বাড়ি চাই, গাড়ি চাই... শ্বশুরবাড়ির অত্যাচারে অত্যাঘাতী নববধূ

গতকাল রাতে ফোনে দুজনের মধ্যে তুমুল ঝামেলা হয়। তারপরেই আজ সকালে বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় রাখীর ঝুলন্ত দেহ।

গতকাল রাতে ফোনে দুজনের মধ্যে তুমুল ঝামেলা হয়। তারপরেই আজ সকালে বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় রাখীর ঝুলন্ত দেহ।

  • Share this:

    #জগদ্দল: পণের কারণে বিয়ের চার মাসের মধ্যেই প্রেমের করুণ পরিণতি। নিজের বাড়িতেই আত্মঘাতী সোনারপুর কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। বছর খানেক আগে সোনারপুরের রাঘবপুরের বাসিন্দা রোহিত তরফদারের সাথে আলাপ হয় জগদ্দল তরফদার পাড়ার বাসিন্দা রাখী তরফদারের। চলতি বছরের জুলাই মাসে দুজনের বিয়ে হয়। বিয়ের পরেই শুরু হয় অত্যাচার ৷ বাড়ি বানিয়ে দেওয়া, গাড়ি কিনে দেওয়ার জন্য রাখীর উপর অত্যাচার চলত বলে অভিযোগ। তাঁকে মারধোরও করা হত। কথা না শুনলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হত। গতকাল রাতে ফোনে দুজনের মধ্যে তুমুল ঝামেলা হয়। তারপরেই আজ সকালে বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় রাখীর ঝুলন্ত দেহ। বাড়ির লোক সকাল থেকে ডাকাডাকি করেও কোনও সাড়া পায়নি। তারপর জানলা দিয়ে দেখে ঝুলন্ত দেহ। খবর দেওয়া হয় সোনারপুর থানায়। পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে দেহ উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। দেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রাখীর স্বামীকে আটক করেছে করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

    First published: