Modi attacks Mamata: 'দিদি হার মেনে নিয়েছেন', নন্দীগ্রামের ঘটনা নিয়ে মমতাকে কটাক্ষ মোদির

Modi attacks Mamata: 'দিদি হার মেনে নিয়েছেন', নন্দীগ্রামের ঘটনা নিয়ে মমতাকে কটাক্ষ মোদির

মমতাকে আক্রমণ মোদির৷

মুখ্যমন্ত্রী পৌঁছতেই এ দিন নন্দীগ্রামের বয়ালের ৭ নম্বর বুথের বাইরে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷

  • Share this:

    #নন্দীগ্রাম: নন্দীগ্রামের বয়ালের বুথে গিয়ে দু' ঘণ্টা আটকে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেই সময় অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে সেখানকার পরিস্থিতি৷ রাজ্যে ভোট প্রচারে এসে এই ঘটনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ তাঁর দাবি, নন্দীগ্রামের ঘটনাই প্রমাণ করে যে মমতা হার মেনে নিয়েছেন৷

    এ দিন হাওড়ার উলুবেড়িয়ার সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'কিছুক্ষণ আগে নন্দীগ্রামে যা হল আমরা সবাই দেখেছি৷ এতেই প্রমাণিত, দিদি হার মেনে নিযেছেন৷ এটাই বুঝিয়ে দিচ্ছে যে বাংলায বিজেপির সরকার তৈরি হতে চলেছে৷' তৃণমূলনেত্রীকে উদ্দেশ করে নরেন্দ্র মোদির আরও কটাক্ষ, 'দিদি, এখনও শেষ দফার ভোটের জন্য মনোনযন জমা দেওয়া চলছে৷ কানাঘুষো শুনছি আপনি নাকি শেষ পর্বের ভোটের জন্য অন্য কোনও আসন থেকে মনোনযন জমা দিতে পারেন, এটা কি সত্যি? আপনি নন্দীগ্রামে গেলেন, মানুষ আপনাকে জবাব দিয়ে দিয়েছে৷ আপনি অন্য কোথাও গেলেও বাংলার মানুষ তৈরি হয়ে রয়েছে৷'

    মমতাকে আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী এ দিন আরও বলেন, 'বাংলার মানুষ সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছেন যে দিদিকে বিদায় জানাতে হবে৷ নন্দীগ্রামের মানুষ এ দিন সেই স্বপ্নটাই পূরণ করলেন৷'

    মুখ্যমন্ত্রী পৌঁছতেই এ দিন নন্দীগ্রামের বয়ালের ৭ নম্বর বুথের বাইরে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷ হাতে ইট, বাঁশ, লাঠি নিয়ে বুথের বাইরে জড়ো হয়ে যান শয়ে শয়ে তৃণমূল ও বিজেপি সমর্থক৷ কিন্তু পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য সেখানে কোনও কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানকে দেখা যায়নি৷ বুথের ভিতরে আধাসেনা থাকলেও বাইরে কেন্দ্রীয় বাহিনীর কোনও জওয়ানকে কেন দেখা গেল না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ পুলিশ বাহিনীও পর্যাপ্ত সংখ্যায় না থাকায় মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতেই সংঘর্ষ বেঁধে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়৷

    এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীকে বুথের বাইরে আনার সাহস পাননি তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরা৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছনোর প্রায় দেড় ঘণ্টা বাদে ওই বুথে পৌঁছন নন্দীগ্রামে নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী৷ আনা হয় অতিরিক্ত কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ প্রায় দু' ঘণ্টা আটকে থাকার পর বিশেষ পর্যবেক্ষের আশ্বাসে বুথ ছাড়েন মুখ্যমন্ত্রী৷

    বয়ালের ওই বুথ থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অবশ্য ভোটের দিন রাজ্যে প্রধানমন্ত্রীর প্রচার নিয়ে আপত্তি জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর অভিযোগ, ভোটের দিন প্রধানমন্ত্রী প্রচার করায় বাড়তি সুবিধে পাচ্ছে বিজেপি৷ এ দিন উলুবেড়িয়ার পাশাপাশি দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার মথুরাপুরেও সভা করেন প্রধানমন্ত্রী৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর