Home /News /south-bengal /

West Bengal News: 'বিয়ে করবে আমায়', দশ বছরের বড় প্রেমিকার সঙ্গে যা করল প্রেমিক! অবাক শক্তিগড়

West Bengal News: 'বিয়ে করবে আমায়', দশ বছরের বড় প্রেমিকার সঙ্গে যা করল প্রেমিক! অবাক শক্তিগড়

West Bengal News: বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিল প্রেমিকা, গলার নলি কেটে তাকে খুন করল প্রেমিক! শক্তিগড়ে চাঞ্চল্য।

  • Share this:

#শক্তিগড়: বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিল প্রেমিকা। তার জেরে তার গলার নলি কেটে খুন করল প্রেমিক। এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে বর্ধমানের শক্তিগড়ে। অভিযুক্ত যুবককে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খুনের পেছনে আর কোনও বিষয় রয়েছে কিনা জানতে ধৃতকে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

বর্ধমানের শক্তিগড় থানার বাগমারি এলাকায় বন্ধ ইটভাটা থেকে সোমবার সকালে মৌমিতা দে (৩৫) নামে স্থানীয় এক মহিলার গলাকাটা দেহ উদ্ধার হয়। খুনের ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই পুলিশ প্রীতম সামন্ত নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযোগ, রবিবার রাতে মৌমিতা কে ধারাল অস্ত্র দিয়ে গলার নলি কেটে খুন করেছে প্রীতম। ভাতারের বাসিন্দা প্রীতম সামন্তকে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

মৌমিতার আগে বিয়ে হয়েছিল। বছর পাঁচেক আগে তার স্বামী মারা যায়। দুই ছেলেকে নিয়ে শক্তিগড়ে বাবার বাড়িতেই থাকতো মৌমিতা। সংসার চালাতে একটি বাড়িতে রান্নার কাজও করত। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, ভাতারের বাসিন্দা প্রবীরের সঙ্গে মৌমিতার এক বছরের বেশী সময় ধরে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। কিন্তু মৌমিতা বিয়ের প্রস্তাব দিতেই সেই সম্পর্কের অবনতি হয়।

রবিবার বিকালে ফোন করে মৌমিতাকে ডেকে পাঠায় প্রীতম। এরপর দুজনে মিলে বর্ধমান শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় ঘোরাঘুরি করে। একসঙ্গে খাওয়াদাওয়াও করে। এরপর ইটভাটায় নিয়ে গিয়ে প্রীতম মৌমিতাকে খুন করে বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: ষড়যন্ত্রেই মৃত্যু কৃষকদের, রাজধর্ম পালনে পদ খোয়াবেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী?

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই বিয়ের জন্য প্রীতমকে চাপ দিচ্ছিল মৌমিতা। কিন্তু দশ বছরের বড় মৌমিতাকে বিয়ে করতে কোনও ভাবেই রাজি হচ্ছিল না প্রীতম। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে বারে বারে অশান্তিও হয়। সেদিনও বর্ধমান থেকে বাইক নিয়ে বাড়ি ফেরার সময়ে এই নিয়েও অশান্তি হয় বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। এরপরই মৌমিতাকে বাগমারি এলাকায় বন্ধ ইটভাটায় নিয়ে যায় প্রীতম। সেখানে কথা কাটাকাটি চলার সময়েই পকেটে থাকা ধারাল অস্ত্র দিয়ে মৌমিতার গলার নলি কেটে দেয় প্রীতম। রুমালে হাত মুছে গাড়ি নিয়ে ফিরে যায় ভাতারের এরুয়ারের বাড়িতে। পেশায় একটি মোটর সাইকেল কোম্পানির সেলসম্যান হিসেবে কাজ করত সে। কুড়মুন ও বলগোনা এলাকার দুটি শোরুমে তার যাতায়াত ছিল। পুলিশ জানতে পেরেছে, কুড়মুন শোরুমে যাতায়াত করার সময়েই মৌমিতার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে প্রীতমের।

আরও পড়ুন: দুর্গাপুজোর আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি, মোদিকে ধন্যবাদ বঙ্গ বিজেপির! কিন্তু কেন?

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিংহরায় বলেন, ''প্রাথমিক তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি মৌমিতা বিয়ে করার জন্য প্রীতম কে চাপ দিচ্ছিল। প্রীতম বিয়ে করতে রাজি না হওয়ার কারনেই ধারাল অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে খুন করেছে।''

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Bardhaman, West Bengal news

পরবর্তী খবর