নিউ নর্মালে রুফ টপ গার্ডেন তৈরিতে মেতেছেন বর্ধমানের বাসিন্দারা

নিউ নর্মালে রুফ টপ গার্ডেন তৈরিতে মেতেছেন বর্ধমানের বাসিন্দারা

গাছের পরিচর্যা করে এখন দিন কাটাচ্ছেন তাঁদের অনেকেই

গাছের পরিচর্যা করে এখন দিন কাটাচ্ছেন তাঁদের অনেকেই

  • Share this:

#বর্ধমান: নিউ নর্মালে গাছ লাগানোয় মেতেছে শহর বর্ধমান। বাড়ির ছাদে বিভিন্ন টবে মাথা দোলাচ্ছে চন্দ্রমল্লিকা,ডালিয়া,জারবেরা,পিটুনিয়ার দল। করোনার সংক্রমণ এড়াতে বাড়িতে থাকা অনেকেই অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন। গাছের পরিচর্যা করে এখন দিন কাটাচ্ছেন তাঁদের অনেকেই। অন্যান্যবারের তুলনায় এবার মরশুমি ফুলের চাহিদা অনেকটাই বেশি বলে জানাচ্ছেন গাছ বিক্রেতারাও।

শীতকালে বাড়ির ছাদে ফুলের টবে ডালিয়া, গাঁদা, চন্দ্রমল্লিকা অনেকের বাড়িতেই থাকে। গাছ প্রেমীরা খুঁজে পেতে ফুলে ফুলে ভরিয়ে ফেলেন বাড়ির ছাদ। কিন্তু এবার অনেকেই হাত লাগিয়েছেন মরশুমি বিভিন্ন ফুলে বাড়ি সাজানোর কাজে। টব কিনে এনে মাটি তৈরি করে ছুটছেন গাছ সংগ্রহের জন্য। গাঁদা, চন্দ্রমল্লিকা, ডালিয়া, ক্যালেন্ডুলার বাইরে খোঁজ চলছে পিটুনিয়া, ভারবেনা, অ্যালিসাম, অ্যান্টিরাইনাম, অ্যাস্টার, নেরারিয়া, জেরেনিয়াম, ইম্পেসেন্স, কার্নেশন,এজেলিয়ার। অনেকে আবার খোঁজ করছেন রেয়ার অর্কিডেরও। কেউ কেউ আবার খোঁজ করছেন বিভিন্ন রঙের জবা বা গোলাপের। সব মিলিয়ে এবার ঘরে ঘরে গাছ লাগানোর হিড়িক দেখা যাচ্ছে।

বয়স্করা বলছেন, এখন বাইরে যাওয়ার উপায় নেই। সংক্রমণ এখনও চলছে। সকাল সন্ধে হাঁটতে বের হওয়াও যাচ্ছে না। তাই গাছ নিয়েই মেতে রয়েছি। মন ভালো থাকছে। পরিশ্রমও হচ্ছে। আবার সময়ও কেটে যাচ্ছে।

অনেকে আবার গাছ কিনছেন ঘর সাজাতে। কেনা হ্য়ে গিয়েছে স্বপ্নের ফ্ল্যাট। এবার তার ভেতর বাইরে সাজিয়ে তোলার পালা। লাকি বাম্বু থেকে শুরু করে সেনসোপেরিয়া, সিঙ্গোনিয়াম, ক্যালাথিয়া, ফাইলোডেনড্রন বা মানি প্ল্যান্ট সংগ্রহের নেশায় মেতেছেন অনেকেই।

জমাটি শীত পড়তেই এখন শহরের গাছ বিক্রেতাদের কাছে ভিড় উপছে পড়ছে। অনেকে আবার গাছ আনছেন শহরের বাইরে বা অন্য জেলার নার্সারি থেকেও। অনেকে আবার বাড়ির ছাদ ভরিয়ে তুলেছেন পালং, পুনকো, মেথি, লেটুস শাকে, ধনে পাতায়, পুদিনা পাতায়। ছাদ বাগান কিংবা কিচেন গার্ডেনে এখন ফলনের অপেক্ষায় শিম, বেগুন, টমেটো, ব্রকোলি, স্টবেরি বা ড্রাগন ফ্রুট। সব মিলিয়ে নিউ নর্মালে গাছকে সঙ্গী করে দেহমনে সুস্হ থাকার দিশা দেখছেন অনেকেই।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: