• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Duare Ration: দুয়ারে নয়, দোকানে রেশন! রাজ্যের প্রকল্পের বিরোধিতায় অনড় ডিলাররা, ফের জটিলতা

Duare Ration: দুয়ারে নয়, দোকানে রেশন! রাজ্যের প্রকল্পের বিরোধিতায় অনড় ডিলাররা, ফের জটিলতা

দুয়ারে রেশন প্রকল্প নিয়ে অনিশ্চয়তা৷ প্রতীকী চিত্র

দুয়ারে রেশন প্রকল্প নিয়ে অনিশ্চয়তা৷ প্রতীকী চিত্র

আগামী ২৫ অক্টোবর রাণী রাসমণি রোডে সভা করবে জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার অ্যাসোসিয়েশন (Daure Ration project)।

  • Share this:

    #কলকাতা: দুয়ারে রেশন প্রকল্পে (Duare Ration) যোগ না দেওয়ার বিষয়ে এখনও অনড় রেশন ডিলারদের সংগঠন। সংগঠনের তরফে সমাবেশ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, চলতি মাসের পাইলট প্রজেক্টেও তারা কেউ অংশগ্রহণ করবেন না।

    আগামী ২৫ অক্টোবর রাণী রাসমণি রোডে সভা করবে জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনের জোরালো বক্তব্য, কর্মীর অভাব, করোনা পরিস্থিতি ও বাড়ি গিয়ে রেশন দেওয়ায় তাদের ক্ষতি। এই তিন কারণেই তারা দুয়ারে রেশন (Duare Ration) প্রকল্পে যোগ দেবেন না। পরিবর্তে দোকানে রেশন চালু রাখা হোক৷

    আরও পড়ুন: স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড নিয়ে তৎপর নবান্ন! জেলাশাসকদের দেওয়া হল গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ...

    'দুয়ারে নয়, দোকানে রেশন', পালটা প্রচার শুরু করে দিল রেশন ডিলারদের জয়েন্ট ফোরাম (Dealers oppose Duare Ration project)৷ সংগঠনের বক্তব্য, সেপ্টেম্বর মাসে ১৫% পাইলট প্রজেক্টের মাধ্যমে আমরা অংশগ্রহণ করেছিলাম। সেই কাজ করতে গিয়ে নানা ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে তাদের। বাড়িতে রেশন নেওয়ার ব্যাপারে গ্রাহকরা অনেকেই অনীহা প্রকাশ করেছেন৷ পাইলট প্রজেক্ট দীর্ঘদিন ধরে চলতে পারে না। এই প্রকল্প কার্যকর করা সম্ভব নয়। কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জয়েন্ট ফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু জানিয়েছেন, "আমাদের অভিজ্ঞতা হল অতিরিক্ত ব্যয়ভার এবং আনুষাঙ্গিক যা ক্ষতি হয়েছে সেগুলি যথাযথ হিসেব নিকেশ করে আমাদের ন্যায্য প্রাপ্যটুকু অবিলম্বে দিয়ে দেওয়া হোক।"

    একই সঙ্গে তাদের অভিযোগ,  একতরফা ভাবে ''দুয়ারে রেশন"- এর ক্লাস্টার গঠন করে দেওয়া হয়েছে। তাই 'দুয়ারে নয় দোকানে রেশন' নিয়ে প্রচার শুরু করল রেশন ডিলার সংগঠন।

    উৎসবের মরসুমে, চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহেই চালু হওয়ার কথা দুয়ারে রেশন প্রকল্প। পাইলট প্রজেক্ট হিসেবেই কাজ শুরু করেছে রাজ্যের দুয়ারে রেশন প্রকল্প। তবে বেশ কিছু বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হইনি বলেই জানাচ্ছেন রেশন ডিলারদের সংগঠন।

    এরই মধ্যে প্রতি কুইন্টালে ৫০ টাকা কমিশন বাড়াল রেশন ডিলারদের । বায়োমেট্রিক করতে হলে মিলবে আরও ২৫ টাকা কুইন্টাল প্রতি। এখন কমিশন মেলে প্রতি কুইন্টালে ৭৫ টাকা করে৷ ডিলারদের দাবি ছিল সব মিলিয়ে ২০০ টাকা। সেটি হয়েছে আপাতত ১২৫ টাকা। রাজ্য সরকার নোটিফিকেশন জারি করে এটা জানিয়ে দিয়েছে। তবে কমিশন বাড়লেও তাতে খুশি নয় রেশন ডিলারদের সংগঠন।

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: