নামের বিভ্রান্তির জেরে সদ্যজাত শিশু বদলের অভিযোগ রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে

হাসপাতালের রেজিট্রারের খাতায় নামের বিভ্রান্তির জেরে সদ্যজাত শিশু বদলের অভিযোগ উঠল রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে। রোগীর পরিবার রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 11, 2018 01:25 PM IST
নামের বিভ্রান্তির জেরে সদ্যজাত শিশু বদলের অভিযোগ রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে
Representational Image
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 11, 2018 01:25 PM IST

#রায়গঞ্জ:  হাসপাতালের রেজিট্রারের খাতায় নামের বিভ্রান্তির জেরে সদ্যজাত শিশু বদলের অভিযোগ উঠল রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে। রোগীর পরিবার রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে । অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ৷

আরও পড়ুন: কসবায় কীভাবে ও কখন খুন করা হয় শীলা চৌধুরীকে, পুলিশের জেরায় জানাল ধৃত সাফাই কর্মী

৬ই জুন কাটিহার জেলার বাসিন্দা আনোয়ার আলমের স্ত্রী শাবানা খাতুন গর্ভাবতী অবস্থায় রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্ত্তি হয়। রাত ৮টা নাগাদ একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয় সাবানা খাতুন। কিন্তু মা ও ছেলের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে শাবানাকে ICU ও তার সদ্যজাত শিশুকে SNCU ১০ নম্বর বেডে রাখা হয়। অন্যদিকে SNCU ১৫ নম্বর বেডে শাবিনা খাতুন নামে এক রোগীর সদ্যজাত শিশুর ভর্তি ছিল।

আরও পড়ুন: আগামী ৪৮ ঘণ্টায় রাজ্যজুড়ে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

শাবানা খাতুনের পরিবারের অভিযোগ, একাধিকবার তাদের সদ্যজাত শিশুর বিষয়ে জানতে গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে ৷ এই ভাবে তিনদিন পেরিয়ে যাওয়ার পর রবিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয় যে তাদের শিশুর মৃত্যু হয়েছে ৷ কিন্তু শিশুটির দেহ চাইলে হাসপাতালের তরফে জানানো হয় যে তাদের হাতে আগেই শিশুর মৃতদেহ দেওয়া হয়েছিল ৷

আরও পড়ুন: ফের কমল পেট্রোল ডিজেলের দাম, স্বস্তিতে সাধারণ মানুষ

পরে হাসপাতালের রেজিট্রার খাতা দেখে জানতে পারা যায় যে শাবানা খাতুনের পরিবারের জায়গায় শাবিনা খাতুনের পরিবারের হাতে শিশুটি তুলে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মৃত শিশুকে নিজের সন্তান ভেবে সাবিনা নিয়ে চলে যান নিজের বাড়িতে।

এই ঘটনার পর শাবানার বাড়ির পক্ষ থেকে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ৷ পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, নামের বিভ্রান্তির জেরেই এই শিশু বদলের ঘটনা ঘটেছে। অন্যদিকে শাবিনা খাতুন যে মৃতশিশু নিয়ে বাড়ি গিয়েছে সেই সদ্যজাত শিশু শাবানা খাতুনের। শাবিনার শিশু হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৫ নম্বর বেডে রয়েছে।

হাসপাতাল সুপার জানিয়েছেন, নার্সিং স্টাফের গাফিলতিতে এই ঘটনাটি ঘটেছে।

First published: 01:25:38 PM Jun 11, 2018
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर