• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • MADHYAMIK STUDENT WAS BEATEN TO DEATH AFTER HE PROTESTED AGAINST SEXUAL HARASSMENT PBD

যৌন লালসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ, পিটিয়ে খুন মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে

প্রতিবাদী কিশোরের মৃত্যুর ঘটনা নতুন করে উষ্কে দিল ২০১১ এর বহুচর্চিত রাজীব দাস খুনের ঘটনা। সেবারও দিদি রিঙ্কু দাসের সম্ভ্রম বাঁচাতে প্রতিবাদ করে বারাসাতে নৃশংস ভাবে খুন হতে হয়েছিল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রাজীব দাসকে। ২০১১-র পর ২০২১ মাত্র দশ বছরের ব্যবধানে এই দুটি ঘটনার সঙ্গেই মিল রয়েছে হুবহু।

প্রতিবাদী কিশোরের মৃত্যুর ঘটনা নতুন করে উষ্কে দিল ২০১১ এর বহুচর্চিত রাজীব দাস খুনের ঘটনা। সেবারও দিদি রিঙ্কু দাসের সম্ভ্রম বাঁচাতে প্রতিবাদ করে বারাসাতে নৃশংস ভাবে খুন হতে হয়েছিল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রাজীব দাসকে। ২০১১-র পর ২০২১ মাত্র দশ বছরের ব্যবধানে এই দুটি ঘটনার সঙ্গেই মিল রয়েছে হুবহু।

  • Share this:

#দত্তপুকুর: বিকৃতকাম সাধুর যৌন লালসার প্রতিবাদ৷ প্রাণ দিয়ে তার মাশুল দিতে হল এক কিশোরকে। মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ওই প্রতিবাদী কিশোরের নাম যুগল দাস(১৫)। তাঁকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে খুন করার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার দত্তপুকুর থানার নিবাধুয়ের ক্ষুদিরাম পল্লীতে। ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে  দত্তপুকুরে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ইতিমধ্যে মূল অভিযুক্ত শম্ভু বাগ সহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

প্রতিবাদী কিশোরের মৃত্যুর ঘটনা নতুন করে উষ্কে দিল ২০১১ এর বহুচর্চিত রাজীব দাস খুনের ঘটনা। সেবারও দিদি রিঙ্কু দাসের সম্ভ্রম বাঁচাতে প্রতিবাদ করে বারাসাতে নৃশংস ভাবে খুন হতে হয়েছিল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রাজীব দাসকে। ২০১১-র পর ২০২১  মাত্র দশ বছরের ব্যবধানে এই দুটি ঘটনার সঙ্গেই মিল রয়েছে হুবহু। কার্যত বারাসত ও দত্তপুকুর পরস্পরকে মিলিয়ে দিয়েছে একে অপরের সাথে। প্রসঙ্গত, ২০১১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বারাসতে দিদি রিঙ্কুর সম্ভ্রম রুখতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের হাতে খুন হয়েছিলেন মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রাজীব দাস। বাম আমলে সেই ঘটনা ঘিরে সেসময় তোলপাড় হয়েছিল রাজ্য রাজনীতি। যা এবার ভোটের মুখে ঘটল বারাসতের নিকটবর্তী দত্তপুকুরে। এখানেও প্রতিবাদী ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে খুন হতে হয়েছে প্রতিবেশীরই বিকৃত লালসার প্রতিবাদ করে।

আরও পড়ুন সরাসরি বাড়িতে ঢুকে গুলি! মৃত ১ যুবক, আহত ২ কিশোর,কিশোরী

মৃতের পরিবারের অভিযোগ এই এলাকার বাসিন্দা  শম্ভু বাগ ওরফে সাধুর বিরুদ্ধে৷ বহুদিন ধরেই শিশু, কিশোরদের সাথে বিকৃত যৌনাচার চালিয়ে আসছে সে, এমনই অভিযোগ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যুগল দাসকে ডাকে সাধু। অভিযোগ, বিকৃত যৌন বাসনায় যুগলকে সামিল করতে চায় সাধু। সাধু বলে পরিচিত শম্ভু বাগের চাহিদাতে নারাজ হয় যুগল। এরপরে বিকৃত যৌন কামনা ও অবাধ যৌনাচারের প্রত্যক্ষ সাক্ষী হয়ে যুগল দাস ও তার বন্ধুরা প্রতিবাদে সরব হয়।  বন্ধুদের নিয়ে সাধুর ভাড়া বাড়িতে প্রতিবাদ করতে যায় যুগল ও তার বন্ধুদের দাবি নিহতের বন্ধু চিন্ময় ঢালির। তার অভিযোগ , অনেক শিশু-কিশোর দীর্ঘদিন ধরে সাধুর লালসার শিকার। যুগল চাক্ষুষ প্রমাণ পাওয়ায় সে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হয় জনসমক্ষে শম্ভু বাগের কুকীর্তি ফাঁস করে হাতেনাতে সাধুকে পাকড়াও করাবে।

কিন্তু প্রতিবাদ করতে যাওয়াই কাল হয় ।  শম্ভু বাগের (৪৫) বিকৃত কামনার প্রতিবাদ করায় সাধুর দলবল বাঁশ লাঠি সহ চড়াও হয় প্রতিবাদকারী যুগল ও তার বন্ধুবান্ধবের উপর, দাবি চিন্ময় ঢালির। চিন্ময়কে লক্ষ করে চালানো বাঁশ গিয়ে আঘাত করে যুগলের মাথায়।  মাথায় আঘাত নিয়েই বাড়ি ফেরে যুগল। নিহতের বাবার দাবি মায়ে কাছে ভাত খাওয়ার পরই তার খিঁচুনি ওঠে। তাকে বারাসাত হাসপাতালের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার পথে রাতেই তার মৃত্যু হয়। বুধবার দত্তপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।  দত্তপুকুর থানার পুলিশ মুল অভিযুক্ত সহ চার অভিযুক্তকে পাকড়াও করে।

Published by:Pooja Basu
First published: