Exclusive: ইডেন থেকেই নিউজিল্যান্ড সফরের প্রস্তুতি শুরু, মুখোমুখি হনুমা বিহারী

Exclusive: ইডেন থেকেই নিউজিল্যান্ড সফরের প্রস্তুতি শুরু, মুখোমুখি হনুমা বিহারী

রঞ্জি ম্যাচ খেলতে কলকাতায় এসেছেন হনুমা বিহারী। অনুশীলনের শেষে শুধুমাত্র নিউজ18 বাংলার মুখোমুখি বিরাট সতীর্থ অন্ধ্র অধিনায়ক হনুমা বিহারী

  • Share this:

EERON ROY BARMAN

#কলকাতা: ভারতের বর্তমান টেস্ট দলের নিয়মিত সদস্য, সাত ম্যাচে ৪৬৬ রান, ৫ উইকেট। টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটিং অলরাউন্ডার। সোমবার ঘোষিত ভারতীয় 'এ' দলের হয়ে নিউজিল্যান্ড সফরে এক ম্যাচে অধিনায়কত্ব করার সুযোগ পেয়েছেন। যখনই সুযোগ এসেছে তখনই নিজেকে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন অন্ধপ্রদেশের এই ক্রিকেটার। রঞ্জি ম্যাচ খেলতে কলকাতায় এসেছেন হনুমা বিহারী। অনুশীলনের শেষে শুধুমাত্র নিউজ18 বাংলার মুখোমুখি বিরাট সতীর্থ অন্ধ্র অধিনায়ক হনুমা বিহারী।

২০১৯ ক্রিকেট মরশুম কেমন কাটল ?

এই বছরটা ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য খুব ভালো কেটেছে। আমিও যতটা সুযোগ পেয়েছি কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছি। ভবিষ্যতেও যা সুযোগ পাব, সেখানে দলের জন্য নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।

টি-টোয়েন্টি, একদিনের দল বা আইপিএলে নেই! শুধু দেশের হয়ে টেস্ট খেলেন। নিজেকে মোটিভেট করতে অসুবিধা হয় না?

এই বিষয় নিয়ে আমি একদমই ভাবি না। অনেকেই আছেন যাঁরা শুধু টেস্ট খেলেন। আমি নিজের উপর বিশ্বাস রাখি। যখনই খেলার সুযোগ পাই, সেখানে অবদান রাখার চেষ্টা করি। দলকে জেতানোর টার্গেট নিয়ে সব সময় মাঠে নেমেছি। বাকি কোনও বিষয়ে আমি মাথা ঘামাই না।

ক্রিকেট কেরিয়ারে টার্নিং পয়েন্ট কোনটা ?

আমার মনে হয় মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওপেন করতে নামাটা একটা টার্নিং পয়েন্ট। ময়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে ওপেন করতে নেমেছিলাম। টিম ম্যানেজমেন্ট যখন বলেছিল প্রথমে কিছুটা ঘাবড়ে গিয়েলাম। তবে ব্যাট করতে নেমে আত্মবিশ্বাস ফিরে পাই। বড় রান করতে না পারলেও নতুন বলটা খেলে দিয়েছিলাম। ইনিংসটা থেকে অনেক কিছু শিখতে পেরেছিলাম। পরবর্তী সময়ে সেই অভিজ্ঞতা থেকে মিডিলঅর্ডারে ব্যাট করতে নেমে পারফর্ম করেছি।

জাতীয় দলে প্রথম একাদশে জায়গা পাওয়াটা কতটা কঠিন?

ভারতীয় দলে একটা সুস্থ প্রতিযোগিতা রয়েছে। সুযোগ পাওয়াটা সবসময়ই চ্যালেঞ্জিং। আমি যখনই সুযোগ পেয়েছি, পারফর্ম করার চেষ্টা করেছি।

ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি অফ স্পিন বোলিংয়ে কি জোর দিচ্ছেন দলে নিয়মিত হওয়ার জন্য?

আমি মূলত ব্যাটসম্যান, কিন্তু ভবিষ্যতে বোলিংয়েও জোর দিতে চাই। সুযোগ পেলে অন্ধ্রের হয়ে বোলিং করি।

আগামী বছরের শুরুর দিকেই নিউজিল্যান্ড সফর। কীভাবে প্রস্তুতি নেবেন?

এখনও আলাদা করে কোনও প্রস্তুতি শুরু করিনি। তবে রঞ্জিতে যদি ঘাসের উইকেটে ম্যাচ হয়, তাহলে প্রস্তুতি ভাল হবে। যেমন ইডেনের উইকেট দেখলাম গ্রিনটপ। এই পিচে ব্যাট করতে পারলে নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি সারা সম্ভব। আমি চাইব বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচে যতটা সম্ভব ব্যাট করতে।

ড্রেসিংরুমে অধিনায়ক বিরাটের উপস্থিতি বাড়তি মোটিভেশন জোগায়? কীভাবে কোহলি মোটিভেট করেন আপনাকে?

ড্রেসিংরুমে বিরাটের উপস্থিতি-ই বাড়তি মোটিভেশন। বেশিরভাগ রেকর্ডই বিরাটের পক্ষে। বিরাটকে দেখলেই আত্মবিশ্বাস বাড়ে। অধিনায়ক হিসেবে রেকর্ড কোহলির পক্ষে কথা বলছে। সব সময় ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেন। চাপমুক্ত ড্রেসিংরুম রাখার চেষ্টা করেন।

ইডেনে গোলাপি বল টেস্ট খেলা হয়নি। তবে একমাসের মধ্যেই বড়দিনে বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জিতে নামছেন। বিপক্ষ বাংলা দল নিয়ে কী বলবেন?

ইডেনে খেলাটা সবসময়ই বাড়তি অনুভূতি। গোলাপি বল টেস্টে খেলার সুযোগ পাইনি। টিম কম্বিনেশনে জায়গা পায়নি। সেটা নিয়ে কিছু বলার নেই। শেষ ম্যাচে আমরা সরাসরি জয় পেয়েছি, বাংলা দলও জিতেছে। কেউ এগিয়ে বা পিছিয়ে নেই। আশা করি একটা ভাল ম্যাচ হবে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চালু হওয়ায় প্রতিযোগিতা কি আরও বেড়েছে?

একদম ! অনেকটাই প্রতিযোগিতা বেড়েছে দলগুলির মধ্যে। সব দলই সব টেস্ট ম্যাচ জিততে চাইছে। অনেক সময় ঘরের মাঠে ৫ বোলার নিয়ে খেলেছে ভারতীয় দল। সে ক্ষেত্রে আমি সুযোগ পাইনি। এই প্রতিযোগিতাটা তো আছেই। তবে আমি আবারও বলছি, যখনই সুযোগ পাব সেটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করব।

নতুন বছরে কোনও টার্গেট?

নতুন কোনও টার্গেট নেই ! নিজের সেরাটা সব সময় দিতে চাই। দলের প্রয়োজনে কাজে লাগতে চাই। হেডলাইন-

First published: 09:41:02 PM Dec 23, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर