মমতা পৌঁছতেই রণক্ষেত্র বয়াল, বুথ দখলের অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

মমতা পৌঁছতেই রণক্ষেত্র বয়াল, বুথ দখলের অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

বয়ালের ৭ নং বুথে মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। বাইরে বেনজির উত্তেজনা।

মুখ্যমন্ত্রী যখন প্রিসাইডিং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলছেন, ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে গোটা নন্দীগ্রামে তার মধ্যে এই অশান্তি শুধুই অপ্রীতিকর নয়, প্রশ্ন উঠছে কেন্দ্রবাহিনীর কার্যকারিতা নিয়ে।

  • Share this:

    #নন্দীগ্রাম: সকাল থেকেই প্রবল ঝামেলার খবর আসছিল নন্দীগ্রামের হয়াল অঞ্চল থেতে। সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে বেবিয়ে সেই বয়ালের ৭ নং বুথে পৌঁছন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তিনি পৌঁছতেই চরম উত্তেজনা তৈরি হল। তৃণমূল বিজেপি দুইপক্ষেরই হাতাহাতি আটকাতে নামাতে হল র‍্যাফ। মুখ্যমন্ত্রী যখন প্রিসাইডিং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলছেন,  ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে গোটা নন্দীগ্রামে তার মধ্যে এই অশান্তি শুধুই অপ্রীতিকর নয়, প্রশ্ন উঠছে কেন্দ্রবাহিনীর কার্যকারিতা নিয়ে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেও বুথ দখল করে অভিযোগ তুলেছেন। মমতার বক্তব্য তাঁর দল থেকে ৬৩ টি অভিযোগ জানানো হয়েছে কমিশনে। পাশাপাশি এই ঘটনায় বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার কথাও বলেছেন। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে বুথে আটকে রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ বাইরে বিজেপি সমর্থক হিসেবে যারা জমায়েত করছেন তাঁরা বাংলার মানুষই নন, বহিরাগত তারা।

    এ দিন সকাল থেকেই বয়ালের গ্রামবাসীরা অভিযোগ করছিলেন বহিরাগতরা তাঁদের ভোট দিতে দিচ্ছে না। বিজেপির বিরুদ্ধে ছাপ্পা ভোট দেওয়ারও অভিযোগ জানাতে থাকে তৃণমূল কর্মীরা। বিশেষত বয়ালের ৬ এবং ৭ নং বুথে এজেন্ট বসতে দেওয়া হয়নি দীর্ঘক্ষণ বলে অভিযোগ। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধেও অনেকে আঙুল তোলেন। শাসানো হয়েছে বলেও জানান তাঁরা।

    এই সব অভিযোগ যাচাই করতে মমতা বুথে পৌঁছলে দেখা যায় বাইরে ১০০ মিটারের মধ্যে যুদ্ধপরিস্থিতি তৈরি হয়ে যায়। চার দিক থেকে বহু লোক জয় শ্রীরাম স্লোগান তুলতে থাকে, তারা কি এলাকার মানুষ নাকি বহিরাগত তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। ইঁট, বাঁশ হাতে জমায়েত করতে দেখা দুপক্ষকেই। উল্লেখ্য বিক্ষুব্ধ দুপক্ষই একে অন্যকে বহিরাগত বলে দাবি করতে থাকেন। পরিস্থিতি কার্যত বেনজির হয়ে ওঠে। পুলিশ মানুষকে বোঝাতে শুরু করে।

    কিন্তু প্রশাসনের শীর্ষমুখ যখন বুথে তখন প্রায় ৪০ মিনিট এই অশান্তি কী করে চলে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এমনও মনে করা হচ্ছে, পুলিশের অপার্যপ্ততাতেই এই ধরনের ঘটনা ঘটছে।

    Published by:Arka Deb
    First published: