• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL 5 YEAR OLD PSYCHIC LION IN THAILAND ZOO PREDICTING EURO CUP SCORELINE CORRECTLY RRC

Euro 2020 : পাঁচ বছরের সিংহ করছে ইউরোর সঠিক ভবিষ্যদ্বাণী !

পলের পর বয়, মিলিয়ে দিচ্ছে ম্যাচের ফল

থাইল্যান্ডে উত্তর–পূর্ব অঞ্চলের এক চিড়িয়াখানায় বাস বয় নামের এই সিংহের। পাঁচ বছর বয়সী বয় এবার ইউরোতে সফলভাবে চারটি ম্যাচের ভবিষ্যদ্বাণী করেছে

  • Share this:

    #ব্যাংকক: বিশ্বকাপ বা ইউরো কাপের মত ফুটবল যজ্ঞ শুরু হলে বিভিন্ন প্রাণীদের দিয়ে ম্যাচের ফলের ভবিষ্যদ্বাণী করানোর প্রথা নতুন নয়। অক্টোপাস পল ২০১০ বিশ্বকাপে তার ক্যারিশমা দেখিয়েছিল। ২০১৪ ও ২০১৮ বিশ্বকাপে সে পথে হেঁটেছে উট শাহিন। ২০১৮ সালেই অবশ্য যোগ্য এক প্রতিদ্বন্দ্বী পেয়েছিল শাহিন। অ্যাকিলিস নামে এক বিড়াল তাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছিল এ কাজে। ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হলে ভবিষ্যদ্বক্তার খোঁজ মেলে। প্রাণিজগৎ থেকে এমন ভবিষ্যদ্বক্তা খোঁজার নেশায় এবার নেমেছে থাইল্যান্ড।

    তবে আগের সব ভবিষ্যদ্বক্তার চেয়ে ‘বয়’ একটু আলাদা। প্রাণী রাজ্যের রাজাই যখন ভবিষ্যদ্বাণী করে, তখন তো গুরুত্ব দিতেই হয়। থাইল্যান্ডে উত্তর–পূর্ব অঞ্চলের এক চিড়িয়াখানায় বাস বয় নামের এই সিংহের। পাঁচ বছর বয়সী বয় এবার ইউরোতে সফলভাবে চারটি ম্যাচের ভবিষ্যদ্বাণী করেছে। ম্যাচের সম্ভাব্য বিজয়ী ঘোষণা করার ধরনে অবশ্য বয় আর সবার মতোই। তার সামনে রাখা খাবার থেকে যাকে বেছে নেয়, সে দলকেই বিজয়ী বলে ভেবে নেওয়া হয়।

    বয়ের ক্ষেত্রে দুটি দলের জাতীয় পতাকার সঙ্গে মাংস ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। বয় এর যেকোনো একটি বেছে নিলেই, ব্যস! প্রথম রাউন্ডে চারটি ম্যাচেই সফল হয়েছে বয়। ফ্রান্স যে জার্মানিকে হারাবে, সেটা সে আগেই ধারণা করেছিল। ইংল্যান্ডের ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে জয়, নেদারল্যান্ডসের প্রথম ম্যাচের জয় ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোদের হাঙ্গেরিকে হারানোর খবরও দিয়েছিল এই সিংহ। এখন পর্যন্ত তার ক্ষমতার বাইরে গিয়ে কিছু করতে পেরেছে সুইডেন। বয়ের ‘স্পেনই জিতবে’, এই ভবিষ্যদ্বাণী মিথ্যা হয়েছিল সেদিন।

    পর্তুগালের বিপক্ষে জার্মানিকেই বিজয়ী বলেছিল বয়। এমনিতে নিজের দিক থেকে বেশ শান্তশিষ্ট। বাধ্য এবং অনুগত। বয় এত সঠিকভাবে খেলার ফল ভবিষ্যদ্বাণী করে দেবে আন্দাজ করতে পারেনি কেউ। থাইল্যান্ডের ওই চিড়িয়াখানায় এই সিংহকে দেখতে রীতিমত ভিড় জমছে। বয়ের অবশ্য ভ্রুক্ষেপ নেই কোনদিকে। মাংস পেলেই আর কিছু চায় না সে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: