নাকে অক্সিজেন নল, পাশেই রাখা কনসেনট্রেটর মা করছেন রান্না, খাবার পৌঁছে দিতে চান Virender Shewag

Mother preparing food though she is on Oxygen support - Photo Courtesy- Virender Shewag/ Twitter

সেহওয়াগ ছবি শেয়ার করে জানিয়েছিলেন ‘‘মা মা হোতি হ্যায়, ইসে দেখকর আঁসু আ গেই৷ ’’

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ভারতে করোনা ভাইরাস মহামারি  (Coronavirus)- দ্বিতীয় ঢেউ একেবারে বিধ্বস্ত করে দিচ্ছে৷ আর এই সেকেন্ড ওয়েভে অক্সিজেনের যোগান নিয়ে প্রচণ্ড টানাপোড়েন তৈরি হয়েছে৷ বহু মানুষ অক্সিজেনের যোগান না পেয়ে মৃত্যু অবধি হয়েছে৷ অক্সিজেনের কম হওয়ার দরুণ একাধিক মানুষ সাহায্যের হাত নিয়ে এগিয়ে এসেছেন৷ যেমন বহু সাধারণ মানুষ তেমনিই বহু সেলিব্রিটিও এগিয়ে এসেছেন৷ এই রকম  ভাবেই নিজের সাধ্যের মধ্যে থেকে সাধারণ মানুষের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ  (Virender Sehwag) ৷

    বীরেন্দ্র সেহওয়াগ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ও কোভিড ১৯ রোগী ও তাঁর পরিবারের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা সবই করে যাচ্ছেন নিরবিচ্ছিন্নভাবে৷ তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে এও জানিয়েছেন যে যাঁদের এই ধরণের সাহায্য লাগবে তাঁরা যেন তাঁর ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন৷

    সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক মায়ের ছবি ভাইরাল হয়েছে৷ সেই ছবিটাই শেয়ার করেছেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগও৷  সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া মায়ের ছবিতে দেখা যাচ্ছে মায়ের নাকে গোঁজা রয়েছে নল আর পাশে রাখা হয়েছে অক্সিজেন কনসেনট্রেটর৷ সেখান থেকে অক্সিজেন নিতে নিতেই পরিবারের জন্য তিনি রান্না করে যাচ্ছেন৷ এই ছবিতে প্রাথমিক ভাবে আনকনডিশানাল লাভ অর্থাৎ স্বার্থহীণ ভালোবাসা লেখা থাকলেও নেটিজেনরা এটা মোটেই ভালোভাবে নেননি৷  কতটা প্রবল শরীর খারাপ থাকলে একটি একজন মানুষকে অক্সিজেন কনসেনট্রেটর থেকে প্রশ্বাস নিতে হয় তা নিয়েই মানুষ রেগে আগুন৷ নেটিজেনদের সাফ প্রশ্ন ছিল কী করে একজন এতটা অসুস্থ হওয়া সত্ত্বেও রান্না করতে হচ্ছে তা নিয়ে তাঁরা সমালোচনায় মুখর হন৷

    সেহওয়াগ ছবি শেয়ার করে জানিয়েছিলেন ‘‘মা মা হোতি হ্যায়, ইসে দেখকর আঁসু আ গেই৷ ’’

    এবার সেহওয়াগ উঠে প়ড়ে লেগেছেন কে এই মা সন্ধান করার জন্য৷ তিনি একটি ফোন নম্বর দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করে জানিয়েছেন যে পরিবারের তিনি মা তাঁদের জন্য খাবার পাঠাবেন সেহওয়াগ৷

    আসলে সেহওয়াগের ফ্যানরাই হয়ত নজফগড়ের নবাবের চোখ খুলিয়ে দিয়েছে৷ সেখানে তাঁকে লোকে স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন যে মায়ের কাজ হিসেবে এটাকে বেশি গৌরবান্বিত না করে কেন তাঁর পরিবারের কেউ কাজ করছে না৷ এরপরেই সেহওয়াগ ওই পরিবারের সাহায্যের জন্য হাত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

    ২৪ মে ২০২১ অবধি ভারতে করোনা ভাইরাসে এখনও অবধি ৩ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়েছে৷ গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় স্ট্রেনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল৷ আর এই মামলা বাড়তে বাড়তে এক হাজার থেকে দৈনিক চার হাজারও পেরিয়ে গিয়েছিল৷ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পিক আমরা পার করে নিয়েছি৷ নতুন করে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ক্রমশই কমে চলেছে৷ সোমবার সকালে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ি গত ২৪ ঘণ্টায় ২.২২ লক্ষ নতুন করোনা সংক্রমণের কেস সামনে এসেছে৷ আর মৃত্যু হয়েছে ৪.৪৫৪ জনের৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: