Modi in Bengal: '২ মে দিদি যাচ্ছে, আসল পরিবর্তন আসছে',কাঁথিতে মোদি

Modi in Bengal: '২ মে দিদি যাচ্ছে, আসল পরিবর্তন আসছে',কাঁথিতে মোদি

কাঁথিতে বক্তব্য রাখছে নরেন্দ্র মোদি। Photo from twitter

এক নজরে দেখা যাক নরেন্দ্র মোদি যা বললেন-

  • Share this:

    #কাঁথি: তিন দশক পরে কাঁথিতে পা পড়ল কোনও প্রধানমন্ত্রীর। যদিও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নয়, শুভেন্দু অধিকারী শিশির অধিকারীর গড়ে নরেন্দ্র মোদি এলেন বিজেপির প্রচারে। সভায় স্বমেজাজে দেখা গেল শুভেন্দু অধিকারী, শিশির অধিকারীকে। এলেন সৌম্যেন্দু অধিকারীও। যদিও শেষ পর্যন্ত এলেন না দিব্যেন্দু অধিকারী। বহিরাগত তোপের পাল্টা দিয়ে মোদি বললেন, ভারতে কেউ বহিরাগত নয়, এল রবীন্দ্রনাথের উদাহরণ,জাতীয় সঙ্গীতের প্রসঙ্গ। মোদির কথায়, "বঙ্কিমবাবু, রবি ঠাকুরের, মাতঙ্গিনী হাজরার ভূমিতে আমাদের বহিরাগত বলছেন। এখানে কোনও ভারতবাসীই বহিরাগত নয়।" পাশাপাশি রইল বড় ইঙ্গিত, বললেন, জিতলে বাংলরা ভূমিপুত্রই হবে মুখ্যমন্ত্রী।  মমতাকে নিশানা করে তোপ, খেলা নয় সেবা হবে। যেহেতু প্রার্থী শুভেন্দু মঞ্চেই, তাই সেখান থেকেই রইল নন্দীগ্রাম নিয়ে বার্তা। মোদি বললেন, "নন্দীগ্রাম থেকেই সব পেয়েছেন মমতা, আর আজ বদনাম করছেন সেখানকার মানুষের।"

    এক নজরে দেখা যাক নরেন্দ্র মোদি যা বললেন-

    • গোটা দেশ স্বাধীনতা আন্দোলনের ৭৫ বছর পালন করছে। এই স্বাধীনতার লড়াইয়ে পশ্চিমবঙ্গের অবদান অনেক বড়।
    • আজ ২৫ বছর বয়সি যে যুবক, অথবা যে যুবক প্রথমবার ভোট দিচ্ছেন, তার জন্যেও ভোট গুরুত্বপূর্ণ। আগামী পঁচিশ বছরে তাকে নতুন সমাজ গড়তে হবে। সে জন্যই আসল পরিবর্তন দরকার। বাংলার ঘরে ঘরে এখন একটাই আওয়াজ, ২ মে দিদি যাচ্ছে
    • আজকাল বারংবার দিদি আসছেন মেদিনীপুরে। কিন্তু সেই পরিবারগুলিকে দিদি জবাব দিতে পারেননি যাদের আমফান নিঃস্ব করেছে, তারপর নিঃস্ব করেছে তৃণমূলের লোক
    • দিদি ও দিদি (মোদির সম্বোধন) গরিবের চাল কে লুঠল? দরকারে দিদিকে পাওয়া যায় না। ভোটের সময় বলা হয় দুয়ারে দুয়ারে সরকার।
    • এটাই ওঁর খেলা। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ এই খেলা ধরে ফেলেছে। এই কারণেই ২ মে পশ্চিমবঙ্গ দুয়ার দেখাবে। লোকেরা আপনাকে দরজা দেখাবে। তৃণমূলের পাপের ঘড়া ভরে গিয়েছে।
    • পূর্ণচন্দ্র দাস, শেখ লিয়াকত আলি-র মতো মানুষ শহিদ হয়েছে তৃণমূলের হাতে। এর শাস্তি দেবে ভাজপা। তার আগে পোলিং বুথে মা বোন কুশাসনকে শাস্তি দেবে।
    • যেখানে যাচ্ছি দেখছি লক্ষ লক্ষ লোক। এই ছবিটাই সব বলে দিচ্ছে। টিএমসির খেলা শেষ হবে, বিকাশ আরম্ভ হবে।
    • বাংলার বিকাশের জন্য আমরা জান দেবো। বাংলা চায় শিক্ষা শিল্প কর্মসংস্থান। বাংলা চায় কৃষক সম্মান। বাংলা চায় বিজেপি সরকার। স্ক্যামকে স্কিমে পরিণত করবে বিজেপি।
    • মানুষের কথা শুনে, অসুবিধে বুঝে, ভবিষ্যতকে সুন্দর করতে সংকল্পপত্র তৈরি করেছে বাংলার বিজেপি নেতারা।
    • চিংড়ি চাষ করছেন বহু লোক এখানে। দিদির সরকার এখানে কোল্ড স্টোরেজ সহ বহু সুবিধে থেকে বঞ্চিত করে রেখেছে। কিন্তু আমরা লোকালের জন্য ভোকাল।
    • পাটচাষি হোক বা কাজু চাষি সবার ভালোর জন্য আমরা কাজ করতে চাই। পাটের ব্যবহার ক্রমে বাড়ছে। বাংলার চাষি দিদির নির্মমতা ভুলবে না।
    • হলদিয়াকে তছনছ করেছে তৃণমূলের সিন্ডিকেট। কমিশন কালচার থেকে বের করতে হবে হলদিয়াকে। আমরা চাইছি নতুন অর্থব্যবস্থা, যেখানে প্রতিটি মৎস্যজীবী ভালো থাকবে। আমরা হলদিয়া পোর্ট বিকাশে বড় যোজনা শুরু করেছি। ডবল ইঞ্জিন সরকার এলে মেদিনীপুরের প্রতিটি পরিবারের লাভ।
    Published by:Arka Deb
    First published: