হাতিয়ার উন্নয়ন, ১০-০ গোলে হারবে বিজেপি! চ্যালেঞ্জ হারলে রাজনীতি ছাড়বেন অভিষেক

হাতিয়ার উন্নয়ন, ১০-০ গোলে হারবে বিজেপি! চ্যালেঞ্জ হারলে রাজনীতি ছাড়বেন অভিষেক

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

এদিন বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের বার বার বাংলায় এসে ভোট প্রচারকে তীব্র কটাক্ষ করেন অভিষেক। তাঁর দাবি, বিজেপির মন্ত্রীদের সভায় লোক আসছে না, আর মমতার জনসভায় জনসমুদ্র দেখা যাচ্ছে। বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগে অভিষেকের বার্তা, 'গণতান্ত্রিকভাবে সন্ত্রাস রুখতে হবে। চমকে, ধমকে এবার ভোট হবে না।'

  • Share this:

    #ময়না: পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না থেকে ফের একবার বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন যুব তৃণমূলের সভাপতি ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের বার বার বাংলায় এসে ভোট প্রচারকে তীব্র কটাক্ষ করেন অভিষেক। তাঁর দাবি, বিজেপির মন্ত্রীদের সভায় লোক আসছে না, আর মমতার জনসভায় জনসমুদ্র দেখা যাচ্ছে। বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগে অভিষেকের বার্তা, 'গণতান্ত্রিকভাবে সন্ত্রাস রুখতে হবে। চমকে, ধমকে এবার ভোট হবে না।'

    এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরেন অভিষেক। তৃণমূল সরকারের উন্নয়নকে হাতিয়ার করেই ময়নার মানুষদের ভোট বাক্সে জোড়া ফুলে ভোট দেওয়ার আবেদন করেন তিনি। তাঁর কথায়, 'নারী ক্ষমতায়নের প্রতীক হিসেবে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এটা যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। ভারতের বুকে আর কেউ করতে পেরেছে? বিজেপি সরকার, মোদির সরকার ২০১৪ থেকে ২০২১ কী করেছে? আর বাংলার মেয়ে ১০ বছরে কী করেছে নিজেরাই ভেবে দেখুন। প্রকৃত রাজনীতিবিদ হলে এজেন্সির ভয় নয়, জোর করে মাথা নীচু করে ভোট করানো নয়, তথ্য পরিসংখ্যান সামনে রেখে লড়ুন। উন্নয়নের নিরিখে ১০-০ গোলে হারাতে না পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেব।'

    এদিন জনসভায় অভিষেক প্রশ্ন করেন, 'বলেছিল ১৫ লক্ষ টাকা করে দেব, বছরে ২ কোটি বেকারকে চাকরি দেব, কালো টাকা ধ্বংস করব, জিএসটি করে অর্থনীতি শক্তিশালী করব, করেছে? কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, স্বাস্থ্যসাথী, বিনা পয়সায় খাদ্য, শিক্ষা দেব বলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তর আসবে হ্যাঁ। ভোটের রাজনীতি তৃণমূল কংগ্রেস করে না। একদিকে বিজেপির খালি ভাষণ, আর একদিকে থালা ভরতি রেশন। আপনারা কোনটা বেছে নেবেন? পয়লা এপ্রিল বিজেপিকে এপ্রিল ফুল করে দেবেন। পূর্ব মেদিনীপুরের উন্নয়নের চালক হবে ময়না। বহিরাগতদের তাড়াবেন, বিজেপিকে হারাবেন। মমতার হাত শক্তিশালী করুন আপনারা।'

    এদিন নাম না করে শুভেন্দু অধিকারী ও শিশির অধিকারীকেও কটাক্ষ করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, 'মেদিনীপুরের আবেগ দিল্লির বুকে বিক্রি করেছেন তাঁদেরকে ক্ষমা করবেন না।' তৃণমূল কংগ্রেসের ইস্তেহারে বাংলাবাসীদের জন্য মমতা কী কী করতে চান, সেই খতিয়ানও তুলে ধরেন অভিষেক। কটাক্ষ করেন বিজেপির প্রার্থী তালিকা ও জেলায় জেলায় কর্মী-সমর্থকদের বিক্ষোভ নিয়ে। তাঁর কথায়, 'প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে ল্যাজে গোবরে বিজেপি। এরা নাকি সোনার বাংলা গড়বে!'

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর