYING FOR AFC CUP ZONAL SEMI FINAL RRC

ATK MB Habas : মোহনবাগান ফুটবলারদের ছুটি দিয়ে স্পেনে ফিরলেন হাবাস

ছুটি কাটাতে যাবেন কৃষ্ণ, বুমুরা

ATK Mohun Bagan coach Antonio Lopez Habas returns to Spain. দেশে ফিরে গিয়েছেন ম্যানেজার অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাস। আপাতত ফুটবলারদের দুই সপ্তাহ বিশ্রাম। এদিকে কলকাতা লিগে খেলবে না এটিকে মোহন বাগান

  • Share this:

    #মেল: মালদ্বীপে এফসি কাপের তিনটি ম্যাচ খেলা হয়ে গিয়েছে এটিকে মোহনবাগানের। সবুজ মেরুন শিবির পরের রাউন্ডে পৌঁছে গিয়েছে। প্রথম ম্যাচে বেঙ্গালুরু, দ্বিতীয় ম্যাচে মজিয়াকে হারায় এটিকে মোহনবাগান। তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের বসুন্ধরা কিংস দলের বিরুদ্ধে ড্র হয় ম্যাচ। তাতেও সাত পয়েন্ট নিয়ে জোনাল প্লে অফ সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে কলকাতার দল।

    বুধবার দেশে ফিরে গিয়েছেন ম্যানেজার অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাস। আপাতত ফুটবলারদের দুই সপ্তাহ বিশ্রাম। এদিকে কলকাতা লিগে খেলবে না এটিকে মোহন বাগান। তারা এই সিদ্ধান্ত আইএফএ’কে জানিয়ে দিয়েছে। সবুজ-মেরুন ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আমাদের ছ’জনের বেশি ফুটবলার ভারতীয় দলে রয়েছে। ফলে আইএফএ’র নিয়ম অনুযায়ী লিগে খেলা সম্ভব নয়। সবচেয়ে বড় কথা,জৈব সুরক্ষা বলয় ছাড়া দলের বিদেশি ফুটবলাররা খেলতে নারাজ। ঘরোয়া লিগে সেই বলয় মানা হচ্ছে না।’

    লিগ ভুলে এএফসি কাপে ভাল পারফরম্যান্স করাই লক্ষ্য রয় কৃষ্ণদের। এই আন্তর্জাতিক ফুটবলের সঙ্গে ভারতের সম্মান জড়িয়ে রয়েছে। ২২ সেপ্টেম্বর জোনাল সেমি-ফাইনাল উজবেকিস্তানে খেলবে এটিকে মোহন বাগান। মালদ্বীপে খেলা শেষ করার ফুটবলারদের ছুটি দিয়েছেন কোচ হাবাস। স্প্যানিশ ফুটবলাররা দেশে ফিরে গিয়েছেন। রয় কৃষ্ণ, ডেভিড উইলিয়ামস, হুগো বোমাস বেড়াতে যাবেন। ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছুটি দেওয়া হয়েছে ফুটবলারদের। পরের দিন রিপোর্টিং।

    হাবাস টার্গেট করেছেন এএফসি কাপে ভাল কিছু করার। ২২ সেপ্টেম্বর উজবেকিস্তানের এফসি নাসাফের বিরুদ্ধে খেলতে হবে আইএসএল রানার্সআপ দলকে। উজবেকিস্তানের লিগে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করা এই দলটি তুর্কেমেনিস্তানের এফসি আহালকে ৩-২ গোলে পরাজিত করেছে। দলে মাত্র তিন জন বিদেশি। একজন বুরকিনা ফাসো, অন্য দু'জন সার্বিয়ার।

    দলের কোয়ালিটি এবং ওজনে মোহনবাগানের থেকে অনেক এগিয়ে নাসাফ। ২০১১ সালে এফসি কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তাঁরা। ভারতের ডেম্পোকে বড় ব্যবধানে হারানো ছাড়াও কুয়েতের আল কুয়েতকে ফাইনালে হারিয়েছিল তারা। তবে চ্যালেঞ্জ নিতে ভয় পান না হাবাস। হাতে অনেক সময় আছে। তার মধ্যে হুগো বুমু, সুসাইরাজদের তৈরি করে নেওয়া যাবে। প্রতিপক্ষের নাম দেখে ভয় পেতে রাজি নন স্প্যানিশ কোচ। নিজেদের লক্ষ্যে অবিচল থেকে এগিয়ে যেতে চান তিনি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: