Home /News /south-bengal /
বাঘে-মানুষে টানাটানি! সঙ্গীদের প্রবল সাহসিকতায় বেঁচে ফিরলেন কুলতলির তাপস ধীবর

বাঘে-মানুষে টানাটানি! সঙ্গীদের প্রবল সাহসিকতায় বেঁচে ফিরলেন কুলতলির তাপস ধীবর

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

বরাতজোরে বাঘের আক্রমণের মুখে পড়লেও সতীর্থদের সাহসিকতায় মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে ফিরলেন কুলতলির এক ধীবরI

  • Share this:

    #কুলতলী: বরাতজোরে  বাঘের আক্রমণের মুখে পড়লেও সতীর্থদের  সাহসিকতায় মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে ফিরলেন কুলতলির এক ধীবরI স্থানীয় দেউলবাড়ি-দেবীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বাসিন্দা তাপস মণ্ডল-সহ ছ'জনের একটি ধীবর দল গত বুধবার নৌকা নিয়ে রওনা দিয়েছিলেন সুন্দরবনের নদীতে-খাড়িতে কাঁকড়া ধরার উদ্দেশ্যেI কয়েকদিন ধরেই দলটি নির্বিঘ্নেই কাঁকড়া ধরেI এ পর্যন্ত সব ঠিকই চলছিল। কিন্তু আক্রমণের মুখে পড়েন শুক্রবার জ্বালানির কাঠ সংগ্রহে গিয়ে।

    ধীবর দলের এক সদস্য জানিয়েছেন, শুক্রবার কাঁকড়া ধরার পরে রান্নার জন্য শুকনো জ্বালানির কাঠ সংগ্রহ করতে কলস দ্বীপের কাছে জঙ্গলে নেমেছিলেন সকলে। ঠিক তখনই একটি বাঘ অতর্কিতে হানা দেয়। এক লাফে দলের সদস্য তাপস মণ্ডলের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তাপসের ঘাড়ে ও পিঠে কামড় বসিয়ে দেয়I ঠিক তখনই সাথে থাকা সঙ্গীরা ভয় না পেয়ে সঙ্গী ধীবরকে বাঁচাতে লাঠিসোটা নিয়ে বাঘটিকে পাল্টা ভয় দেখাতে শুরু করেন। প্রবল চিৎকার জুড়ে দেন সকলেI সেখানেই হয় বাজিমাত। একত্রিত বাধার মুখে পড়ে কার্যত দিশেহারা হয়ে পড়েন দক্ষিণরায়। শিকারকে ছেড়ে নিমেষেই কলসের জঙ্গলের পালিয়ে যায়I

    সঙ্গী ধীবররা কোনও সময় নষ্ট না করে রক্তাক্ত তাপসকে উদ্ধার করে নৌকায় চাপিয়ে করে দীর্ঘ ছয় ঘন্টা নদীপথে নিয়ে যান কুলতলির জামতলায় ব্লক গ্রামীণ হাসপাতালেI সেখানেই দ্রুত চিকিৎসা শুরু করেন হাসপাতালের চিকিৎসকেরাI  পরে ধীবরদের দলে থাকা তপন পিয়াদা বলেন, "যখন আমরা নৌকা থেকে নেমে জ্বালানি কাঠ সংগ্রহ করার জন্য যাচ্ছিলাম তখনই বাঘটি  একলা পেয়ে তাপসের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং ওকে ধরে নিয়ে জঙ্গলে নিয়ে যাওয়ার  চেষ্টা করতে থাকেI আমরা সবাই মিলে বাধা দেওয়ায় বাঘটি ভয় পেয়ে ওকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়I এরপর আমরা উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে চলে আসি হাসপাতালে।"

    Arpan Mondal

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Tiger attack at Sunderban

    পরবর্তী খবর