ভবানীপুরকে সাজিয়েই নন্দীগ্রামে এসেছেন, বিরোধীদের কটাক্ষের জবাব দিলেন মমতা

ভবানীপুরকে সাজিয়েই নন্দীগ্রামে এসেছেন, বিরোধীদের কটাক্ষের জবাব দিলেন মমতা

নন্দীগ্রামের সভায় মুখ্যমন্ত্রী৷

এ দিন নন্দীগ্রামের সভায় শুরু থেকেই শুভেন্দু অধিকারী এবং শিশির অধিকারীকে তীব্র আক্রমণ করেন তৃণমূলনেত্রী৷

  • Share this:

    #নন্দীগ্রাম: ভবানীপুরে হার নিশ্চিত বুঝেই তিনি নন্দীগ্রাম থেকে প্রার্থী হয়েছেন৷ নন্দীগ্রামে থেকে নিজের নাম প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করার পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রীকে এমনই কটাক্ষ করছে বিজেপি সহ বিরোধীরা৷ এ দিন নন্দীগ্রামের সভা থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করলেন, ভবানীপুরে যথেষ্ট উন্নয়ন করেই তিনি নন্দীগ্রামে প্রার্থী হয়েছেন৷ ভবানীপুরের মতো নন্দীগ্রামকেও তিনি সাজিয়ে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেন মমতা৷

    এ দিন নন্দীগ্রামের সভায় শুরু থেকেই শুভেন্দু অধিকারী এবং শিশির অধিকারীকে তীব্র আক্রমণ করেন তৃণমূলনেত্রী৷ তিনি বলেন, 'বলছে কাউকে হারানোর জন্য নাকি আমি নন্দীগ্রামে এসেছি৷ আমার বয়ে গিয়েছে৷ আমি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যন্ত্রী৷ যে কোনও কেন্দ্র থেকে আমি দাঁড়াতে পারি৷ ভবানীপুর আমার প্রিয় কেন্দ্র৷ তাহলে কেন এসেছি নন্দীগ্রামে? কারণ নন্দীগ্রামের মানুষ আমাকে সেদিন উৎসাহিত করেছেন এখানে দাঁড়ানোর জন্য৷ আপনারা বলেছেন দাঁড়াও৷ সব জাতীয়, আন্তর্জাতিক, সংবাদমাধ্যম এখানে চলে এসেছে৷ আমি এটাই চেয়েছিলাম আমার সাধের নন্দীগ্রাম, সিঙ্গুর এক নম্বরে চলে যাক৷ আমি নন্দীগ্রাম, সিঙ্গুরের ভূমি আন্দোলনের কাছে ঋণী৷ আগামী পাঁচ দিন আমি নন্দীগ্রামে থাকব৷ এই আমি পাঁচদিন ভবানীপুরে থাকলে ২০টি মিটিং করতে পারতাম৷ মানে ২০টি বিধানসভা কেন্দ্র কভার করতে পারতাম৷ সব বাদ দিয়ে নন্দীগ্রামে এসেছি নন্দীগ্রামের ভূমি আন্দোলনকে প্রণাম, সেলাম জানানোর জন্য৷'

    এর পরই ভবানীপুরের তুলনা টানেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, 'ভবানীপুরে গিয়ে দেখেছেন তো, প্রত্যেকটা পার্ক, বাস স্ট্যান্ড থেকে শুরু করে প্রত্যেকটা গাছ কীভাবে সাজিয়ে দিয়েছি? আপনাদের এখানে দোকান থেকে রাস্তাঘাট সাজানোর দায়িত্ব আমার৷ নিশ্চিন্ত থাকুন, নন্দীগ্রামকে আমি মডেল টাউন হিসেবে গড়ে তুলব৷'

    মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কালীঘাটে তাঁর বাড়িতে সিএমও রয়েছে৷ তিনি না থাকলেও যে কেউ গিয়ে সেখানে নিজেদের সমস্যার কথা জানাতে পারেন৷ নন্দীগ্রামেও তিনি একই ধরনের অফিস করে দেবেন বলেও আশ্বস্ত করেছেন মমতা৷ পাশাপশি তিনি জানান, কালীঘাটের মতোই নন্দীগ্রামেও একটি বাড়ি করতে চান তিনি৷ তবে আপাতত রেয়াপাড়ার একটি একতলা ভাড়া বাড়িতে দু'টি ঘর নিয়ে থাকছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ আগামী ১ এপ্রিল ভোট মেটার পর নন্দীগ্রাম থেকেই শিলিগুড়িতে প্রচারের জন্য রওনা দেবেন তিনি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর