'আমি গাধা ছিলাম', অধিকারী পরিবারের সম্পত্তির 'হিসেব' দিয়ে আক্ষেপ মমতার

'আমি গাধা ছিলাম', অধিকারী পরিবারের সম্পত্তির 'হিসেব' দিয়ে আক্ষেপ মমতার

মমতার নিশানায় অধিকারীরা

মমতা বলেন, 'আমি তো গাধা ছিলাম। বিশ্বাস করে গিয়েছি, ভালোবেসেছি নিঃস্বার্থভাবে। আর এখন তো শুনছি সম্পত্তি নাকি ৫০০০ কোটি টাকার। এত টাকা কোথা থেকে এল?'

  • Share this:

    #দক্ষিণ কাঁথি: বিজেপিতে যাওয়া ইস্তক বারবার নিজেকে বারবার অকৃতদার, বাংলার মানুষের বন্ধু বলে দাবি করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। বলেছেন, 'আমার টাকাপয়সার কী দরকার?' অনেকেই শুভেন্দুর সেই দাবির সঙ্গে মোদির মিল খুঁজে পেয়েছেন। আর এবার শুভেন্দুর বাড়ির কাছে দক্ষিণ কাঁথি থেকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে ভাষায় আক্রমণ শানালেন শুভেন্দু তথা গোটা অধিকারী পরিবারকে, তা রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। মমতা বলেন, 'আমি তো গাধা ছিলাম। বিশ্বাস করে গিয়েছি, ভালোবেসেছি নিঃস্বার্থভাবে। আর এখন তো শুনছি সম্পত্তি নাকি ৫০০০ কোটি টাকার। এত টাকা কোথা থেকে এল?'

    মমতার সংযোজন, 'এবারের ভোট গদ্দারদের বিরুদ্ধে ভোট, মীরজাফরদের ছেড়ে কথা বলবেন না। মনে রাখবেন, বিজেপি একটা ডাকাত পার্টি, সিপিএমের হার্মাদ আর আমাদের কিছু গদ্দাররা জুটেছে।' এবারের ভোট প্রচারে বাংলার মানুষকে বারবার সতর্ক করছেন মমতা। এদিনও তার অন্যথা হয়নি। বলেন, 'বহিরাগত গুণ্ডাদের কিন্তু এলাকায় ঢুকতে দেবেন না। ভোটের মেশিন খারাপ হলে ধৈর্য্য ধরে বসে থাকবেন। কিন্তু ছেড়ে চলে যাবেন না। ভোট হয়ে যাওয়ার পরও পাহারা দিতে হবে সহকর্মীদের। ২০-৩০ জন করে ছেলে-মেয়ে নিয়মিত এলাকা পাহারা দেবে। যাতে কোনওভাবে ভোট মেশিন দখল করতে না পারে।'

    বিজেপি সোনার বাংলা গড়ার যে দাবি করছেন, তা নিয়েও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মমতা। দক্ষিণ কাঁথির সভামঞ্চ থেকে মমতা বলেন, 'বিজেপিকে জিজ্ঞাসা করুন, কেন গ্যাসের দাম বাড়ছে। কেন পেট্রোলের দাম বাড়ছে। কয়েকজন কোটিপতি আপনাদের সব লুঠ করে নিয়ে চলে যাবে। বিজেপি ভোট চাইলে জিজ্ঞাসা করুন, রেল, কোল, এয়ার ইন্ডিয়া, কেন বিক্রি হচ্ছে?' এদিন পিএম কেয়ার্স ফান্ড নিয়েও তোপ দেগেছেন মমতা। বলেন, 'পিএম কেয়ার্স, নোট বন্দির টাকা কোথায় গেল? বিজেপিকে জবাব দিতে বলুন। ভোট এলেই লোককে ৫০০-১০০০ টাকা করে দিচ্ছে। বিজেপি এখন হাজার হাজার কোটি টাকার মালিক। সেই টাকা থেকে গুণ্ডা পোষে। টাকা দিয়ে ভোট দেবেন না।'

    প্রথম দফা ভোটের আগে শেষ রবিবাসরীয় ভোটপ্রচারে উত্তপ্ত বঙ্গ। প্রথম দফা ভোটের সপ্তাহখানেক আগে বক্সিং গ্রাউন্ড মেদিনীপুর। একুশের ভোটযুদ্ধে মেদিনীপুরের মাটিতে দাঁড়িয়ে আরও কড়া হচ্ছে প্রতিপক্ষের প্রতি আক্রমণ। নাম না করে একদা বিশ্বস্ত সহকর্মী থেকে এখন ভোটকেন্দ্রের প্রতিদ্বন্দ্বীতে পরিণত হওয়া শুভেন্দু অধিকারী সহ গোটা অধিকারী পরিবারকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ শানাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও বলেন, 'গদ্দাররা হাত ধরে বিজেপিকে এনেছে। ২০১৪ থেকে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছে। ঘরে ঢুকে সিঁধ কেটেছে। এদের জমিদারি থেকে মেদিনীপুরকে মুক্ত করতে হবে। '

    Published by:Suman Biswas
    First published: