Home /News /south-bengal /

BJP West Bengal: বঙ্গ বিজেপি-তে আরও বড় বিদ্রোহ? ঠাকুরবাড়িতে শান্তনুর সঙ্গে বৈঠকে বিক্ষুব্ধ নেতারা

BJP West Bengal: বঙ্গ বিজেপি-তে আরও বড় বিদ্রোহ? ঠাকুরবাড়িতে শান্তনুর সঙ্গে বৈঠকে বিক্ষুব্ধ নেতারা

শান্তনুর সঙ্গে জয়প্রকাশ, সায়ন্তনদের বৈঠকে জল্পনা৷

শান্তনুর সঙ্গে জয়প্রকাশ, সায়ন্তনদের বৈঠকে জল্পনা৷

রাজ্য বিজেপি-র নতুন রাজ্য কমিটিতে মতুয়াদের প্রতিনিধিত্ব না থাকা নিয়ে এমনিতেই ক্ষুব্ধ শান্তনু ঠাকুর (Shantanu Thakur)৷

  • Share this:

#বনগাঁ: ক্রমেই কি বঙ্গ বিজেপি-তে (BJP West Bengal) বিদ্রোহের আঁতুড়ঘর হয়ে উঠছে ঠাকুরনগরের মতুয়া ঠাকুর বাড়ি? কারণ মতুয়া সম্প্রদায়ের বিদ্রোহী বিধায়কদের পর এবার ঠাকুরনগরে গিয়ে কেন্দ্রীয় জাহাজ প্রতিমন্ত্রী ও বনগাঁর সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের (Shantanu Thakur) সঙ্গে বৈঠক সারলেন বঙ্গ বিজেপি-র বিক্ষুব্ধ নেতারা৷

সূত্রের খবর, রবিবার হওয়া এই বৈঠকে হাজির ছিলেন কয়েকদিন আগে বিজেপি-র রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়া বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা৷ উপস্থিত ছিলেন জয়প্রকাশ মজুমদার, রীতেশ তিওয়ারি, সমীরণ সাহা, সায়ন্তন বসুর মতো নেতারা৷

আরও পড়ুন: অক্সিজেনের মাত্রা কমতেই হাসপাতালে, পরীক্ষা করতেই করোনা ধরা পড়ল সুকান্তরও

রাজ্য বিজেপি-র নতুন রাজ্য কমিটিতে মতুয়াদের প্রতিনিধিত্ব না থাকা নিয়ে এমনিতেই ক্ষুব্ধ শান্তনু ঠাকুর৷ বিজেপি রাজ্য নেতৃত্বের উপরে নিজের অসন্তোষ ব্যক্ত করে দলের রাজ্য সংগঠনের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েও বেরিয়ে গিয়েছেন তিনি৷ এবার তাঁর সঙ্গে রাজ্যের বিক্ষুব্ধ নেতাদের বৈঠকে বিষয়টি অন্য মাত্রা পেল৷ বিজেপি-র অন্দরে বিদ্রোহের বীজ যে ক্রমশ বাড়ছে, এ দিনের বৈঠকের পর তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না৷

আরও পড়ুন: 'আগেই বলেছিলাম...' BJP-র সাফল্যে আশাবাদী হলেও সতর্কতায় জোর দিলীপ ঘোষের

বিজেপি-র অন্দরের খবর, কয়েকদিন আগে গত ৩০ ডিসেম্বর ২০২১, সল্টলেকে জয়প্রকাশ মজুমদারের বাড়িতে গিয়ে বৈঠক করেছিলেন প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সহ সভাপতি পদে থাকা দুই নেতাই নতুন রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন৷ সূত্রের খবর, পরে বিজেপি নেতৃত্ব জানতে পারেন সরাসরি কথা না হলেও ভার্চুয়ালি জয়প্রকাশ মজুমদার সহ বিক্ষুব্ধ নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হয় শান্তুনু ঠাকুরের৷ তার পরই এ দিন ঠাকুরনগরে বৈঠক হওয়ায় দুইয়ে দুইয়ে চার করে নিচ্ছেন অনেকেই৷ যদিও এ দিনের বৈঠকে প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন না৷

জয়প্রকাশ মজুমদার ছাড়াও এ দিন ঠাকুরনগরের বৈঠকে হাজির ছিলেন দলের আরও তিন পুরনো নেতা রীতেশ তিওয়ারি, সায়ন্তন বসু এবং সমীরণ সাহা৷ প্রত্যেকেই দলের পুরনো নেতা হওয়া সত্ত্বেও দলের সদ্য গঠিত রাজ্য কমিটিতে জায়গা পাননি৷

তবে এ দিনের বৈঠক নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি কোনও নেতাই৷ তবে কয়েকদিন আগেই মতুয়া সম্প্রদায়ের বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠকের পর শান্তনু ঠাকুর জানিয়েছিলেন, সময় মতোই সব বলবেন তিনি৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: BJP, Shantanu Thakur

পরবর্তী খবর